হবিগঞ্জ-১ আসন

ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী হচ্ছেন কিবরিয়ার ছেলে ড. রেজা

গণফোরামের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ

  বাহুবল (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়ার ছেলে ড. রেজা কিবরিয়া।
সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়ার ছেলে ড. রেজা কিবরিয়া। ফাইল ছবি

হবিগঞ্জ-১ আসনে ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচন করার ঘোষণা দিয়ে আলোড়ন তুলেছেন সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়ার ছেলে ড. রেজা কিবরিয়া। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘নবীগঞ্জ-বাহুবল থেকে নির্বাচন করতে চান ড. রেজা কিবরিয়া’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পর রেজা আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছেন। তার প্রার্থিতা নিয়ে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্যে ব্যাপক কৌতূহলের সৃষ্টি হয়েছে। এ নিয়ে নির্বাচনী এলাকায় আলোচনা সমালোচনার ঝড় বইছে।

সাবেক অর্থমন্ত্রী কিবরিয়ার ছেলে ড. রেজা ১/১১ এর সময় আওয়ামী লীগের সংস্কারপন্থী দলে থাকায় দলীয়প্রধানের রোষানলে পড়েন। এ কারণে ২০০৮ ও ২০১৪ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়নের জন্য লবিং করেও রেজা ব্যর্থ হন। তার পরিবর্তে ২০০৮ সালে দেওয়ান ফরিদ গাজীকে এ আসনে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হয়। ২০১০ সালে ফরিদগাজী মারা গেলে উপনির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী শেখ সুজাত মিয়া নির্বাচিত হন। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জাতীয় পার্টির এমএ মুনিম চৌধুরী বাবু নির্বাচিত হন। এবার জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট থেকে প্রার্থী হতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন রেজা কিবরিয়া। শুক্রবার ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম শরিক গণফোরাম থেকে তিনি মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। রেজার ব্যক্তিগত সহকারী শাহাব উদ্দিন শুভ জানান, ড. রেজা গণফোরামের পক্ষ থেকে হবিগঞ্জ-১ আসনে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করে জমা দিয়েছেন।

যুগান্তরকে ড. রেজা কিবরিয়া জানান, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট মনোনয়ন দিলে শতভাগ নিশ্চিত তিনি ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচন করবেন। হবিগঞ্জ-১ (নবীগঞ্জ-বাহুবল) আসনে তিনি নির্বাচন করার ইচ্ছা পোষণ করেন। এ ব্যাপারে চাচাতো ভাই শাহ গোলাম মুর্শেদ বলেন, রেজা ঐক্যফ্রন্ট থেকে নির্বাচন করবেন। জনগণ তাকে মূল্যায়ন করলে বাবার মতো তিনিও এলাকার উন্নয়নে ভূমিকা রাখবেন। সাবেক ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আ ক ম ফখরুল ইসলাম বলেন, ড. রেজা প্রার্থী হয়ে এলে ভোটের হিসাব-নিকাশে ওলটপালট হবে। এখানে কে নির্বাচিত হবেন, সেটা এখনও বলা যাচ্ছে না। তবে রেজা কিবরিয়ার প্রার্থিতার ঘোষণায় এলাকায় আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে।

নবীগঞ্জ পৌর বিএনপির সভাপতি ও পৌর মেয়র আলহাজ ছাবির আহমদ চৌধুরী বলেন, এখনও কোনো গ্রিন সিগন্যাল পাইনি। দলের হাইকমান্ড কী সিদ্ধান্ত নেয় সে অপেক্ষায় আছি। রেজার বাবা সাবেক অর্থমন্ত্রী কিবরিয়া হত্যা মামলার আসামি বিএনপির নেতাকর্মীরা। অথচ রেজা ধানের শীষ নিয়ে নির্বাচন করবেন জেনে আমরা চরম বিব্রতকর অবস্থায় পড়েছি। এখানে দলীয় নেতা শেখ সুজাত যোগ্য প্রার্থী। আমরা তাকেই ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী হিসেবে দেখতে চাই।

নবীগঞ্জ উপজেলা যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোর্শেদ আহমদ বলেন, রেজা ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী হলে কেন্দ্রের নির্দেশ আমাদের মানতে হবে। কেন্দ্র যাকে ধানের শীষ দেবে আমরা তার পক্ষেই কাজ করব। বাহুবল উপজেলা বিএনপির সভাপতি আকাদ্দছ মিয়া বাবুল জানান, কেন্দ্র যাকে ধানের শীষ প্রতীক দেবে তার সঙ্গে আমরা থাকব।

ফেসবুকে রেজার পক্ষে-বিপক্ষে মন্তব্য করা হচ্ছে। বিএনপি নেতাকর্মীদের কেউ কেই তাকে স্বাগত জানিয়ে পোস্ট দিচ্ছেন। আবার কেউ বিএনপি নেতা সাবেক সংসদ সদস্য শেখ সুজাত মিয়ার পক্ষে পোস্ট দিচ্ছেন। রেজার প্রতি ইতিবাচক মতামত প্রকাশ করে সাধারণ মানুষ বলছেন, হবিগঞ্জের উন্নয়নে তার বাবার অনেক অবদান রয়েছে। ব্যক্তিজীবনে রেজা ক্লিন ইমেজের। নির্বাচিত হলে তিনি বাবার মতোই অবদান রাখবেন বলে অনেকে মন্তব্য করেন।

২০০৫ সালের ২৭ জানুয়ারি হবিগঞ্জের বৈদ্যারবাজারে এক জনসভায় গ্রেনেড হামলায় আওয়ামী লীগ নেতা এএমএস কিবরিয়া নিহত হন।

ঘটনাপ্রবাহ : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×