মুখের ঘা সারাতে খালেদা জিয়ার দাঁতের চিকিৎসা

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৩ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

খালেদা জিয়া

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসাধীন কারাবন্দি খালেদা জিয়াকে দাঁতের চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

বিএসএমএমইউ পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল একে মাহবুবুল হক বুধবার দুপুরে জানান, জিহ্বার ডান দিকে ঘা হওয়ায় খালেদা জিয়া দুই-তিন দিন ধরে মুখে ব্যথা অনুভব করছিলেন। এ কারণে চিকিৎসার জন্য তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেন্টাল অনুষদের কনজারভেটিভ ডেনটিস্ট্রি অ্যান্ড অ্যান্ডোডনটিকস বিভাগে নেয়া হয়।

তিনি বলেন, সেখানে পরীক্ষা- নিরীক্ষা করে দেখা গেছে, তার জিহ্বার ডান পাশে কিছুটা ক্ষত হয়েছে। জিহ্বার ডান পাশের একটা দাঁত কিছুটা অমসৃণ হওয়ায় এমন হয়েছে। এ কারণে মেশিন দিয়ে দাঁতটি মসৃণ করে দেয়া হয়েছে। ডেন্টাল ইউনিটে গ্রাইন্ডিং করে ওই দাঁত ঠিক করা হয়েছে।

ব্রিগেডিয়ার মাহবুব বলেন, খালেদা জিয়া যেখানে ভর্তি আছেন সেখানে অর্থাৎ কেবিন ব্লকে দাঁত পরীক্ষার মেশিন আনা সম্ভব না হওয়ায় তাকে গাড়িতে করে ‘এ’ ব্লকের দন্ত বিভাগে নিয়ে যাওয়া হয়।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আগের তুলনায় খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা অনেক ভালো। ডায়াবেটিস আগের চেয়ে নিয়ন্ত্রিত। তাকে নিয়মিত ইনসুলিন দেয়া হচ্ছে।

বিএনপি নেতারা অভিযোগ করেছেন, খালেদা জিয়া গুরুতর অসুস্থ, তার মুখে প্রচণ্ড ব্যথা, হাত নাড়াতে পারেন না- এসব বিষয়ে জানতে চাইলে ব্রিগেডিয়ার মাহবুব বলেন, তারা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা না বলেই এমন মনগড়া বক্তব্য দিচ্ছেন।

খালেদা জিয়াকে কেরানীগঞ্জের কেন্দ্রীয় কারাগারে শিগগিরই স্থানান্তর করা হবে কিনা- জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা তার শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে কারা কর্তৃপক্ষকে নিয়মিত অবহিত করছি। সার্বিক বিবেচনায় তারাই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন।

এর আগে কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে দুপুর ১টা ৫ মিনিটে খালেদা জিয়াকে বিএসএমএমইউর কেবিন ব্লক থেকে একটি মাইক্রোবাসে করে ‘এ’ ব্লকের ডেন্টাল অনুষদের কনজারভেটিভ ডেনটিস্ট্রি অ্যান্ড অ্যান্ডোডনটিকস বিভাগে নেয়া হয়।

গাড়িতে ওঠাতে ও নামাতে হুইলচেয়ার ব্যবহার করা হয়। সেখানে তাকে ৪৫ মিনিট পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও চিকিৎসা শেষে বেলা পৌনে ২টার দিকে একটি মাইক্রোবাসে পুনরায় ৬২১ নম্বর কেবিনে নিয়ে আসা হয়।

২৫ মার্চ খালেদা জিয়াকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিএসএমএমইউতে ভর্তি করা হয়। তিনি অস্ট্রিও আর্থাইটিস ও ডায়াবেটিসের সমস্যাসহ বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন রোগে ভুগছেন। ভর্তির পর ২৮ মার্চ খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়।

বর্তমানে এ বোর্ডের নেতৃত্বে রয়েছেন মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক ডা. জিলন মিঞা। বোর্ডের অন্য সদস্যরা হলেন- ডা. সৈয়দ আতিকুল হক, ডা. তানজিমা পারভিন, ডা. বদরুন্নেসা আহমেদ ও ডা. চৌধুরী ইকবাল মাহামুদ। খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. শামিম আহমেদ ও ডা. মামুন মেডিকেল বোর্ডকে সহযোগিতা করছেন।

এর আগে গত বছরের ৭ অক্টোবর খালেদা জিয়াকে বিএসএমএমইউতে ভর্তি করা হয়। তখন তার চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ড জানিয়েছিল, তার প্রধান সমস্যা গিরায় গিরায় ব্যথা। যাকে আমাদের দেশে গিট বাত বলা হয়। তার উচ্চরক্তচাপ ও ডায়াবেটিসসহ বেশ কিছু রোগ অনিয়ন্ত্রিত অবস্থায় আছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×