বাসচাপায় আবরারের মৃত্যু

সুপ্রভাতের চালক সিরাজুলের জবানবন্দি

দুর্ঘটনার সময় বাস চালাচ্ছিল কন্ডাকটর

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৯ মার্চ ২০১৯, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বাসচাপায় বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) শিক্ষার্থী আবরার আহমেদ চৌধুরীর নিহত হওয়ার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় ঘাতক সুপ্রভাত বাসের চালক সিরাজুল ইসলাম আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

দুর্ঘটনার সময় বাসটি বাসের কন্ডাকটর ইয়াসিন আরাফাত চালাচ্ছিল বলে সে স্বীকার করেছে। সাত দিনের রিমান্ড শেষে বৃহস্পতিবার আদালতে তাকে হাজির করা হয়।

আদালতের সংশ্লিষ্ট থানার সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা শেখ রকিবুর রহমান যুগান্তরকে জানান, মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা মহানগর হাকিম সাদবীর ইয়াসির আহসান চৌধুরী আসামির স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড করেন। জবানবন্দি রেকর্ড শেষে আসামি সিরাজুলকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত।

আদালত সূত্র জানায়, সিরাজুল ১৯ মার্চ সকাল ৭টা ২০ মিনিটের দিকে প্রগতি সরণির বাড্ডার দিক থেকে বেপরোয়া ও দ্রুতগতিতে বাস চালিয়ে বাঁশতলা এলাকায় মিরপুর গার্লস ল্যাবরেটরি কলেজের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী সিনথিয়া সুলতানা মুক্তাকে চাপা দেয়। এতে মুক্তা গুরুতর জখম হন। এ ঘটনায় সুপ্রভাতের যাত্রীরা চালক সিরাজুলকে ধরে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেন। জনতা বাসের ক্ষতি করতে পারে আশঙ্কায় বাস কন্ডাকটর ইয়াসিন আরাফাত বাসটির মালিক ননী গোপাল সরকারের নির্দেশে দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে বাস নিয়ে সরে পড়ে। বাসটি নিয়ে দ্রুত চালিয়ে যাওয়ার সময় বাস কন্ডাকটর আরাফাত নর্দ্দার জেব্রা ক্রসিংয়ে বিইউপি ছাত্র আবরারকে চাপা দিয়ে হত্যা করে।

এর আগে ২০ মার্চ সিরাজুলকে আদালতে হাজির করে রিমান্ড আবেদন করলে আদালত সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। বুধবার বাস কন্ডাকটর আরাফাত ও হেলপার মো. ইব্রাহীমের সাত দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। বর্তমানে তারা রিমান্ডে আছে।

১৯ মার্চ সকালে আবরার শাহজাহানপুরের বাসা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে যাওয়ার উদ্দেশে ব্যক্তিগত গাড়ি নিয়ে চালকসহ বের হন। বসুন্ধরা গেটে আবরারকে নামিয়ে দিয়ে চালক গাড়ি নিয়ে বাসার উদ্দেশে রওনা হন। আবরার বিশ্ববিদ্যালয়ের গাড়িতে উঠার জন্য বসুন্ধরা সিটি গেটের সামনে প্রগতি সরণির জেব্রা ক্রসিং দিয়ে রাস্তার পূর্ব দিকে থেকে পশ্চিম দিকে পার হতে যান। এ সময় বাসটি তাকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় ওই রাতেই রাজধানীর গুলশান থানায় আবরারের বাবা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) আরিফ আহমেদ চৌধুরী মামলা করেন।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত