ওসি মোয়াজ্জেম দেশেই আছেন, শিগগিরই গ্রেফতার: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  যুগান্তর রিপোর্টে ও কুমিল্লা ব্যুরো ১৩ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। ফাইল ছবি

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের করা মামলায় পরোয়ানাভুক্ত আসামি ফেনীর সোনাগাজী থানার সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনকে ধরা যাচ্ছে না, বিষয়টি ঠিক না। তার বাইরে যাওয়ার সব পথ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। তিনি দেশেই আছেন। তাকে শিগগির গ্রেফতার করা হবে।

বুধবার কারা অধিদফতরে উদ্ভাবনী মেলা ও শোকেসিং-২০১৯ অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় পুলিশের আলোচিত ডিআইজি মিজান প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘ডিআইজি মিজান ঘুষ কেন দিয়েছে? নিশ্চয়ই তার কোনো দুর্বলতা আছে। তা না হলে সে ঘুষ কেন দেবে? দুর্বলতা ঢাকতে সে ঘুষ দিয়েছে। ঘুষ দেয়া-নেয়া দুটিই অপরাধ। মিজানের বিরুদ্ধে আগের অভিযোগের ভিত্তিতে বিচার এখনও প্রক্রিয়াধীন। এমনিতেই মিজানের বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে। এর মধ্যে আবার ঘুষ কেলেঙ্কারি। এ কেলেঙ্কারি যাচাই-বাছাই করে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ও আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

এদিকে ওসি মোয়াজ্জেম সম্পর্কে পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বলেছেন, ‘মোয়াজ্জেমের বিষয়ে পুলিশের অবস্থান অত্যন্ত পরিষ্কার ও সুস্পষ্ট। তার রিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। তাকে গ্রেফতারে সর্বাত্মক চেষ্টা চলছে।’

বুধবার কুমিল্লা জেলা পুলিশের বিশেষ সূত্র জানিয়েছে, কুমিল্লায় ওসি মোয়াজ্জেমের বাসায় অভিযান চালিয়েছে ফেনী জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) ও সোনাগাজী থানা পুলিশ। সোমবার রাতে এবং মঙ্গলবার নগরীর রাজগঞ্জ পানপট্টি এলাকার প্রদীপ প্লাজার বাসায় অভিযান চালানো হয়। সেকেন্ড হোম হিসেবে মোয়াজ্জেম ১০ বছরেরও বেশি সময় ধরে ওই বাসা ব্যবহার করে আসছেন।

জানা গেছে, ওসি মোয়াজ্জেম কুমিল্লার বাসায় কিংবা জেলার কোনো স্থানে আত্মগোপনে থেকে সীমান্ত পার হয়ে ভারতে পালিয়ে যেতে পারে- এমন আশঙ্কায় সতর্ক অবস্থানে রয়েছে কুমিল্লার স্থলবন্দরের ইমিগ্রেশন পুলিশ। স্থলবন্দর পুলিশের উপপরিদর্শক নকুল কুমার বিশ্বাস বলেন, ‘ওসি মোয়াজ্জেমের বিষয়ে রাষ্ট্রের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী দেশের সব ইমিগ্রেশন পুলিশের মতো আমরাও বাড়তি সতর্ক অবস্থানে রয়েছি।

স্থলবন্দর এলাকা দিয়ে ওসি মোয়াজ্জেমকে দেশত্যাগ করার কোনো সুযোগ দেয়া হবে না।’

উল্লেখ্য, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনের বিরুদ্ধে ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনাল ২৭ মে পরোয়ানা জারি করেন। ৩১ মে পরোয়ানার চিঠি ফেনীর পুলিশ সুপার কার্যালয়ে পৌঁছায়। কিন্তু পুলিশ সুপার কাজী মনির-উজ-জামান বারবার বিষয়টি অস্বীকার করতে থাকেন।

একপর্যায়ে ৩ জুন রাতে পরোয়ানা হাতে পাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করেন তিনি। এর দুই দিন পর বিশেষ বার্তাবাহকের মাধ্যমে পরোয়ানা রংপুর রেঞ্জে পাঠানো হয়। এখন আবার রংপুর রেঞ্জ বলছে, কাজটি বিধি মোতাবেক হয়নি।

সোনগাজী মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ্দৌলার নির্দেশে বোরকা পরিহিত কয়েক দুর্বৃত্ত ৬ এপ্রিল ওই মাদ্রাসার ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফীর গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দেয়। এর দিন দশেক আগে মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ্দৌলার বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ জানাতে সোনাগাজী থানায় যায় রাফী।

থানার তৎকালীন ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন সে সময় রাফীকে আপত্তিকর প্রশ্ন করে বিব্রত করেন এবং তা ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেন। ওই ঘটনায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হলে আদালতের নির্দেশে সেটি তদন্ত করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। সংস্থাটি ২৭ মে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দিলে ওই দিনই মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×