বাঘাইছড়িতে ব্রাশফায়ারে নিহত ৭

৪ আনসার সদস্যের পরিবারকে ৫ লাখ টাকা করে সহায়তা

  রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি ২৩ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

৪ আনসার সদস্যের পরিবারকে ৫ লাখ টাকা করে সহায়তা
৪ আনসার সদস্যের পরিবারকে ৫ লাখ টাকা করে সহায়তা। ছবি: যুগান্তর

রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়িতে সন্ত্রাসীদের ব্রাশফায়ারে নিহত ৭ জনের মধ্যে আনসার-ভিডিপির ৪ সদস্যের পরিবারকে শুক্রবার নগদ এক লাখ টাকা করে নগদ সহায়তা দেয়া হয়েছে। আরও ৪ লাখ টাকা করে দেয়া হবে শিগগির। এছাড়া বৃহস্পতিবার ঢাকায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার নিহত ৭ জনের পরিবারকে ৫ লাখ টাকা করে দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

শুক্রবার দুপুরে আনসার-ভিডিপির জেলা সদর দফতরে ৪ পরিবারের হাতে নগদ এ সহায়তা তুলে দেন বাহিনীর চট্টগ্রাম ও পার্বত্য রেঞ্জের উপ-মহাপরিচালক সামছুল আলম। কাগজপত্র গুছিয়ে কয়েক দিনের মধ্যেই বাকি ৪ লাখ টাকা করে দেয়া হবে বলে জানান তিনি। বলেন, নিহতদের পরিবারে যোগ্য কেউ থাকলে তাদের চাকরির ব্যবস্থাও করা হবে। নিহতরা হলেন, উপজেলা সদরের করেঙ্গাতলীর মৃত মানিক দত্তের ছেলে মিহির কান্তি দত্ত, পশ্চিম লাইল্যাঘোনার মৃত নুর আলীর মেয়ে ও রহমত উল্যার স্ত্রী বিলকিস আক্তার, কাচালং বাজারের সেলিমের ছেলে আল-আমিন এবং একই এলাকার বাসিন্দা তসলীম আহম্মদের স্ত্রী জাহানারা বেগম।

এ সময় আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর রাঙ্গামাটি জেলা কমান্ডার আবদুল আউয়াল উপস্থিত ছিলেন। উপ-মহাপরিচালক সামছুল আলম বলেন, মহাপরিচালকের নির্দেশে আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। ওই ঘটনায় নিহত ৭ জনের মধ্যে আমাদের বাহিনীর ৪ সদস্য রয়েছে। এছাড়া আমাদের আরও ১১ সদস্য গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত। যারা প্রাণ দিয়েছেন, তাদের আর কখনও ফিরে পাব না। তবে নিহতদের পরিবারের সুরক্ষায় যা যা করা দরকার, তা করার নির্দেশ দিয়েছেন মহাপরিচালক। তাৎক্ষণিক সহায়তা হিসেবে চার পরিবারকে ৫ লাখ টাকা করে দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। ৭ জনের মধ্যে বাকি তিনজন হলেন- নিউ লাইল্যাঘোনা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আবু তৈয়ব, কিশলয় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক আমির হোসেন এবং খাগড়াছড়ির দীঘিনালার মেরুন এলাকার বাসিন্দা তপতি চাকমার ছেলে মন্টু চাকমা

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার জিডি : বাঘাইছড়ি উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা চৈতালি চাকমাকে মোবাইল ফোনে জরুরিভিত্তিতে ৬ লাখ টাকা পাঠানোর হুমকি দিয়েছে। না পাঠালে পেট্রল ঢেলে জ্বালিয়ে দেয়ার হুমকি দিয়েছে অজ্ঞাত সন্ত্রাসীরা। তিনি জানান, বৃহস্পতিবার অপরিচিত একটি নম্বর থেকে আমাকে এ হুমকি দেয়। পরে নিরাপত্তা চেয়ে রাতেই বাঘাইছড়ি থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছি। চৈতালি দ্বিতীয় ধাপে ১৮ মার্চ অনুষ্ঠিত বাঘাইছড়ি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে সহকারী রিটার্নিং অফিসারের দায়িত্ব পালন করেছেন। বাঘাইছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এমএ মঞ্জুর বলেন, এমন অভিযোগে বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে থানায় জিডি করেছেন চৈতালি চাকমা। আমরা তদন্ত করে দেখছি। তার নিরাপত্তার বিষয়টি নজরে রাখা হয়েছে।

হারিয়ে যাওয়া অস্ত্র উদ্ধার : বাঘাইছড়িতে ব্রাশফায়ারে নির্বাচনের সঙ্গে জড়িত ৭ ব্যক্তিকে হত্যার সময় নিহত আনসার প্লাটুন কমান্ডার মিহির কান্তি দত্তর হারানো রাইফেলটি উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার সকালে বাঘাইছড়ির মারিশ্যা-দীঘিনালা সড়কের ১০ কিলোমিটার নামক স্থান থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় অস্ত্রটি উদ্ধার করে বাঘাইহাট জোনের সেনা সদস্যরা। আনসার-ভিডিপি রাঙ্গামাটি সদর দফতর ও সংশ্লিষ্ট সেনাসূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করে। এদিকে বাঘাইছড়ি ঘটনায় গুলিবিদ্ধ আরও দু’জনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য খাগড়াছড়ি জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এরা হলেন- রওশন আরা বেগম ও জ্যোস্না চাকমা। এদিকে শুক্রবার দুপুরে বাঘাইছড়ি হত্যাকাণ্ডের ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের পরিবচালক আল মাহামুদ ফাইজুল কবির ও সহকারী পরিচালক (আইন) মো. শাহ পরান। তারা এ সময় প্রত্যক্ষদর্শী ও বাঘাইছড়ি থানা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসাধীন আহতদের সঙ্গে কথা বলেন।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×