খালেদা জিয়ার সঙ্গে কাউকে দেখা করতে দেয়া হচ্ছে না

রিজভী

  যুগান্তর রিপোর্ট ০৮ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

খালেদা জিয়া
খালেদা জিয়া। ফাইল ছবি

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী অভিযোগ করেছেন, দলের চেয়ারপারসন কারাবন্দি খালেদা জিয়ার সঙ্গে তিন সপ্তাহের বেশি সময় ধরে আত্মীয়-স্বজনসহ কাউকে দেখা করতে দেয়া হচ্ছে না। দেখা করার জন্য বারবার আবেদন করার পরও কারা কর্তৃপক্ষ কোনো সাড়া দেয়নি।

রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।

রিজভী বলেন, ২১ দিন চলে গেলেও বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার সঙ্গে তার নিকটাত্মীয়দের দেখা করতে দেয়া হচ্ছে না। বন্দিদের যে আইনসম্মত অধিকার তা থেকেও বঞ্চিত করা হচ্ছে খালেদা জিয়াকে।

বিএনপির এ নেতা অভিযোগ করেন, বিএনপি চেয়ারপারসনের একান্ত সচিব, আত্মীয়-স্বজন ও দলের সিনিয়র নেতারা সাক্ষাতের জন্য বারবার আবেদন করার পরও কারা কর্তৃপক্ষ তাতে কোনো কর্ণপাত করেনি। কারাবিধি অনুযায়ী সাত দিন পরপর বন্দিদের সঙ্গে সাক্ষাতের নিয়ম।

তিনি বলেণ, অথচ খালেদা জিয়ার ক্ষেত্রে এই বিধান করা হল ১৫ দিন পরপর। এখন সেই ১৫ দিনের বিধানকেও সরকারের নির্দেশে কারা কর্তৃপক্ষ অগ্রাহ্য করছে। খালেদা জিয়ার সঙ্গে তার নিকটাত্মীয়দের দেখা করতে না দেয়াটা রীতিমতো কঠিন মানসিক নির্যাতন। এ নিয়ে শুধু তার আত্মীয়-স্বজনরাই নন, দেশবাসী উদ্বেগাকুল ও উৎকণ্ঠিত।

বন্দিদের আইনসম্মত অধিকার থেকেও খালেদা জিয়াকে বঞ্চিত করা হচ্ছে অভিযোগ করে রিজভী বলেন, এই নিষ্ঠুর আচরণ কিসের ইঙ্গিতবাহী? বিশাল লাল দেয়ালের মধ্যে রুদ্ধকপাট মুক্তিহীন খালেদা জিয়াকে অন্তরীণ রেখে বাইরের দুনিয়া থেকে সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন করার পাঁয়তারা চলছে। অবিলম্বে খালেদা জিয়ার সঙ্গে তার নিকটাত্মীয়দের সাক্ষাতের ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান তিনি।

তিনি বলেন, বিবেক বিক্রি করা আওয়ামী লীগের নেতারা মানুষের ভোট কেড়ে নিতে কত দ্বিধাহীন, কত নির্লজ্জ। ভোগ-লালসায় অস্থির থাকায় এদের মানবিক বিবেচনাগুলো হারিয়ে গেছে। এরা ক্ষমতা ধরে রাখতে পুলিশের বুটের তলায় মানুষের ভোটাধিকার চেপে দেয়ার যে কলঙ্কজনক দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন সেটিরই পুনরাবৃত্তি করার অঙ্গীকার করলেন আগামী নির্বাচনের জন্য।

যারা ভোট বিসর্জন দিয়ে ন্যায়বিচারের এথিকসের ধার ধারেন না কেবল তাদের দ্বারাই পূর্বে সংঘটিত যে কোনো ঘৃণ্য কাজের পুনরাবৃত্তি হওয়া সম্ভব। সংসদ নির্বাচনের পর দলের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে ‘মিথ্যা মামলা’ করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন রিজভী।

তিনি বলেন, গত শনিবার মিথ্যা মামলায় হাজিরা দিতে গেলে কক্সবাজারের কুতুবদিয়া উপজেলা বিএনপির সভাপতি জালাল আহমদসহ ১৪ জনের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এ ছাড়া বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সমবায়বিষয়ক সম্পাদক ও হবিগঞ্জ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জি কে গউছকে প্রধান আসামি করে এক হাজার ২০০ জনের বিরুদ্ধে আবারও চারটি মিথ্যা মামলা করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা নাজমুল হক নান্নু, অধ্যাপিকা সাহিদা রফিক, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, সহ-দফতর সম্পাদক মুনির হোসেন প্রমুখ।

ঘটনাপ্রবাহ : কারাগারে খালেদা জিয়া

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×