বিভিন্ন দলের প্রতিক্রিয়া

আদালতের রায়কে আমরা সম্মান করি : এরশাদ

আদালতেও দণ্ডিত হলেন খালেদা জিয়া-তারেক রহমান : জাসদ * নির্বাচনী পরিস্থিতিকে প্রভাবিত করবে এ রায় : বাসদ * জাতীয় রাজনীতির জন্য অশনিসংকেত : জাতীয় পার্টি (জাফর)

  যুগান্তর রিপোর্ট ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পাঁচ বছর কারাদণ্ডের প্রতিক্রিয়ায় সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, রায়ে প্রতিক্রিয়া জানানোর কিছু নেই। রায়ে আমরা খুশি না অখুশি, এটা বড় বিষয় নয়। আদালত রায় দিয়েছেন, আমরা সেটাকে সম্মান করি।

হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের প্রেস অ্যান্ড পলিটিক্যাল সেক্রেটারি ও জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য সুনীল শুভ রায় এরশাদকে উদ্ধৃত করে বৃহস্পতিবার যুগান্তরকে বলেন, ‘স্যার (হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ) এর চেয়ে বেশি কিছু বলতে চান না। এর বেশি প্রতিক্রিয়া নেই।’ তিনি বলেন, একটি বিচারাধীন বিষয়ে আমাদের কিছু বলার নেই। জাতীয় পার্টি সব সময় আইনের শাসনের পক্ষে এবং আদালতের রায়ের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।

জাতীয় রাজনীতির জন্য অশনিসংকেত -জাতীয় পার্টি (জাফর) : খালেদা জিয়ার কারাদণ্ডাদেশ জাতীয় রাজনীতির জন্য চরম একটি অশনিসংকেত বলে দাবি করেছেন জাতীয় পার্টির (জাফর) ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ড. টিআইএম ফজলে রাব্বি চৌধুরী ও মহাসচিব মোস্তফা জামান হায়দার। বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে তারা বলেন, জাল কাগজপত্র ও ভুল তথ্যের ভিত্তিতে খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেয়ার মাধ্যমে সামগ্রিক রাজনৈতিক পরিস্থিতি জটিল থেকে আরও জটিলতর করে তোলা হয়েছে, যা আগামী দিনের জাতীয় রাজনীতির জন্য একটি অশনিসংকেত হিসেবে প্রতীয়মান হবে।

আদালতেও দণ্ডিত হলেন খালেদা জিয়া-তারেক রহমান -জাসদ : জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু এমপি এবং সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার এমপি এক বিবৃতিতে বলেছেন, এ রায়ে জনতার আদালতে বহু আগেই দুর্নীতিবাজ হিসেবে দণ্ডিত খালেদা জিয়া-তারেক রহমান এবার আইনের আদালতেও দুর্নীতিবাজ হিসেবে দণ্ডিত হলেন। বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে তারা বলেন, এটা কোনো বিশেষ ব্যক্তি বা রাজনৈতিক নেতার বিচার না। প্রমাণিত অপরাধের বিচার। রায় পছন্দ হলে আদালত ভালো, পছন্দ না হলে আদালত খারাপ- এ মানসিকতা সমগ্র আইন-আদালত-বিচার ব্যবস্থাকে অস্বীকার করার নামান্তর।

জাসদ নেতারা বলেন, প্রায় ১০ বছর আগে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে দায়ের করা মামলা, তদন্ত করেছে দুদক, বিচার করেছেন আদালত। এখানে সরকারের কিছু করারও ছিল না, বলারও ছিল না। তারা বলেন, এটা রাজনৈতিক মামলা না, রাজনৈতিক বিচারও না। রায়ের সঙ্গে বিএনপির নির্বাচনে অংশগ্রহণ বা বর্জনের কিছু নেই মন্তব্য করে জাসদ নেতারা বলেন, আদালতের রায় আর নির্বাচনকে শর্ত যুক্ত করা, রায় আর নির্বাচনকে দরকষাকষির বিষয়ে পরিণত করা দুঃখজনক। আমরা আশা করি, নিু আদালতের রায় পছন্দ না হলে বিএনপি উচ্চ আদালতে যাবে। কিন্তু সন্ত্রাস-সহিংসতা-নাশকতা-আগুনযুদ্ধ চালিয়ে অশান্তি ও অস্বাভাবিক পরিস্থিতি সৃষ্টির পথে বিএনপি পা বাড়াবে না।

নির্বাচনী পরিস্থিতিকে প্রভাবিত করবে এ রায় -বাসদ : জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার রায়ের পর ক্ষমতাসীন ও ক্ষমতাপ্রত্যাশীদের মুখোমুখি সাংঘর্ষিক অবস্থান আরও বেড়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা ব্যক্ত করেন বাসদ সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান। তিনি বলেন, এ রায় আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনী প্রক্রিয়া, পরিস্থিতি ও পরিবেশকে প্রভাবিত করার আশঙ্কা রয়েছে। খালেকুজ্জামান বলেন, রায় ঘোষণাকে কেন্দ্র করে বাদানুবাদ, শাসক দল সংশ্লিষ্টদের দায়িত্বহীন কথাবার্তা ও মহড়া, সারা দেশে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর গণগ্রেফতার-টহল জনমনে ভীতিকর পরিবেশ সৃষ্টি করেছে।

সরকারের রাজনৈতিক ইচ্ছাই প্রতিফলিত হয়েছে -বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি : বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক বলেছেন, মামলার রায়ের মধ্য দিয়ে সরকারের রাজনৈতিক ইচ্ছারই প্রতিফলন ঘটেছে। তিনি বলেন, দেশের মানুষ সব দুর্নীতির সুষ্ঠু তদন্ত ও দুর্নীতিবাজদের শাস্তি দাবি করলেও এ মামলাকে কেন্দ্র করে সরকারের অতি আগ্রহের কারণেই জনগণের মধ্যে এ ধারণা বদ্ধমূল হয়েছে।

ঘটনাপ্রবাহ : জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.