দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগ

কেরানীগঞ্জ থানার ওসিসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলা

  যুগান্তর রিপোর্ট ১২ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

কেরানীগঞ্জ থানার ওসিসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলা

ধর্ষণের মামলা না নেয়া ও দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগে কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ওসি শাকের মো. যোবায়েরসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৬-এর বিচারক শহিদুল ইসলামের আদালতে মঙ্গলবার মামলাটি করেন ভুক্তভোগী এক নারী। ট্রাইব্যুনাল বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) মামলাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন।

মামলার অপর আসামিরা হলেন- কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ওসি অপারেশন গোলাম সারোয়ার ও একই থানার এসআই রেজাউল আমিন বাশার, মো. ফারুক, হায়দার, মো. ইকবাল, মো. হানিফ, মো. হানিফ মেম্বার, মো. রফিক, মো. শফিক ও মো. বাবুল ওরফে মধু।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, ২০ এপ্রিল দুপুরে কেরানীগঞ্জ আরশিনগর মোড়ে আমির মাদবরের সিমেন্টের দোকানের সামনে যাওয়া মাত্রই দেখতে পান যে ২০ থেকে ৩০ জন লোক কিছু লোককে ধাওয়া করছে। তা দেখে তিনি খবরটি পুলিশ হেল্পলাইন ৯৯৯-তে জানান।

আর আসামিরা তা দেখে ফেলায় তার ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে চড়-থাপ্পড়, কিল-ঘুষি মেরে জখম করে এবং কাপড়চোপড় টেনে ছিড়ে ফেলে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে।

ওই সময় তার গলায় থাকা দেড় ভরি ওজনের স্বর্ণের চেন আসামিরা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। পরবর্তী সময়ে গত ২৪ এপ্রিল রাত অনুমানিক পৌনে ১২টার দিকে একই থানাধীন ঘাটারচর প্রাইমারি স্কুলের সামনে পৌঁছলে আসামি হায়দার, রফিক, শফিকসহ আরও কয়েক জন রিকশার গতিরোধ করে বাদীকে প্রাইমারি স্কুলের পেছনে নিয়ে যায় এবং হায়দার ধর্ষণ করে ও অন্যরা পাহারা দেয়।

ওই সময় বাদী এক মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন। আসামিদের নির্যাতনের কারণে তার গর্ভের বাচ্চা নষ্ট হয়ে যায়। এ বিষয়ে থানায় মামলা করতে গেলে পুলিশ মামলা নেয়নি।

বরং উল্টো পুলিশ কর্মকর্তারা বাদীকে ভয়ভীতি দেখিয়ে আসামিদের সঙ্গে আপস করার নির্দেশ দেন। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলাটি করা হয়েছে।

মামলায় কেরানীগঞ্জ থানার ওসিসহ পুলিশ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে দায়িত্বে অবহেলা ও অপর আসামিদের বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও তাতে সহযোগিতার অভিযোগ আনা হয়েছে। মামলায় ১১ জনকে সাক্ষী করা হয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×