প্রধানমন্ত্রীর ব্রুনাই সফরে ৬টি সমঝোতা স্মারক সই হবে

খালেদা জিয়ার লন্ডনে যাওয়ার বিষয়ে তথ্য নেই-পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৯ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

প্রধানমন্ত্রীর ব্রুনাই সফরে ৬টি সমঝোতা স্মারক সই হবে

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রোববার তিন দিনের সফরে ব্রুনাই যাচ্ছেন। তার এ সফরে দেশটির সঙ্গে ছয়টি সমঝোতা স্মারক সই হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

পাশাপাশি দুই দেশের কূটনীতিক ও সরকারি কর্মকর্তাদের ভিসা ছাড়াই ভ্রমণের সুযোগ দিতে কূটনৈতিক নোট বিনিময় হতে পারে।

ব্রুনাইয়ের সুলতান হাজী হাসানাল বল্কিয়ার আমন্ত্রণে তিনি এ সফরে যাচ্ছেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীর এই সফরের বিস্তারিত তুলে ধরেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন।

এক প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বিএনপির কারাবন্দি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার লন্ডনে যাওয়া সংক্রান্ত কোনো তথ্য পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে নেই। এ বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কিছু জানে না। অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, চলচ্চিত্র নায়ক ফেরেদৌস আহমেদের ভারতের নির্বাচনে প্রচারে যাওয়া উচিত হয়নি। এটা দুঃখজনক।

রোহিঙ্গা সংক্রান্ত এক প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেয়ার ক্ষেত্রে অগ্রগতি হয়নি। আগামী মাসে মিয়ানমারের প্রশাসনিক রাজধানী নেপিদোতে জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপের বৈঠক হবে। বৈঠকে রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেয়ার বিষয়ে আলোচনা হবে।

তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক মহলে যেখানে যাচ্ছি, সেখানেই এ বিষয়টি আলোচনা হচ্ছে। তবে খুব অগ্রগতি হয়নি। সমস্যা মিয়ানমারই তৈরি করছে। মন্ত্রী জানান, মিয়ানমারের ওপর প্রভাব বিস্তারের ক্ষমতাসম্পন্ন আশিয়ানের সদস্য হওয়ায় ব্রুনাইয়ের সঙ্গে রোহিঙ্গা সংকট নিয়েও আলোচনা করবেন তারা।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সফরে উভয়পক্ষের সম্মতিতে ৬টি সমঝোতা স্মারক এরই মধ্যে চূড়ান্ত হয়েছে। আরও একটি বিবেচনায় রয়েছে। ব্রুনাইয়ের বিনিয়োগের প্রতিশ্রুতি পাওয়ার বিষয়েও আশাবাদী আমরা। যেসব সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হওয়ার কথা রয়েছে সেগুলো হচ্ছে- কৃষি খাতে বৈজ্ঞানিক এবং প্রযুক্তিগত সহযোগিতা, সংস্কৃতি ও শিল্প সহযোগি, যুব ও ক্রীড়া সহযোগিতা, মৎস্য খাতে সহযোগিতা, পশুসম্পদ খাতে সহযোগিতা এবং জ্বালানি ক্ষেত্রে সহযোগিতাবিষয়ক।

স্থানীয় সময় রোববার বিকাল পৌনে ৩টায় প্রধানমন্ত্রী ব্রুনাইয়ের রাজধানী বন্দর সেরি বেগওয়ানের ব্রুনাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছার কথা রয়েছে। যুবরাজ হাজী আল মুহতাদি বিল্লাহ বিমানবন্দরে তাকে স্বাগত জানাবেন। সেখান থেকে মোটর শোভাযাত্রা সহকারে প্রধানমন্ত্রীকে নেয়া হবে এম্বায়ার হোটেল অ্যান্ড কান্ট্রি ক্লাবে। সফরে এই হোটেলেই অবস্থান করবেন প্রধানমন্ত্রী। সফরের প্রথম দিন ওই হোটেলের বলরুমে প্রবাসী বাংলাদেশিদের দেয়া সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন শেখ হাসিনা। পরে বাংলাদেশ হাইকমিশনারের দেয়া নৈশভোজে যোগ দেবেন তিনি।

পরদিন সোমবার প্রধানমন্ত্রী ব্রুনাইয়ের সুলতান বলকিয়ার সরকারি বাসভবনে সুলতান ও রাজ পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে মিলিত হবেন। এরপর সুলতানের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক শেষে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হবে। বিকালে দুই দেশের ব্যবসায়ীদের মধ্যে অনুষ্ঠেয় বৈঠকে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী। পরে জামে আসর মসজিদ পরিদর্শন এবং সেখানে নামাজ আদায় করবেন তিনি। এরপর সুলতানের সরকারি বাসভবনে তার দেয়া ভোজসভায় যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী। মঙ্গলবার সকালে ব্রুনাইয়ের বাংলাদেশ হাইকমিশনের নতুন চ্যান্সেরি ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন শেখ হাসিনা। পরে তিনি রয়েল রেজালিয়া জাদুঘর পরিদর্শন করবেন। শেখ হাসিনা স্থানীয় সময় বিকাল ৫টায় ঢাকার উদ্দেশে ব্রুনাই ছাড়বেন। সন্ধ্যায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছবেন তিনি।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×