সরেজমিন ঢাকা দক্ষিণ সিটি

বুথে ভোটার কম বাইরে লোকারণ্য

  উবায়দুল্লাহ বাদল, শিপন হাবীব ও ইয়াসিন রহমান ০১ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বুথে ভোটার কম বাইরে লোকারণ্য

সকাল থেকেই থেমে থেমে বৃষ্টি হচ্ছিল, কেন্দ্রে কেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতিও ছিল কম। কিছু কেন্দ্রে ভোটারের উপস্থিতির হার ছিল খুবই কম। তবে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটার উপস্থিতি কিছুটা বাড়তে থাকে।

নারী ভোটাররা খানিকটা দেরিতে ঘর থেকে বের হলেও কেন্দ্রে তাদের উপস্থিতি আশানুরূপ ছিল না। তবে প্রায় প্রতিটি ভোট কেন্দ্রের বাইরে ব্যাজ গলায় ঝুলিয়ে বিভিন্ন প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। বৃহস্পতিবার ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর পদে ভোটের চিত্র ছিল এমনই।

সকাল পৌনে ১১টা, ঢাকা দক্ষিণ সিটির ৭২নং ওয়ার্ডে মাণ্ডা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে পৌঁছানোর আগেই অটোরিকশাটি আটকে দিলেন রবিউল ইসলাম নামের এক স্বেচ্ছাসেবক। লাঠি হাতে চালককে রাস্তার পাশে অটোরিকশা দাঁড়ানোর নির্দেশ দিলেন।

সাংবাদিক পরিচয় দেয়ার পরও পাত্তা দিলেন না নির্বাচনী কাজে নিয়োজিত এ কর্মী। পাশে দাঁড় করানো একাধিক অটোরিকশা দেখিয়ে বললেন, ওইসব গাড়িও সাংবাদিকদের। সামনে যাওয়া নিষেধ, হেঁটে যান।

তার ‘বসের’ সঙ্গে কথা বলব বলে অটোরিকশাকে সামনে যেতে বললাম। খানিকটা এগোতেই দেখি লোকে লোকারণ্য। হাঁটার জায়গা নেই। বিভিন্ন মার্কার ব্যাজ ঝুলিয়ে সারিবদ্ধভাবে লোকজন দাঁড়িয়ে আছে ভোট কেন্দ্রের সামনে। ছেলে-বুড়ো একাকার। থেমে থেমে চলছিল স্লোগান।

ভিড় ঠেলে কেন্দ্রে ঢুকতেই আনসার সদস্যদের বাধা। পরিচয় পেয়ে মুচকি হেসে ভেতরে ঢোকার পথ করে দিলেন। ভেতরে ঢুকেই দেখি অলস সময় পার করছেন নির্বাচনী কর্মকর্তারা। তারা নিজেদের মধ্যে গল্প গুজব করে সময় পার করছিলেন। কেন্দ্রের বাইরে ভোটারের লাইন না থাকলেও লোকজনের কমতি ছিল না। পোলিং অফিসার ও বিভিন্ন প্রার্থীর এজেন্টরা তীর্থের কাকের মতো চেয়ে আছেন- কখন আসবে ভোটার। নিচতলায় ১নং কক্ষের পোলিং অফিসার চিত্তরঞ্জন বেপারি বললেন, তার বুথে ভোটার ৩৫৬ জন। দুপুর সাড়ে ১১টা পর্যন্ত ভোট পড়েছে ১৩টি। মাত্র ১৩টি! জিজ্ঞাসা করতেই মুচকি হেসে বললেন- ‘কি বলব ভাই?’

দিনভর ঘুরে এই চিত্র দেখা গেল ৭১নং ওয়ার্ডের হায়দার আলী হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে, ৬৩নং ওয়ার্ডে ডেমরা রোডের ক্যাপিটাল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ৩২নং মাতুয়াইল পশ্চিমপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মাতুয়াইল আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়, মাতুয়াইল ইউনিয়ন পরিষদ কেন্দ্র, ৬২নং ওয়ার্ডের মিশন স্কুল অ্যান্ড কলেজ ও এডু-এইড স্কুল কেন্দ্রসহ ঢাকার দক্ষিণের বর্ধিতাংশ ১৮টি ওয়ার্ডের অধিকাংশ ভোট কেন্দ্রে।

কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের জমিয়ে আড্ডা দিতে দেখা গেল। কিছু কেন্দ্রের বাইরেও পুলিশ ও আনসার সদস্য ছাড়া ছিল প্রায় জনমানবশূন্য। বেলা একটায় কথা হয় মাতুয়াইল আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের ৪নং বুথের পোলিং অফিসার কোহিনুর আক্তারের সঙ্গে।

তিনি যুগান্তরকে বলেন, তার বুথে ভোটার ৩৭৮ জন। ভোট পড়েছে ১৩৫টি। এত কম কেন? জানতে চাইলে বলেন, সকালে বৃষ্টির কারণে ভোটার কম এসেছে। বেলা বাড়ার সঙ্গে ভোটার বাড়বে। আশা করি সব ভোট কাস্ট হবে। এ কেন্দ্রের ৫নং বুথের পোলিং অফিসার মুরশেদা আক্তার জানান, তার বুথে ভোটার ৩৯৫ জন। ভোট দিয়েছে ১২৯ জন।

১নং বুথের পোলিং অফিসার সালাউদ্দিন জানান, তার বুথে ভোটার ৩৯৩ জন। বেলা ১টা ১০ মিনিট পর্যন্ত ভোট পড়েছে মাত্র ৮১টি। মাতুয়াইল ইউনিয়ন পরিষদ কেন্দ্রে একটি কক্ষে ৫টি বুধ। স্থান সংকুলান না হওয়ায় একই কক্ষে এতগুলো বুথ করা হয়েছে বলে জানালেন প্রিসাইডিং অফিসার মোস্তাফিজুর রহমান। তার কেন্দ্রে প্রায় আড়াই হাজার ভোটার থাকলেও বেলা দেড়টা পর্যন্ত ভোট পড়েছে ৩৬৮টি।

৬২নং ওয়ার্ডের মিশন স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার আইমান আহসান জানান, তার কেন্দ্রে ভোটার দুই হাজার ২৮৮টি। দুপুর দেড়টা পর্যন্ত ভোট পড়েছে ৮০০। এডু-এইড স্কুল কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার মনোজ কুমার সাহা জানান, তার কেন্দ্রের মোট ভোটার প্রায় আড়াই হাজার। দুপুরের মধ্যে ৫০ শতাংশ কাস্ট হয়েছে। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ৯০ শতাংশ ভোট কাস্ট হবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন এই ভোট কর্মকর্তা। মাতুয়াইল ইউনিয়ন পরিষদ কেন্দ্রের ভোটার মোখলেসুর রহমান যুগান্তরকে বলেন, ভেবেছিলাম ভোট জমজমাট হবে। তবে ভোট দিতে এসে দেখি ভোটার নেই। কেন্দ্রের বাইরে লোকজনের অভাব নেই। দিনভর বৃষ্টি থাকায় অনেক কেন্দ্রে প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের দলবেঁধে গরম খিচুড়ি খেতে দেখা যায়।

ঢাকা দক্ষিণের শ্যামপুর, দনিয়া, মাতুয়াইল, সারুলিয়া, ডেমরা, মাণ্ডা, দক্ষিণগাঁও ও নাসিরাবাদ ইউনিয়নকে ৫৮, ৫৯, ৬০, ৬১, ৬২, ৬৩, ৬৪, ৬৫, ৬৬, ৬৭, ৬৮, ৬৯, ৭০, ৭১, ৭২, ৭৩, ৭৪ ও ৭৫ নম্বর ওয়ার্ডে বিভক্ত করা হয়েছে। এসব ওয়ার্ডে সাধারণ ও সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর নির্বাচনে ভোট হয়েছে। নতুন এই ১৮টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ১২৫ জন প্রার্থী।

তাদের ৯৯ জনই ক্ষমতাসীন দল আ’লীগ ও তার সহযোগী সংগঠনের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। তবে দল থেকে তাদের কাউকে এককভাবে প্রার্থী করা হয়নি। নির্বাচনে বিএনপি অংশ না নেয়ায় দলের তৃণমূলের ৭-৮ জন নেতাকর্মী এ নির্বাচনে কাউন্সিলর প্রার্থী হয়েছেন। রাজনৈতিক দলের সঙ্গে জড়িত নন, এমন প্রার্থী (স্বতন্ত্র) আছেন ১৫ জন। সংরক্ষিত ছয়টি ওয়ার্ডে নারী কাউন্সিলর প্রার্থী ২৪ জন।

আর এ ১৮টি ওয়ার্ডে মোট ভোটার সংখ্যা ৪ লাখ ৯৬ হাজার ৭৩৫ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২ লাখ ৫৪ হাজার ৪৯৭ জন এবং নারী ভোটার ২ লাখ ৪২ হাজার ২৩৮ জন।

ঘটনাপ্রবাহ : ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×