উন্নয়ন-প্রচারণায় এগিয়ে আ’লীগ প্রার্থী টানাপোড়েনে বিএনপি

  আবুল খায়ের, কুমিল্লা ব্যুরো ও মো. সুমন সরকার, মুরাদনগর ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মুরাদনগর উপজেলা নিয়ে গঠিত কুমিল্লা-৩ সংসদীয় আসন। একাদশ সংসদ নির্বাচনের এখনও প্রায় এক বছর বাকি থাকলেও সম্ভাব্য প্রার্থীরা প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। বিশেষত ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য প্রার্থীদের পোস্টার-ফেস্টুন ব্যানার দেখে মনে হচ্ছে নির্বাচনী প্রচারণা বেশ জোরেশোরেই চলছে। এ আসনে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড ও প্রচার-প্রচারণা-গণসংযোগে এগিয়ে রয়েছে আওয়ামী লীগ। তবে প্রার্থী নিয়ে বেশ টানাপোড়েনে রয়েছে বিএনপি। এ আসনটি একসময় বিএনপির দুর্গ ছিল। কিন্তু দলের সাবেক সংসদ সদস্য কাজী শাহ মোফাজ্জাল হোসাইন কায়কোবাদ দীর্ঘদিন এলাকায় অনুপস্থিত থাকায় সাংগঠনিক কার্যক্রমে স্থবিরতা দেখা দিয়েছে।

জানা গেছে, ১৯৯১ সালে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া এ আসন থেকে এমপি নির্বাচিত হন। ১৯৯৬ সালে জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে কাজী শাহ মোফাজ্জল হোসাইন কায়কোবাদ নির্বাচিত হন। ২০০১ সালে কায়কোবাদ বিএনপিতে

যোগদান করে পুনরায় নির্বাচিত হন এবং ২০০৮ সালেও জয়ের ধারা অব্যাহত রাখেন। কিন্তু ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় অভিযুক্ত হয়ে প্রায় ৭ বছরেরও বেশি সময় ধরে শাহ মোফাজ্জল হোসাইন কায়কোবাদ বিদেশে অবস্থান করছেন। তার নিকটজনরা জানান, তিনি দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ, বিদেশে চিকিৎসাধীন।

এদিকে ২০১৪ সালের নির্বাচনে এ আসনে আওয়ামী লীগের সাবেক অর্থ ও পরিকল্পনাবিষয়ক সম্পাদক এবং এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি ইউসুফ আবদুল্লাহ হারুন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে এমপি নির্বাচিত হয়ে দলে ফেরেন। ৪ বছর ধরে তিনি উন্নয়ন কর্মকাণ্ড চালিয়েছেন অনেকটা স্বাচ্ছন্দ্যেই। নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে এলাকায় বিভিন্ন সভা-সমাবেশে এ উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরছেন। আগামী নির্বাচনেও জয়ের ধারা অব্যাহত রাখতে চান তিনি।

আগামী নির্বাচনে এ আসনে কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম সরকারও দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার ব্যাপারে আশাবাদী। অন্যদিকে বিএনপির শাহ মোফাজ্জল হোসাইন কায়কোবাদ বিদেশে অবস্থান করছেন। তিনি সেখান থেকেই মুরাদনগরে নেতাকর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন। তবে তিনি আদৌ দেশে ফিরবেন কিনা কিংবা সুস্থ থেকে নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন কিনা তা নিয়ে নেতাকর্মীদের মধ্যে দ্বিধাদ্বন্দ্ব রয়েছে। তার অবর্তমানে বিএনপির অপর মনোনয়ন প্রত্যাশী ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শ্রমিক দলের সভাপতি কাজী আমীর খসরু এলাকায় গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন।

আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা জানান, ইউসুফ আবদুল্লাহ হারুন নির্বাচিত হওয়ার পর এ এলাকায় বিদ্যুৎ, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, যোগাযোগসহ সব ক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন ও আমূল পরিবর্তন এসেছে। আগামী নির্বাচনে তিনি মনোনয়ন পেলে আসনটিতে আওয়ামী লীগের বিজয় সুনিশ্চিত হবে বলে জানিয়েছেন তৃণমূলের নেতাকর্মীরা। মনোনয়ন দৌড়ে তিনিই এগিয়ে রয়েছেন। এমপি ইউসুফ আবদুল্লাহ হারুন যুগান্তরকে বলেন, দীর্ঘদিন ধরে ক্ষমতায় থেকে একটি অপশক্তি মুরাদনগরের মানুষের রক্ত চুষে খেয়েছে। আমি নির্বাচিত হয়ে সরকারের সহযোগিতায় ৭শ’ কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ করেছি। সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজমুক্ত মুরাদনগর গড়তে সক্ষম হয়েছি। স্বাধীনতার পরে মাত্র ৮ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ দিয়ে ৪০ বছর ধরে চলছিল এ উপজেলা। বিদ্যুৎ ছিল মানুষের কাছে সোনার হরিণ। আমি নির্বাচিত হওয়ার পর জননেত্রী শেখ হাসিনার সহযোগিতায় এ উপজেলায় ৩২ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আনতে সক্ষম হয়েছি, আরও ২০ মেগাওয়াট প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। সহসাই এ এলাকা শতভাগ বিদ্যুতায়নের আওতায় আনা হবে। উপজেলার প্রাচীনতম শ্রীকাইল কলেজ সরকারিকরণ করেছি। উপজেলা সদরের প্রাণকেন্দ্রে মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিসৌধ ও দোয়েল চত্বর নির্মাণ করেছি। ৫০ কোটি টাকা ব্যয়ে ১২৪টি প্রাইমারি স্কুলের ভবন ও ২১ কোটি টাকা ব্যয়ে অবকাঠামোগতসহ নানা সংস্কার কাজ সম্পন্ন করেছি। ২৪ কোটি টাকা ব্যয়ে উপজেলার মাধ্যমিক স্কুল ও কলেজের জন্য ৩৪টি ভবন নির্মাণ করেছি। বিভিন্ন হাট-বাজারে ৩ হাজার ১০০টি সৌর বিদ্যুৎ স্থাপন করেছি। গত ইউপি নির্বাচনে দলীয় সব প্রার্থীকে বিজয়ী করতে সক্ষম হয়েছি। তিনি বলেন, আমার ব্যক্তিগত কোনো চাহিদা নেই, এলাকার সামগ্রিক উন্নয়ন ও সমৃদ্ধ মুরাদনগর গড়াই আমার স্বপ্ন। দল ও দলের অংগসংগঠনের নেতাকর্মীরা আমার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ রয়েছে।

অপরদিকে এ আসন থেকে কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ জাহাঙ্গীর আলম সরকারও মনোনয়ন পেতে জোর লবিং চালিয়ে যাচ্ছেন। দলীয় নেতাকর্মীদেরকে নিয়ে তিনি এলাকায় নানা কর্মসূচি পালনসহ গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন। গত সংসদ নির্বাচনে তিনি প্রথমে দলের মনোনয়ন পেলেও পরে কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তে তাকে মহাজোটের শরিক জাতীয় পার্টিকে এ আসন ছেড়ে দিতে হয়েছে।

জাহাঙ্গীর আলম সরকার যুগান্তরকে বলেন, আমার জীবনের সব কিছু বিসর্জন দিয়ে আমি কুমিল্লা উত্তর জেলা তথা মুরাদনগর উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অংগসংগঠনকে সংগঠিত ও শক্তিশালী করেছি। দুঃসময়ে দলের হাল ধরে রেখেছি, সুখে দুঃখে নেতাকর্মীদের পাশে দাঁড়িয়েছি। আমার ত্যাগ সম্পর্কে জননেত্রী শেখ হাসিনা ভালোভাবেই অবগত আছেন। দল আমার এ ত্যাগ ও শ্রমের মূল্যায়ন অবশ্যই করবে। তাই আগামী নির্বাচনী দলের মনোনয়নের ব্যাপারে আমি শতভাগ আশাবাদী।

এদিকে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী দলের ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক এমপি কাজী শাহ মোফাজ্জল হোসাইন কায়কোবাদ। তিনি অসুস্থতা ও মামলা জটিলতায় দেশের বাইরে অবস্থান করছেন। দলীয় নেতাকর্মীরা জানান, বিদেশ থেকে তিনি মুরাদনগরের রাজনৈতিক কার্যক্রম মনিটরিংসহ দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন। তবে কায়কোবাদের অনুপস্থিতিতে টানাপোড়েন রয়েছে দলটিতে এবং এখানে বিএনপির প্রার্থী কে হবেন তা নিয়ে নেতাকর্মীরা দ্বিধাদ্বন্দ্বে আছেন। এ আসনে বিএনপির অপর মনোনয়ন প্রত্যাশী ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শ্রমিক দলের সভাপতি কাজী আমীর খসরু এলাকায় ব্যাপক গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন। আমীর খসরু যুগান্তরকে বলেন, মামলাসংক্রান্ত জটিলতায় কায়কোবাদ নির্বাচনে অংশ নিতে না পারলে আমিই দলীয় প্রার্থীদের মাঝে এগিয়ে আছি। আমি বিএনপি নেতাকর্মীদেরকে নিয়ে এলাকায় দলীয় কর্মসূচি পালনসহ গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছি। দলের হাইকমান্ডের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি। আশা করি দল আমাকে মূল্যায়ন করবে। এছাড়া জামায়াত নেতা সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ইউসুফ হাকিম সোহেলেরও এলাকায় রয়েছে ভালো অবস্থান। আগামীতে তিনি এমপি নির্বাচনে অংশ নিতে পারেন এমন গুঞ্জন রয়েছে। এ ছাড়া গত নির্বাচনে মহাজোটের প্রার্থী জাতীয় পার্টির আক্তার হোসেন এবারও মনোনয়ন চাইবেন বলে জানিয়েছেন। তিনি নিয়মিত এলাকায় এসে দলীয় নানা কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করছেন। আক্তার হোসেন বলেন, আগামী নির্বাচনে মহাজোট থেকে আমি মনোনয়ন পেতে সব চেষ্টা অব্যাহত রেখেছি। আশা করি গত নির্বাচনের মতো এবারও দল ও জোট আমাকে মূল্যায়ন করবে।

 
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

E-mail: [email protected], [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter