গ্যাসের বাড়তি দাম মানবে না মানুষ: মির্জা ফখরুল

সরকারের অপছন্দের মানুষ গুম-খুন হচ্ছে * স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে র‌্যালিসহ ৭ দিনের কর্মসূচি

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৮ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

গ্যাসের বাড়তি দাম মানবে না মানুষ: মির্জা ফখরুল
বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ফাইল ছবি

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আমাদের অবস্থান স্পষ্ট, গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি আমরা কখনও মেনে নেব না, দেশের মানুষও মেনে নেবে না। গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি করা অযৌক্তিক। এর মাধ্যমে নিুবিত্ত ও মধ্যবিত্তদের নাভিশ্বাস উঠবে। গ্যাস ও বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির প্রস্তাবের প্রতিবাদ জানিয়েছে বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন। আবারও বলছি, এসব কিছু উপেক্ষা করে গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি করা হলে আমরা সাধ্যমতো প্রতিবাদ করব।

রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে রোববার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের যৌথসভা শেষে এই সংবাদ সম্মেলন হয়। যৌথসভায় মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে র‌্যালিসহ সাত দিনের কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত হয়।

বাংলাদেশ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্টের প্রকাশিত মানবাধিকার প্রতিবেদনের বিষয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, শুধু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিবেদন নয়, বিবিসি, আল জাজিরা, গার্ডিয়ান, নিউইয়র্ক টাইমসসহ বিশ্বের বড় পত্রিকাগুলো বলেছে যে বাংলাদেশে কোনো নির্বাচন হয়নি। ভারতের বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় বিষয়টি লেখা হয়েছে। বাংলাদেশে কোনো নির্বাচন হয়নি, এটা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। বাংলাদেশের গণমাধ্যমগুলোকে সরকার চরমভাবে নিয়ন্ত্রণ করছে বলে তারা অনেক কিছু প্রকাশ করতে পারছে না। এত প্রতিকূলতার পরও তারা অনেকেই অনেক কিছু প্রকাশ করছে। এ জন্য তাদের প্রতি আমাদের শ্রদ্ধা। মার্কিন মানবাধিকার বিভাগ যে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে তাতে সঠিক চিত্রটা বেরিয়ে এসেছে।

তিনি বলেন, দেশে একদলীয় শাসন ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠিত হয়ে গেছে। ১০-১২ বছর ধরে আমরা দেখছি, যারা সরকারের অপছন্দের মানুষ, তাদের গ্রেফতার ও হত্যা করা হচ্ছে। প্রয়োজনে তাদের গুম করা হচ্ছে। নিরপরাধ মানুষকে বন্দি করে রাখা হয়েছে। লক্ষাধিক গায়েবি মামলায় ২৬ লাখ মানুষকে আসামি করা হয়েছে।

এদিকে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে ঢাকাসহ সারা দেশে বর্ণাঢ্য স্বাধীনতা র‌্যালিসহ সপ্তাহব্যাপী কর্মসূচি পালন করবে বিএনপি। সংবাদ সম্মেলনে এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন বিএনপির মহাসচিব।

কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে- ২৫ মার্চ বিএনপির উদ্যোগে ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশন মিলনায়তনে অথবা মহানগর নাট্যমঞ্চে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, ২৬ মার্চ সকালে সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ, স্মৃতিসৌধ থেকে ফিরে রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা ও ওলামা দলের উদ্যোগে দোয়া ও ফাতেহা পাঠ, ২৭ মার্চ স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে রাজধানীতে বিএনপির উদ্যোগে র‌্যালি। এ ছাড়া ছাত্রদল, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, মহিলা দলসহ বিএনপির অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনগুলো এবং সারা দেশে বিএনপি তাদের সুবিধা অনুযায়ী কর্মসূচি গ্রহণ করবে।

মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা ২৭ মার্চ স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে ঢাকায় বর্ণাঢ্য র‌্যালি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলাপ করে আমরা র‌্যালিটি করতে চাই। সারা দেশে বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনগুলোর জেলা, উপজেলা, পৌর শাখা স্থানীয় সুবিধা অনুযায়ী শোভাযাত্রা করবে। এ ছাড়া বিএনপির পক্ষ থেকে দেশের বিভিন্ন জাতীয় পত্রিকায় ক্রোড়পত্র প্রকাশ এবং দলের পক্ষ থেকে পোস্টার ছাপানো হবে।

একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের চেতনা এবং বর্তমান সংকটময় পরিস্থিতি তুলে ধরে বিএনপির মহাসচিব বলেন, দিনটি আমরা বাংলাদেশের মানুষের যে আশা-আকাক্সক্ষা গণতন্ত্রকে পুনরুদ্ধার করার, বাংলাদেশের মানুষের আশা-আকাক্সক্ষা গণতন্ত্রের নেত্রী খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার, হাজার হাজার নিরাপরাধ মানুষকে মুক্ত করা এবং হাজার হাজার মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করার একটা সংগ্রামের অংশ হিসেবে উদ্যাপন করতে চাই।

তিনি বলেন, আমরা মানুষকে স্মরণ করিয়ে দিতে চাই- এ দিনটি ছিল উপনিবেশের হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য, হানাদার বাহিনীর হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য, গণতান্ত্রিক অধিকারকে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য। এ বিষয়গুলো আবার আমরা সামনে নিয়ে দিনটিকে পালন করতে চাই।

সংবাদ সম্মেলনে দলের ভাইস চেয়ার?ম্যান শামসুজ্জামান দুদু, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, কেন্দ্রীয় নেতা এবিএম মোশাররফ হোসেন, আবদুস সালাম আজাদ, মুনির হোসেনসহ অঙ্গসংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে দলের যুগ্ম সম্পাদক, সাংগঠনিক সম্পাদক এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের নিয়ে যৌথসভা করেন বিএনপির মহাসচিব।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×