সংসদ নির্বাচনের মতো ডাকসু নির্বাচন চাই না

নজরুল ইসলাম

  যুগান্তর রিপোর্ট ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান
বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান। ফাইল ছবি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ সৃষ্টির পথে সরকার বাধা হবে না মন্তব্য করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, ডাকসু নির্বাচন যাতে জাতীয় নির্বাচনের মতো না হয়, বিভিন্ন স্থানীয় সরকার নির্বাচনের মতো না হয়- এটিই সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ।

রাজধানীর চন্দ্রিমা উদ্যানে সোমবার দুপুরে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের মাজারে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে একথা বলেন তিনি। এর আগে ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ড্যাব) নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটির নেতাদের নিয়ে জিয়াউর রহমানের মাজারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন নজরুল ইসলাম খান।

ডাকসু নির্বাচন আয়োজনের পরিবেশ এখনও তৈরি করতে পারেনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এমন মন্তব্য করে নজরুল ইসলাম খান বলেন, এখনও সহাবস্থান নেই। তবে সরকারি দলের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিবেশ সৃষ্টির পথে তারা বাধা হবে না। আমরা তাদের বিশ্বাস করতে চাই। আমরা চাইব যে, আমাদের ছাত্রসমাজের সংগঠনগুলো যাতে তাদের মতপ্রকাশ ও নির্বাচনে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণের সুযোগ পায়। ছাত্রছাত্রীরা যাতে নির্বিঘ্নে ভোট দিতে পারে।

তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ডাকসু নির্বাচনে নির্বাচিত করতে পারে। নজরুল ইসলাম খান বলেন, সারা দেশে বিএনপিকে রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড করতে দেয়া হচ্ছে না, আমাদের নেতাকর্মীরা তাদের ঘরবাড়িতে থাকতে পারছে না। দেশের ছাত্রসমাজ দীর্ঘদিন ধরে বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজগুলোতে যেতে পারে না। বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের নানাভাবে হয়রানি করা হচ্ছে। মিথ্যা মামলা দিয়ে গ্রেফতার করা হচ্ছে, খুন ও গুম করা হয়েছে। এরকম একটা জটিল পরিস্থিতিতে আমাদের বহু প্রতীক্ষিত ডাকসু নির্বাচন হতে যাচ্ছে। আমরা বলেছি, ডাকসু নির্বাচন যাতে জাতীয় নির্বাচনের মতো না হয়, বিভিন্ন স্থানীয় সরকার নির্বাচনের মতো না হয়- এটিই সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্তৃপক্ষ আওয়ামী লীগ সরকারের নিয়োজিত, ফলে দুশ্চিন্তার কারণ আছে- এমন মন্তব্য করে নজরুল ইসলাম বলেন, আমরা আশা করব, যে ছাত্রসমাজ আমাদের যুগে যুগে পথ দেখিয়েছে, সেই ছাত্রসমাজ তাদের প্রতিষ্ঠানের নির্বাচন সুষ্ঠু করার জন্য সর্বশক্তিতে ঝাঁপিয়ে পড়বে। তিনি বলেন, আমরা আশা করছি, যারা গণতন্ত্র চায় আর যারা গণতন্ত্র চায় না, যারা গণতন্ত্র জবাই করে আর যারা গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করে- এ লড়াইটা হবে মূলত তাদের মধ্যে। সেই লড়াইয়ে গণতন্ত্রের পক্ষের শক্তি বিজয়ী হবে বলে আমরা আশা করি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রসমাজ সুষ্ঠু নির্বাচন করতে বাধ্য করবে বলেও মন্তব্য করেন নজরুল ইসলাম খান।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- দলের ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, এজেডএম জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা একেএম আজিজুল হক, আবদুল কুদ্দুস, সিরাজউদ্দিন আহমেদ, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, প্রচার সম্পাদক শহিদউদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, নবগঠিত ড্যাবের আহ্বায়ক ফরহাদ হালিম ডোনার, সদস্য সচিব ওবায়দুল কবীর খান, কোষাধ্যক্ষ একেএম মহিউদ্দিন ভূঁইয়া মাসুম, স্বেচ্ছাসেবক দলের শফিউল বারী বাবু, যুবদলের নুরুল ইসলাম নয়ন, কৃষক দলের কেন্দ্রীয় নেতা মাইনুল ইসলাম প্রমুখ।

ডাকসু নিয়ে শঙ্কা হাফিজের : ছাত্র সংগঠনগুলোর সহাবস্থান নিশ্চিত না করে তফসিল ঘোষণায় ডাকসু নির্বাচন সুষ্ঠু হবে কিনা তা নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমদ। সোমবার সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক প্রতিবাদ সভায় তিনি বলেন, ডাকসু নির্বাচনটি জাতীয় সংসদের ভোট ডাকাতির মতো আরেকটি নির্বাচন হবে বলেই বোঝা যাচ্ছে। ছাত্রসমাজের দাবি ছিল, হলগুলোতে ভোট কেন্দ্র না নিয়ে একাডেমিক ভবনে ভোট নেয়া হোক। ছাত্রদলকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না অভিযোগ তুলে হাফিজ বলেন, সহাবস্থানের চিহ্নমাত্র নেই যেখানে, সেখানে ডাকসু নির্বাচনে ভোট ডাকাতি হবে।

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আন্দোলনের বিকল্প নেই মন্তব্য করে তিনি বলেন, সারা পৃথিবীর মানুষ জানে বাংলাদেশে আইনের শাসন নেই, গণতন্ত্র নেই। জনগণের ভোটাধিকার নেই, মানবাধিকার নেই। দেশনেত্রী খালেদা জিয়ার আইনজীবীরাই বলেছেন আইনি প্রক্রিয়ায় তার মুক্তি সম্ভব নয়। এখন একটাই পথ খোলা আছে, তা হল রাজপথ উত্তপ্ত করা। রাজপথে জনতার সমাবেশ ঘটিয়ে এ সরকারকে গণআন্দোলনের মাধ্যমে বিদায় করতে হবে। এছাড়া অন্য কোনো পরিকল্পনা আমাদের কাজে লাগবে না।

নাগরিক অধিকার আন্দোলন ফোরামের উদ্যোগে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে এ প্রতিবাদ সভা হয়। সংগঠনের উপদেষ্টা সাঈদ আহমেদ আসলামের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলমের পরিচালনায় আরও বক্তব্য দেন বিএনপির আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ, শাহ নেসারুল হক, শাহজাহান সম্রাট, জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের শোয়াইব আহমেদ, জাগপার আবু মোজাফফর মো. আনাছ প্রমুখ।

ঘটনাপ্রবাহ : ডাকসু নির্বাচন

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×