সাংবাদিকদের ওপর হামলা

সিলেটের ত্রাস লিয়াকতসহ আসামি ২২

  সিলেট ব্যুরো ২৭ জানুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সিলেটে আদালতের এজলাসের সামনে সাংবাদিকদের ওপর হামলার ঘটনায় সিলেটের ত্রাস, আওয়ামী লীগ নেতা লিয়াকত আলীসহ তার ক্যাডারদের বিরুদ্ধে দ্রুত বিচার আইনে মামলা হয়েছে। এতে আসামি করা হয়েছে জাফলং-জৈন্তাপুরের পরিবেশ ধ্বংসকারী ও জৈন্তাপুর উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক মল্লিফৌদ গ্রামের ওয়াজেদ আলী টেনাইয়ের পুত্র লিয়াকত আলী, নয়াখেল গ্রামের ফয়েজ আহমদ বাবর ও নজরুল, আদর্শ গ্রামের শামীম আহমদ, হরিপুরের জুয়েল আরমান ও খারুবিলের হোসেইন আহমদ ছাড়াও অজ্ঞাত ১৫-১৬ জন। আদালতে সন্ত্রাসী হামলায় আহত যমুনা টেলিভিশনের সিলেট অফিসের ক্যামেরাপার্সন নিরানন্দ পাল বাদী হয়ে শুক্রবার মামলা করেন। সিলেট কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি গৌছুল হোসেন মামলা রেকর্ডের কথা নিশ্চিত করে বলেন, আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশ কাজ করছে।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, পাথর লুটকে কেন্দ্র করে একজন প্রবাসী হত্যা মামলায় আসামি লিয়াকতসহ ৩১ জন আসামি বৃহস্পতিবার জামিন নিতে যান আদালতে। বিচারক একজনের জামিন মঞ্জুর করে বাকি ৩০ জনকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন। খবর সংগ্রহ করতে যান যমুনা টিভির ক্যামেরাপার্সন নিরানন্দ পাল, দৈনিক যুগান্তরের ফটোসাংবাদিক মামুন হাসান ও চ্যানেল নাইনের ক্যামেরাপার্সন শাকিল আহমদ সোহাগ। এ সময় লিয়াকতের নির্দেশে সাংবাদিকদের ওপর হামলা ও ক্যামেরা ভাংচুর করে তার বাহিনী। হামলায় ৩ লক্ষাধিক টাকা মূল্যের একটি ক্যামেরা ভাংচুর করা হয়। পরে আহত সাংবাদিকদের উদ্ধার করে ওমসানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। নিরানন্দ পালের মাথার আঘাত গুরুতর।

শাবি প্রেস ক্লাবসহ বিভিন্ন সংগঠনের নিন্দা : সাংবাদিকদের ওপর সন্ত্রাসী হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় প্রেস ক্লাবের নেতারা। হামলায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন প্রেস ক্লাব সভাপতি আবদুল্লাহ আল মনসুর ও সাধারণ সম্পাদক ফয়জুল্লাহ ওয়াসিফ।

মাদানী কাফেলা : যমুনা টিভির সিলেট অফিসের ক্যামেরাপার্সন নিরানন্দ পাল এবং যুগান্তরের মামুন হাসানের ওপর ন্যক্কারজনক হামলা ও ক্যামেরা ভাংচুরের ঘটনায় নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছে মাদানী কাফেলা বাংলাদেশের সভাপতি মোহাম্মদ রুহুল আমিন নগরী, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা সালেহ আহমদ শাহবাগী।

মানবাধিকার বাস্তবায়ন ফাউন্ডেশন : সংগঠনের সিলেট বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আসাদুজ্জামান, সাধারণ সম্পাদক মনোরঞ্জন তালুকদার, সিলেট জেলা সভাপতি আশরাফুর রহমান চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. সাজ্জাদুর রহমান অবিলম্বে হামলার সঙ্গে জড়িতদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়ার জন্য প্রশাসনের প্রতি আহবান জানান।

দক্ষিণ সুরমা প্রেস ক্লাব : দক্ষিণ সুরমা প্রেস ক্লাব সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম মুসিক ও সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইমরান যুক্ত বিবৃতিতে আদালতপাড়ায় সাংবাদিকদের ওপর হামলায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে অবিলম্বে দায়ীদের গ্রেফতার করে সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানান।

শাস্তি দাবি সুনামগঞ্জ প্রেস ক্লাবের : সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, সাংবাদিকদের ওপর ন্যক্কারজনক হামলা ও ক্যামেরা ভাংচুরের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন সুনামগঞ্জ প্রেস ক্লাব নেতারা। বিবৃতিদাতারা হচ্ছেন- প্রেস ক্লাবের সভাপতি অ্যাডভোকেট শামসুন্নাহার শাহানা, সহসভাপতি বিজন সেন রায়, রওনক আহমেদ বখত, সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ শেরগুল আহমেদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান পীর, অর্থ সম্পাদক সেলিম আহমদ তালুকদার, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিকবিষয়ক সম্পাদক শাহাবুদ্দিন আহমেদ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আল হেলাল, পাঠাগার সম্পাদক অরুণ চক্রবর্তী, ক্রীড়া সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম শ্যামল, কার্যনির্বাহী পরিষদ সদস্য অ্যাডভোকেট আজিজুল ইসলাম চৌধুরী, অ্যাডভোকেট আইনুল ইসলাম বাবলু, ঝুনু চৌধুরী, মাসুম হেলাল, হিমাদ্রী শেখর ভদ্র প্রমুখ। তারা এ ঘটনাকে অনভিপ্রেত ও স্বাধীন সাংবাদিকতার জন্য হুমকি হিসেবে উল্লেখ করেন।

ছাতক প্রেস ক্লাবের নিন্দা : ছাতক (সুনামগঞ্জ) প্রতি?নি?ধি জানান, সিলেট আদালত চত্বরে সাংবাদিকদের ওপর হামলার তীব্র নিন্দা, প্রতিবাদ ও ক্ষোভ জানিয়েছেন ছাতক প্রেস ক্লাব নেতারা। বিবৃতিতে ছাতক প্রেস ক্লাবের সভাপতি গিয়াস উ?দ্দিন তালুকদার ও সাধারণ সম্পাদক আ?নোয়ার হো?সেন র?নি বলেন, আদালত চত্বরে জৈন্তাপুর উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক লিয়াকত আলীর অনুসারীরা কর্মরত সাংবাদিকদের ওপর যে হামলা চালিয়েছে, তা স্বাধীন সাংবাদিকতার জন্য হুমকিস্বরূপ। তারা বলেন, লিয়াকত আলী এর আগে দৈনিক সবুজ সিলেটের জৈন্তাপুর প্রতিনিধি রেজওয়ান করিম সাব্বিরকে শারীরিক নির্যাতন ও দৈনিক জালালবাদের জৈন্তাপুর প্রতিনিধি গোলাম সরোয়ার বেলালকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করেছিল। তারা হামলাকারীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×