রাজধানীর অস্থায়ী পশুর হাট

ইজারা নিয়ে শুরুতেই অব্যবস্থাপনা

  মতিন আব্দুল্লাহ ১২ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ইজারা নিয়ে শুরুতেই অব্যবস্থাপনা

এবারের ঈদুল আজহা উপলক্ষে রাজধানীর অস্থায়ী পশুর হাটের ইজারা নিয়ে শুরুতেই অব্যবস্থাপনার অভিযোগ উঠেছে। একটি হাটের ইজারা আহ্বান করেছে দুই সিটি। এতে বড় ধরনের সংঘর্ষ হতে পারে বলে আশঙ্কা সংশ্লিষ্টদের।

শুধু তা-ই নয়, রাজনৈতিক চাপে উত্তরা ১০ নম্বর সেক্টরের নতুন হাট ইজারার দরপত্র আহ্বান করেছে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি)। এ ঘটনায় ফুঁসে উঠেছে এলাকাবাসী। তাদের অভিযোগ, ওই স্থানে হাট বসানো হলে এলাকার আবাসিক পরিবেশ নষ্ট হবে। একই সঙ্গে উত্তরবঙ্গ, টাঙ্গাইল, গাজীপুর ও আরিচামুখী সড়কে ঈদের আগে তীব্র যানজট হবে।

জানা যায়, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি) ১৭ মে ঈদুল আজহা উপলক্ষে ১২টি অস্থায়ী কোরবানি পশুর হাট ইজারার দরপত্র আহ্বান করেছে। এর মধ্যে নতুন দুটি এবং ১০টি পুরনো। ডিএনসিসির নতুন হাটের একটি হচ্ছে উত্তরা ১০ নম্বর সেক্টরের স্লুইচ গেট থেকে কামারপাড়া ব্রিজ পর্যন্ত ফাঁকা জায়গা। সংশ্লিষ্টদের অভিযোগ, স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও রাজনৈতিক নেতাদের চাপের মুখে এবার এ নতুন হাট বসানোর অনুমোদন দিয়েছে ডিএনসিসি।

তবে কর্তৃপক্ষের বক্তব্য, প্রতিবছর গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের টঙ্গী সংলগ্ন এলাকার পশুর হাটের জন্য উত্তরা ১০ নম্বর সেক্টরের স্লুইচ গেট রীতিমতো পশুর হাটে পরিণত হয়। এসব দিক বিবেচনা করে ওই হাট ইজারার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

এ ঘটনায় উত্তরা ১০ নম্বর সেক্টর কল্যাণ সমিতি ১০ জুন ডিএনসিসি মেয়র বরাবর অভিযোগ দিয়েছে। লিখিত অভিযোগে বলা হয়েছে, এর আগে উত্তরা ৬ নম্বর সেক্টরের হাটের কারণে চরম ভোগান্তি পোহাতে হতো। রাজউক কলেজসহ স্থানীয়রা ভোগান্তিতে নাকাল হতেন।

এবার ১০ নম্বর সেক্টরে পশুর হাট ইজারা দেয়া হলে উত্তরা, আবদুল্লাহপুর হয়ে ঢাকা-আশুলিয়া সড়ক হয়ে চলাচলকারী উত্তরবঙ্গ, মানিকগঞ্জ, টাঙ্গাইল, দৌলদিয়া, আরিচা, সাটুরিয়া ফেরিঘাটমুখো শত শত গাড়ির হাজার হাজার যাত্রী চরম বিপাকে পড়বে। ঈদের আগে গাড়ির চাপ বাড়ায় এ সড়কে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হবে, যার প্রভাব পড়বে রাজধানীর সর্বত্র।

এ প্রসঙ্গে ডিএনসিসির প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা মো. আমিনুল ইসলাম যুগান্তরকে বলেন, ‘উত্তরা ১০ নম্বর সেক্টরের অস্থায়ী পশুর হাট ইজারার সিদ্ধান্ত পুনঃবিবেচনার চিন্তা করছি। কেননা ওই হাটের ব্যাপারে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে অভিযোগ আসছে। শেষমেশ হয়তো ওই হাট বসানোর সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসতে হবে।’ এদিকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি) ১৪টি হাট ইজারার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর মধ্যে ১টি হচ্ছে আফতাবনগর। কিন্তু ডিএসসিসির দরপত্র আহ্বানের আগেই এই স্থানে (আফতাবনগর) ডিএনসিসি হাট ইজারার দরপত্র আহ্বান করেছে।

ওই জায়গাটি দুই সিটি কর্পোরেশনের বর্ডার এলাকা। সামনের জায়গা ডিএনসিসির এবং পেছনের জায়গা ডিএসসিসির। বিভক্তির পর থেকে ওই স্থানে ডিএনসিসি হাট ইজারা দিয়েছে। তবে গত ঈদে স্থানীয় রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ হতে পারে- এমন আশঙ্কা থেকে ডিএনসিসি হাট ইজারা দেয়নি। তবে ঈদের কয়েকদিন আগে তড়িঘড়ি করে ডিএসসিসি ওই স্থানে হাট বসানোর অনুমতি দেয়।

এ প্রসঙ্গে ডিএসসিসির প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা মো. আসাদুজ্জামান যুগান্তরকে বলেন, ‘সীমানা নির্ধারণী গেজেট অনুযায়ী যেখানে আফতাবনগর হাট বসানো হয়, তার বেশির ভাগ অংশ ডিএসসিসির আওতাভুক্ত। এজন্য আমরা এবার ডিএনসিসিকে ওই স্থানে হাট ইজারা না দেয়ার অনুরোধ করেছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘ডিএনসিসি যদি আমাদের অনুরোধ না শোনে, তাহলে ওই এলাকার দুটি হাট ব্যবস্থাপনা কঠিন হবে।’

ডিএনসিসির প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা মো. আমিনুল ইসলাম যুগান্তরকে বলেন, ‘আফতাবনগর হাট বহু বছর ধরে ডিএনসিসি ইজারা দিচ্ছে। গতবছর বিশেষ কারণে ডিএনসিসি বরাদ্দ দেয়নি, তবে এবার দরপত্র আহ্বান করা হয়েছে।’ এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আফতাবনগরে ডিএসসিসির হাট ইজারা দেয়া কোনোভাবেই উচিত হবে না। তারা আমাদের কাছে একটি পত্র লিখেছে, আমরা শিগগিরই তার জবাব দেব।’

অস্থায়ী ২৬ হাট : ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনে এবার ২৬টি অস্থায়ী হাট বসছে। সেগুলো হচ্ছে- উত্তর সিটি: ১. উত্তরা ১৫ নম্বর সেক্টরের ১ নম্বর ব্রিজের পশ্চিম অংশ এবং ২ নম্বর ব্রিজের পশ্চিমে গোলচত্বর পর্যন্ত সড়কের উভয় পাশের ফাঁকা জায়গা, ২. মোহাম্মদপুর বুদ্ধিজীবী সড়ক সংলগ্ন (বছিলা) পুলিশ লাইনের খালি জায়গা, ৩. মিরপুর সেকশন-৬, ওয়ার্ড-০৬ (ইস্টার্ন হাউজিং)-এর খালি জায়গা, ৪. খিলক্ষেত বনরূপা আবাসিক প্রকল্পের খালি জায়গা, ৫. খিলক্ষেত ৩০০ ফুট সড়ক সংলগ্ন উভয় পাশের বসুন্ধরা হাউজিংয়ের খালি জায়গা, ৬. ভাটারা (সাইদনগর) পশুর হাট, ৭. মিরপুর ডিওএইচএস’র উত্তর পাশের সেতু প্রোপার্র্টি ও সংলগ্ন খালি জায়গার অস্থায়ী পশুর হাট, ৮. ঢাকা পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট খেলার মাঠ, ৯. উত্তরখান ময়নারটেক শহীদনগর হাউজিংয়ের খালি জায়গা, ১০. বাড্ডা ইস্টার্ন হাউজিং (আফতাবনগর) ব্লক-ই, সেকশন-৩ এর খালি জায়গা, ১১. কাওলা-শিয়ালডাঙ্গা সংলগ্ন খালি জায়গা এবং ১২. উত্তরা ১০ নম্বর সেক্টরের উত্তরার স্লুইচ গেট থেকে কামারপাড়া ব্রিজ পর্যন্ত ফাঁকা জায়গা। দক্ষিণ সিটি : ১. উত্তর শাহজাহানপুর খিলগাঁও রেলগেট বাজারের মৈত্রী সংঘের মাঠ সংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, ২. ঝিগাতলা হাজারীবাগ মাঠ সংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, ৩. লালবাগের রহমতগঞ্জ খেলার মাঠ সংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, ৪. কামরাঙ্গীরচর ইসলাম চেয়ারম্যানের বাড়ির মোড় থেকে দক্ষিণদিকে বুড়িগঙ্গা নদীর বাঁধসংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, ৫. শ্যামপুর বালুর মাঠসহ আশপাশের খালি জায়গা, ৬. শ্যামপুর বালুর মাঠসহ আশপাশের এলাকার খালি জায়গা, ৭. মেরাদিয়া বাজার সংলগ্ন আশপাশের এলাকার খালি জায়গা, ৮. ৩২ নম্বর ওয়ার্ডের সামসাবাদ মাঠ সংলগ্ন আশপাশের এলাকার খালি জায়গা, ৯. লিটিল ফ্রেন্ডস ক্লাব সংলগ্ন গোপীবাগ বালুর মাঠ ও কমলাপুর স্টেডিয়াম সংলগ্ন বিশ্বরোডের আশপাশের খালি জায়গা, ১০. শনিরআখড়া ও দনিয়া মাঠ সংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, ১১. ধুপখোলা মাঠ সংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, ১২. ৪১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউয়ারটেক মাঠ সংলগ্ন আশপাশের এলাকার খালি জায়গা, ১৩. দাওকান্দি ইন্দুলিয়া ভাগাপুর নগর (আফতাবনগর ইস্টার্ন হাউজিং মেরাদিয়া মৌজার সেকশন-১ ও ২), লোহারপুলের পূর্ব অংশ এবং খোলা মাঠ সংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা এবং ১৪. আশুলিয়া মডেল টাউনের আশপাশের খালি জায়গা।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×