আহত আ’লীগ নেতার মৃত্যু, অর্ধশতাধিক বাড়িঘর ভাংচুর অগ্নিসংযোগ

  গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

আওয়ামী লীগ নেতা ও বোকাইনগর ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার মো. মোস্তাকিম
আওয়ামী লীগ নেতা ও বোকাইনগর ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার মো. মোস্তাকিম

গৌরীপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় গুরুতর আহত আওয়ামী লীগ নেতা ও বোকাইনগর ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার মো. মোস্তাকিম বৃহস্পতিবার রাতে ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

এই খবর পেয়ে মোস্তাকিমের সমর্থকরা উপজেলা মহিলা শ্রমিক লীগের কার্যালয়সহ ৪টি গ্রামের ৬টি দোকান ও ৫৬টি ঘর ভাংচুরের পর অগ্নিসংযোগ করে। লুটপাটও হয় ওইসব বাড়িতে।

পূর্ব শত্রুতার জেরে বুধবার মোস্তাকিমকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আবু সাঈদ ওরফে শাহেদ আলীর লোকজন। মারধরে মোস্তাকিমের দুই পা ও ডান হাত ভেঙ্গে যায়।

স্থানীয় কয়েকজন জানান, মোস্তাকিমের মৃত্যুর খবর গ্রামে পৌঁছলে তার পরিবার ও এলাকাবাসীর মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। ভোরে বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসী বালুচড়া গ্রামের আবু সাঈদ ওরফে শাহেদ আলী এবং তার ছেলে স্বপন মিয়ার বাড়িতে হামলা চালিয়ে ৮টি ঘর পুড়িয়ে দেয়। এরপর তারা নিজামাবাদ, মানিকদিতে শাহেদের আত্মীয়স্বজনের ৩৫টি ঘরবাড়িতে লুটপাটের পর আগুন দেয়।

হামলাকারীরা স্বল্প পশ্চিমপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক দিলরুবা ইয়াসমিন, উপজেলা মহিলা শ্রমিক লীগের সভাপতি তাসলিম ইয়াসমিন কলির বাড়িতেও ভাংচুর ও লুটপাট চালায়। তাদের বাড়িতে আগুনও দেয়া হয়। উপজেলা শ্রমিক লীগের কার্যালয়ও ভাংচুর করে তারা।

বালুচড়া গ্রামের গৃহবধূ নূরজাহান জানান, মোস্তাকিমের ওপর হামলার ঘটনায় আমাদের পরিবারের কেউ জড়িত নয়। শুধু শাহেদের বাড়ির পাশে বাড়ি হওয়ায় আমাদের ঘরবাড়ি পুড়িয়ে ছাই করে দিয়েছে ওরা। হাতে-পায়ে ধরে কান্নাকাটি করেও রক্ষা পাইনি। ওই গ্রামের গৃহবধূ কামরুন্নাহার জানান, তিনি বাবার বাড়িতে ছিলেন, এসে দেখেন পুড়ে সব ছাই হয়ে গেছে। তালাবদ্ধ ঘরে প্রায় ২০ লাখ টাকার মালামাল ভস্মীভূত হয়েছে।

উপজেলা মহিলা শ্রমিক লীগের সভাপতি তাসলিমা ইয়াসমিন কলি বলেন, মোস্তাকিমের মৃত্যুকে ইস্যু করে জামায়াত-বিএনপির লোকজন আমার দুটি ঘরে লুটপাটের পর পুড়িয়ে দিয়েছে। ভাংচুর করা হয়েছে মহিলা শ্রমিক লীগের কার্যালায়টি। পুলিশ কোনো ভূমিকা নেয়নি। দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে হামলার দৃশ্য দেখেছে।

গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবদুল্লহ আল মামুন বলেন, মোস্তাকিমের মৃত্যুর জের ধরে ৪টি গ্রামে ২৫টি বাড়ির প্রায় ৫০ থেকে ৫৬টি ঘরবাড়ি পুড়িয়ে দিয়েছে বিক্ষুব্ধ জনতা। তাদেরকে নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করা হয়েছিল। এ বিষয়ে থানায় এখনও কোনো অভিযোগ আসেনি।

তিনি জানান, মোস্তাকিমের স্ত্রীর দায়ের করা মামলাটি হত্যা মামলায় রূপান্তরিত হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

ঈশ্বরগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার মাহফুজুর রহমান মাহফুজ জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করলে বিক্ষুব্ধ জনতা রামদা ও লাঠিসোটা নিয়ে তাদের দিকে তেড়ে আসে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছলে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন তারা।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্র জানায়, মোস্তাকিম উপজেলার বোকাইনগর ইউনিয়ন পরিষদের ৪নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য। পূর্বশত্রুতার জেরে ৬ ডিসেম্বর প্রতিপক্ষ একই ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আবু সাঈদ ওরফে শাহেদ আলী ও তার ছেলের লোকজন এবং তার ছেলে ৩নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য স্বপন মিয়া সন্ত্রাসী নিয়ে রড দিয়ে পিটিয়ে মোস্তাকিমের দু’পা ও ডান হাত ভেঙে দেয়।

এ ঘটনায় মোস্তাকিমের স্ত্রী আসমা আক্তার বাদী হয়ে গৌরীপুর থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলায় আসামি করা হয় ইউপি সদস্য স্বপন ও তার বাবা শাহেদ আলীসহ ৮ জনকে। এরমধ্যে পুলিশ শাহেদ আলীকে গ্রেফতার করেছে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×