মিয়ানমারে রয়টার্সের সেই দুই সাংবাদিক কারামুক্ত

প্রকাশ : ০৮ মে ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  যুগান্তর ডেস্ক

মুক্তি পেলেন রয়টার্সের দুই সাংবাদিক

অবশেষে ৫০০ দিনেরও বেশি জেল খাটার পর মুক্তি পেলেন রয়টার্সের দুই সাংবাদিক। মিয়ানমারের প্রেসিডেন্টের করা সাধারণ ক্ষমার আওতায় মঙ্গলবার মুক্তি দেয়া হয় সাত বছর করে কারাদণ্ড পাওয়া ওয়া লোন (৩৩) ও কিউ সোয়েকে (২৯)। রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতনের ঘটনা নিয়ে প্রতিবেদন করায় রাষ্ট্রীয় গোপনীয়তা ভঙ্গের দায়ে তাদের ওই সাজা দিয়েছিলেন মিয়ানমারের আদালত।

আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০১৭ সালের আগস্টে রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের ওপর শুরু করা সামরিক বাহিনীর নতুন অভিযানের পরপরই এ নিয়ে অনুসন্ধানে নামেন ওই দুই সাংবাদিক।

নিরীহ ১০ রোহিঙ্গাকে হত্যার ঘটনা অনুসন্ধান করার সময় দেশটির নিরাপত্তা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের হাতে তারা আটক হন। এর পরই তাদের মুক্তি দাবিতে বিভিন্ন ধরনের তৎপরতার পাশাপাশি আইনি লড়াই অব্যাহত রাখে রয়টার্স।

এ ঘটনায় গণমাধ্যমের স্বাধীনতা লঙ্ঘনের অভিযোগে জাতিসংঘ, যুক্তরাষ্ট্র থেকে শুরু করে বিভিন্ন সংস্থা ও রাষ্ট্র মিয়ানমার সরকারের সমালোচনা করে এবং সাংবাদিকদের মুক্তি দেয়ার আহ্বান জানায়। কিন্তু মিয়ানমার সরকার এতে সাড়া দেয়নি। দেশটির উচ্চ আদালতে দেয়া দু’জনকে সাত বছর করে কারাদণ্ডের রায়ের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ আদালতেও যায় রয়টার্স। আপিলেও সাজার রায় বহাল রাখেন সর্বোচ্চ আদালত।

দেশটিতে নিজস্ব নববর্ষ উপলক্ষে প্রেসিডেন্টের সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা দেয়ার রীতি রয়েছে। সেই রীতি মেনে এবার নববর্ষ উপলক্ষে ৬ হাজার ২৫০ কারাবন্দিকে মুক্তির ঘোষণা দেন প্রেসিডেন্ট উইন মিন্ত। গত ১৭ এপ্র্রিল থেকে পর্যায়ক্রমে এই বন্দিদের ছাড়া হচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার ছাড়া পান ওই দুই সাংবাদিক।

মিয়ানমার সরকারের মুখপাত্র জ তাই বলেন, কারাবন্দি দুই সাংবাদিকের পরিবার সরকার প্রধান অং সান সু চির কাছে তাদের মুক্তি চেয়ে চিঠি লেখেন। বিষয়টি বিবেচনা করে ও দেশের স্বার্থে তাদের মুক্তি দেয়া হয়েছে। এদিকে দুই সাংবাদিককে মুক্তি দেয়ার সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়েছে জাতিসংঘ ও যুক্তরাষ্ট্র।