স্বাধীনতা দিবস অনুষ্ঠানে বাধার মুখে বিএনপি

ফরিদপুরে হামলায় সাত নেতাকর্মী আহত, কুষ্টিয়ায় আটক ১২

  যুগান্তর ডেস্ক ২৭ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

স্বাধীনতা দিবস অনুষ্ঠানে বাধার মুখে বিএনপি

ফরিদপুর ও কুষ্টিয়াসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে অংশ নিতে গিয়ে বিএনপি ও এর অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা বাধার সম্মুখীন হয়েছেন। ফরিদপুরে স্বাধীনতাস্তম্ভে ফুল দিয়ে ফেরার পথে বিএনপি নেতাকর্মীরা হামলার শিকার হন।

এতে বিএনপি ও এর অঙ্গসংগঠনের সাত নেতাকর্মী আহত হন। কুষ্টিয়ায় শহীদ স্মৃতিস্তম্ভে ফুল দিতে গিয়ে বিএনপির নেতাকর্মীরা বাধার মুখে পড়েন। এ সময় সেখান থেকে বিএনপি ও এর অঙ্গসংগঠনের ১২ নেতাকর্মীকে আটক করা হয়। এ সম্পর্কে ব্যুরো ও প্রতিনিধির পাঠানো খবর :

ফরিদপুর : শহরের গোয়ালচামট এলাকায় স্বাধীনতাস্তম্ভে ফুল দিয়ে ফেরার পথে হামলার শিকার হয়েছেন বিএনপি, স্বেচ্ছাসেবক দল, যুবদল ও ছাত্রদলের সাতজন নেতাকর্মী। আহতদের মধ্যে জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক ও জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক সৈয়দ জুলফিকার হোসেন জুয়েলকে প্রথমে ফরিদপুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেয়া হয়েছে।

এতে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মোদাররেস আলী ইছা ও জেলা যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক একেএম কিবরিয়া স্বপন গুরুতর আহত হয়েছেন। এ ছাড়া জেলা বিএনপির সহ-প্রচার সম্পাদক দিলদার হোসেন, পৌর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি লিটন বিশ্বাস, ছাত্রদলের আল আমীন তুষার, শ্রমিক দলের বিল্লাল তালুকদার আহত হয়েছেন। মঙ্গলবার সকালে এ ঘটনাটি ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিএনপি ও স্বেচ্ছাসেবক দল পৃথকভাবে স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পমাল্য অর্পণ শেষে ফেরার সময় হামলার শিকার হয়। লাঠিসোটা দিয়ে পিটিয়ে তাদের আহত করা হয়। এ সময় পুরো এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পুলিশ পৌঁছার আগেই হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। এ হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক মন্ত্রী চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও জেলা বিএনপির সভাপতি জহিরুল হক শাহজাদা মিয়া ও বিএনপির বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদ রিংকু । হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার করার দাবি জানান তারা।

কুষ্টিয়া : কালেক্টরেট চত্বরের শহীদ স্মৃতিস্তম্ভ থেকে জেলা বিএনপি সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ১২ নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। বেলা ১১টার দিকে শহীদ স্মৃতিস্তম্ভে শ্রদ্ধা নিবেদন করে নামার সময় তাদের আটক করা হয়। তাদের মধ্যে রয়েছেন- জেলা বিএনপির সভাপতি ও চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা সৈয়দ মেহেদী আহমেদ রুমী, সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ সোহরাব উদ্দিন, জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক এমএ শামীম আরজু, শহর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক একে বিশ্বাস বাবু ও জেলা যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি মেজবাউর রহমান পিন্টুসহ ১২ জন।

বিএনপি নেতাদের অভিযোগ, কালেক্টরেট চত্বরে শহীদ স্মৃতিস্তম্ভে ফুল দেয়ার সময় পুলিশ তাদের আটক করে। তবে পুলিশের দাবি যানবহন ভাংচুর ও পুলিশের ওপর হামলার সময় তাদের আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় কুষ্টিয়া মডেল থানার এসআই মেহেদী হাসান বাদী হয়ে ১২ জনসহ অজ্ঞাত আরও ৫০-৬০ জনকে আসামি করে মামলা করেছেন। বিকালে আসামিদের আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো।

বিএনপি নেতারা জানান, বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা বেলা ১১টার দিকে জেলা বিএনপির কার্যালয় থেকে মিছিল নিয়ে শহীদ স্মৃতিস্তম্ভে শ্রদ্ধা জানাতে যান। শ্রদ্ধা জানানো শেষে জেলা বিএনপি সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ সোহরাব উদ্দিন বক্তব্য দেয়ার সময় পুলিশের একটি দল জেলা বিএনপি সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ১২ জনকে আটক করে কুষ্টিয়া মডেল থানায় নিয়ে যায়।

জেলা বিএনপির দফতর সম্পাদক আবদুর রাজ্জাক বাচ্চু জানান, শহীদ স্মৃতিস্তম্ভে শ্রদ্ধা নিবেদন করে নামার সময় বিএনপির ১২ জন নেতাকর্মীকে পুলিশ আটক করেছে। পুলিশের এ ধরনের আচরণ নজিরবিহীন। এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে জাতীয় পার্টি (জাফর) কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য সাবেক সংসদ সদস্য আহসান হাবিব লিংকন বলেন, মেহেদী আহমেদ রুমী ও সোহরাব উদ্দিন উভয়ই মুক্তিযোদ্ধা। স্বাধীনতা দিবসে বিনা কারণে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে।

এর মাধ্যমে বর্তমান সরকারের ভাবমূর্তি চরমভাবে ক্ষুণ্ণ হয়েছে। কুষ্টিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ নাসির উদ্দিন বলেন, বিএনপি নেতাকর্মীরা স্মৃতিস্তম্ভে শ্রদ্ধা নিবেদন করে ফেরার সময় প্রধান সড়কে যানবাহন ভাংচুর করে। পুলিশ বাধা দিতে গেলে তারা পুলিশের ওপরও হামলা চালায়। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে বেশ কয়েকজন নেতাকর্মীকে আটক করা হয়।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×