ছুটির দিনে জমজমাট বাণিজ্য মেলা

যমুনা ইলেকট্রনিক্সে ক্রেতাদের ভিড়

১২ হাজার টাকায় এলইডি টিভি

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৯ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ছুটির দিন শুক্রবার ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় যমুনা প্যাভিলিয়নে ক্রেতা-দর্শনার্থীদের ভিড়
ছুটির দিন শুক্রবার ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় যমুনা প্যাভিলিয়নে ক্রেতা-দর্শনার্থীদের ভিড়

সাপ্তাহিক ছুটির দিনে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় ক্রেতা-দর্শনার্থীদের উপচেপড়া ভিড় দেখা গেছে। এর মধ্যে দেশীয় ইলেকট্রনিক্স পণ্যের প্যাভিলিয়নগুলো ছিল সবার আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে।

মেলায় নতুন মডেলের কোনো এলইডি টিভি-ফ্রিজ এসেছে? দাম কত? সঙ্গে ছাড় আর অফার কী দেয়া হচ্ছে?- এসব খোঁজখবর নিয়েছেন ক্রেতারা। দেশীয় প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে যমুনা ইলেকট্রনিক্স প্যাভিলিয়নে সবচেয়ে বেশি ভিড় ছিল।

যমুনা ইলেকট্রনিক্স প্যাভিলিয়নে মাত্র ১২ হাজার টাকায় এলইডি টিভি বিক্রি হচ্ছে। শুধু তাই নয়, টিভি কিনলে সঙ্গে এক হাজার টাকার ক্যাশ ভাউচার ও ২০০ টাকার গিফট ভাউচার দেয়া হচ্ছে। নিু আয়ের মানুষের ঘরে ঘরে এলইডি টিভি পৌঁছে দিতে আকর্ষণীয় এ অফার চালু করেছে যমুনা ইলেকট্রনিক্স (১৫ নম্বর প্রিমিয়ার প্যাভিলিয়ন)।

এছাড়া পরবর্তীতে যমুনা ইলেকট্রনিক্সের যে কোনো পণ্য কিনলে ক্যাশ ভাউচার ব্যবহার করা যাবে। এতে ওই পণ্যের দাম এক হাজার টাকা কম রাখা হবে। গিফট ভাউচার যমুনা ফিউচার পার্কের বিনোদন কেন্দ্র যেমন কার্নিভাল,

ফিউচার ওয়ার্ল্ড, প্লেয়ার্স ক্লাব ও ব্লকবাস্টার সিনেমাসের টিকিট কেনার সময় ব্যবহার করা যাবে।

যমুনা ইলেকট্রনিক্সের প্যাভিলিয়ন ইনচার্জ সত্যজিৎ রায় জানান, বাণিজ্য মেলায় যমুনা ইলেকট্রনিক্স ক্রেতাদের জন্য উপহার ও ছাড়ের ডালি নিয়ে এসেছে। পণ্যের মডেলভেদে ২২ শতাংশ ডিসকাউন্ট দেয়া হয়েছে। এছাড়া প্রতি ১০ হাজার টাকার কেনাকাটায় এক হাজার টাকা ক্যাশ ভাউচার ও প্রতি হাজারে ১০০ টাকার গিফট ভাউচার দেয়া হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, নগদ টাকার পাশাপাশি যমুনা ইলেকট্রনিক্সের প্রতিটি পণ্যই ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে তিন থেকে ছয় মাসের কিস্তিতে কেনার সুযোগ রয়েছে। মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক, ডাচ্-বাংলা ব্যাংক, সিটি ব্যাংকের আমেরিকান এক্সপ্রেস ও ভিসা কার্ড, ইস্টার্ন ব্যাংক, ব্র্যাক ব্যাংক ও ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে পণ্য কেনা যাবে।

রেফ্রিজারেট : মেলা উপলক্ষে যমুনা ইলেকট্রনিক্স ২৭০ লিটারের ফ্রিজ ২৩ হাজার ৮০০ টাকায়, গ্লাস ডোরের ফ্রিজ ২১ হাজার টাকায় এবং ১৪৮ লিটারের ফ্রিজ ১৮ হাজার ৮১০ টাকায় বিক্রি করছে। যমুনার প্রতিটি ফ্রিজই ৬৫ শতাংশ জ্বালানি সাশ্রয়ী, ১০ বছরের কম্প্রেসার গ্যারান্টি রয়েছে। এতে পরিবেশবান্ধব আর ৬০০ এ গ্যাস, এন্টি ব্যাকটেরিয়াল ডোর গ্যাসকিট ব্যবহার করা হয়েছে। এ কারণে লোডশেডিংয়েও খাবার ৭২ ঘণ্টা এবং ডিপ ফ্রিজে ১২০ ঘণ্টা খাবার তরতাজা থাকে। যমুনার শতাধিক রঙ ও মডেলের ফ্রিজ রয়েছে।

সত্যজিৎ জানান, যমুনার প্রতিটি ফ্রিজ সর্বোচ্চ মান নিয়ন্ত্রণ করে বানানো হয়। এ কারণে অল্প দিনেই যমুনা ফ্রিজ ক্রেতাদের আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। এর বাহারি ডিজাইন ও রঙের বৈচিত্র্য ক্রেতারা এখন ঘরের শোভাবর্ধক ফার্নিচার হিসেবে ফ্রিজ কিনছেন।

তিনি আরও বলেন, দেশের ৭৫ শতাংশ ক্রেতা ফ্রিজ কিনতে ভুল সিদ্ধান্ত নেন। বিক্রয়কর্মীদের আকর্ষণীয় কথায় মজে এবং বাইরের চাকচিক্য দেখে তারা ফ্রিজ কেনেন। এ কারণে অল্প দিনেই প্রতারিত হন। অথচ ফ্রিজ কেনা উচিত এর বৈশিষ্ট্য দেখে। এখন দেশেই আন্তর্জাতিক মানের ফ্রিজ উৎপাদন হচ্ছে- এসব ফ্রিজ কিনলে কেউ প্রতারিত হবেন না।

এলইডি টিভি-মোটরসাইকেল : এবারের বাণিজ্য মেলায় ছয়টি আকারের এলইডি টিভি বিক্রি করছে যমুনা ইলেকট্রনিক্স। ২০, ২২, ২৪, ৩২, ৪২ ও ৫৫ ইঞ্চির এইচডি, ফুল এইচডি, স্মার্ট ও ৪কে আলট্রা টিভিগুলো সর্বোচ্চ মান নিয়ন্ত্রণ করে বানানো হয়েছে। প্রতিটি টিভি জ্বালানি সাশ্রয়ী। টিভিতে সরু ফ্রেম ব্যবহার করা হয়েছে। পাশাপাশি এতে ট্রু কালার টেকনোলজি ব্যবহার করা হয়েছে। এ কারণে ছবি প্রকৃত কালার দেখা যায়। এছাড়া ডিজিটাল সাউন্ড সিস্টেম, বিল্ট ইন ওয়াইফাই, ১৭৮ ডিগ্রি কোণ থেকে দেখা যায়।

অন্যদিকে, ৮০ থেকে ১৫০ সিসির পাঁচটি মডেলের মোটরসাইকেল বাণিজ্য মেলায় বিক্রি করা হচ্ছে। এগুলোর সবক’টিতে পাঁচ বছরের অথবা ৭০ হাজার কিলোমিটার পর্যন্ত ইঞ্জিন ওয়ারেন্টি রয়েছে। পাশাপাশি ৩০ হাজার কিলোমিটার পর্যন্ত ফ্রি সার্ভিস দেয়া হবে। ক্রেডিট কার্ডে মোটরসাইকেল কিনলে ১২ মাসের ইএমআই (প্রতি মাসের কিস্তি) সুবিধা রয়েছে। সঙ্গে টি-শার্ট, হেলমেট ও চাবির রিং এবং রেজিস্ট্রেশন ফ্রি করে দেয়া হবে।

এয়ারকন্ডিশন-ফ্যান : এসিতেও মূল্যছাড় দেয়া হয়েছে। মেলায় এক টনের এসি ৩৭ হাজার ৫০ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে। দেড় টন এসিতেও মূল্যছাড় রয়েছে। মূল্যছাড়ের পাশাপাশি বাসায় গিয়ে ইন্সটল করে দেয়ার সুবিধা দেয়া হচ্ছে।

সত্যজিৎ জানান, দেশীয় এসি উৎপাদকদের মধ্যে একমাত্র যমুনা এসিতে সঠিক বিটিইউ রয়েছে। যা ঘরের সঠিক তাপমাত্রা নিশ্চিত করে। এসব এসিতে পরিবেশবান্ধব ও জ্বালানি সাশ্রয়ী কম্প্রেসার ব্যবহার করা হয়েছে। এ কারণে বিদ্যুৎ বিল কম আসে। এ ছাড়া এসিতে অত্যাধুনিক সব প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে। যা এসিতে ফাঙ্গাস জন্মাতে দেয় না, ৩০ শতাংশ দ্রুত ঘর ঠাণ্ডা করে।

সাত ডিজাইনের ফ্যান বিক্রি করা হচ্ছে। ৪৮ ও ৫৬ ইঞ্চি তিন পাখাবিশিষ্ট ক্লাসিক, সুপার ডিলাক্স, লাক্সারি ও প্রিমিয়ার কোয়ালিটির ফ্যানের দাম ২২শ’ থেকে ২৪শ’ টাকা। সত্যজিৎ জানান, যমুনা ফ্যান বাংলাদেশের প্রথম সর্বোচ্চ মানের ফ্যান (এ ক্যাটাগরি) হিসেবে সরকারের পিডব্লিউডি তালিকাভুক্ত। সব ফ্যানে ১২ বছরের ওয়ারেন্টি রয়েছে।

ছুটির দিনে মেলায় ভিড় : মেলার দ্বিতীয় শুক্রবারে ক্রেতা-দর্শনার্থীদের উপচেপড়া ভিড় ছিল। সকালে জনসমাগম কম হলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মানুষের ঢল নামে বাণিজ্য মেলা প্রাঙ্গণে। এ সময় রাস্তার দুই দিকে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণে পুলিশকে হিমশিম খেতে দেখা গেছে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×