রোড শোতে প্রচার শুরু

প্রিয়াংকা গর্জনে কাঁপল উত্তরপ্রদেশ

  যুগান্তর ডেস্ক ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

রাহুল ও প্রিয়াংকা
রাহুল ও প্রিয়াংকা। ছবি: সংগৃহীত

পরনে সবুজ-সাদা চেকের হালকা রঙের সালোয়ার। গলায় জড়ানো ওড়নাটা সামনে ঝোলানো। লক্ষ্ণৌ বিমানবন্দরের বাইরে এলেন প্রিয়াংকা গান্ধী ভদ্র। পাশে ভাই রাহুল গান্ধী। মুহূর্তে স্লোগানের ঝড় বয়ে গেল চৌধুরী চরণ সিং বিমানবন্দর চত্বরে।

চারদিক থেকে ভেসে এলো শঙ্খধ্বনি। ছিটিয়ে পড়ল ফুলের পাপড়ি। সোমবার ভারতের উত্তরপ্রদেশ রাজ্যর রাজধানী লক্ষ্ণৌতে রোড শো দিয়েই নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করলেন কংগ্রেস সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াংকা। এদিন ‘নতুন ইন্দিরা গান্ধী’র ৩০ কিলোমিটারের এ রোড শোর গর্জনে কাঁপল গোটা উত্তরপ্রদেশ। পাল্টে গেল ভারতীয় রাজনীতির পুরো সমীকরণ। রাজ্যে কংগ্রেসের সঙ্গে সমঝোতার চিন্তা করছে সমাজবাদী পার্টি (এসপি) ও বহুজন সমাজ পার্টি (বিএসপি) জোট। কংগ্রেস মহল থেকেই গুঞ্জন উঠেছে, ২০২২ সালে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী প্রার্থী করা হবে প্রিয়াংকাকে।

এনডিটিভি বলেছে, লক্ষ্ণৌ বিমানবন্দর থেকে বাসের ছাদে সওয়ার হয়ে রোড শো শুরু করেন প্রিয়াংকা। পূর্ব উত্তরপ্রদেশের দায়িত্ব নেয়ার পর এই প্রথম উত্তরপ্রদেশে এলেন প্রিয়াংকা। ধামাকা রোড শো দিয়েই ঢুকে পড়লেন লোকসভা ভোটের ময়দানে। রোড শোকে কেন্দ্র করে রোববার থেকেই গোটা পথটাই মুড়ে ফেলা হয়েছিল ফ্লেক্স-ব্যানারে। সকাল থেকেই রোড শো স্থলে কাতারে কাতারে মানুষ ভিড় জমাতে শুরু করে। কারও হাতে পোস্টার। কারও হাতে ফুল। কারও হাতে শঙ্খ। নারীদের মুখে উলুধ্বনি। কংগ্রেসের কর্মী-সমর্থকদের পাশাপাশি সাধারণ মানুষের মধ্যেও একটা উৎসবের আমেজ।

দুপুর ১টার দিকে প্রিয়াংকা আগেই সজ্জিত একটি বাসের ছাদে উঠে পড়েন। সঙ্গে ছিলেন রাহুল, জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া, রাজ বব্বরসহ অনেকেই। ছাদে নিরাপত্তা ঘেরোটোপের মধ্যে দাঁড়িয়ে কর্মী-সমর্থকদের দিকে হাত নাড়ছেন প্রিয়াংকা, কখনও জোড় হাতে প্রণাম। বিমানবন্দর থেকে প্রিয়াংকার বাস আলমবাগ, চারবাগ, হুসেনগঞ্জ, লালবাগ, হজরতগঞ্জ পেরিয়ে কংগ্রেস দফতর নেহরু ভবনে এসে থামে। বাসের সামনে-পিছনে লাখ লাখ মানুষ পদযাত্রায় অংশ নেন। বাসের সামনে গোলাপি জামা পরে এগিয়ে যায় ‘প্রিয়াংকা সেনা’র ৫০০ সদস্য। তাদের জামায় প্রিয়াংকার ছবি, হিন্দিতে লেখা, ‘দেশের সম্মানে প্রিয়াংকাজি ময়দানে, মন দেব, সম্মান দেব, প্রয়োজনে দেব জীবনও।’

পাল্টে যাচ্ছে রাজনীতির সমীকরণ

প্রিয়াংকার আবির্ভাবে বদলাচ্ছে উত্তরপ্রদেশের রাজনীতির চিত্র। এসপি ও বিএসপি জোট কংগ্রেসের সঙ্গে সমঝোতার কথা ভাবতে শুরু করেছে। অখিলেশ-মায়াবতী জোট এত দিন প্রতিপক্ষ হিসেবে বিজেপির যোগীকেই দেখছিল। এদিনের রোড শোয়ে জনজোয়ারের পর আলাদা করে ভাবতেই হচ্ছে প্রিয়াংকাকে নিয়ে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সমাজবাদী পার্টির এক বর্ষীয়ান নেতা বলেন, প্রিয়াংকার হাত ধরে উত্তরপ্রদেশ নিয়ে ‘সিরিয়াস’ কংগ্রেস।

এসপি-বিএসপি শিবিরও তাই কৌশল বদলাতে বাধ্য হচ্ছে। এমনকি ১২ থেকে ১৫টি আসন ছাড়তেও রাজি বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন তিনি।’ এদিকে প্রিয়াংকার সক্রিয় রাজনীতিতে প্রবেশের সঙ্গে সঙ্গে শোরগোল পড়ে গিয়েছে রাজনৈতিক মহলে। লোকসভা ভোট তো বটেই উত্তরপ্রদেশের বিধানসভা নির্বাচনেও যে প্রিয়াংকার ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠতে চলেছে তাতে কোনো সন্দেহ নেই। ৩০ বছর বনবাস কাটানোর পর প্রিয়াংকার কাঁধে ভর করে ফের উত্তরপ্রদেশের মাটি দখল করতে চাইছে কংগ্রেস। গুঞ্জন উঠেছে, ২০২২ সালে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী করা হবে প্রিয়াংকাকে।

টুইটার অ্যাকাউন্ট খুলতেই ৭০ হাজার ফলোয়ার প্রিয়াংকার : প্রিয়াংকা সোমবার টুইটারে অ্যাকাউন্ট খোলার সঙ্গে সঙ্গে বিপুল সাড়া পড়ে যায় নেটিজেনদের মধ্যে। কয়েক ঘণ্টার মধ্যে তার ফলোয়ার ৭০ হাজার ছাড়িয়ে যায়। নিউজ-এইটিন ডটকম জানায়, উত্তরপ্রদেশে প্রথম প্রচারণার দিনই নিজের টুইটার অ্যাকাউন্ট খুললেন প্রিয়াংকা। নতুন অ্যাকাউন্ট থেকে প্রিয়াংকা এখনও কোনো টুইট করেননি। ফলো করছেন সাত জনকে। তাদের মধ্যে রয়েছে তার ভাই রাহুল, কংগ্রেসের অফিশিয়াল অ্যাকাউন্ট ও অন্য নেতারা।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×