উত্তরায় গাড়িতে উবার চালকের গলাকাটা লাশ

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৫ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

লাশ

রাজধানীর উত্তরায় একটি প্রাইভেট কারের ভেতর থেকে আরমান ওরফে আমান (৩৭) নামে এক ব্যক্তির গলাকাটা লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। আরমান রাইড শেয়ারিং ‘উবারে’র গাড়ি চালাতেন।

উত্তরা ১৪ নম্বর সেক্টরের ১৬ নম্বর সড়কের ৫২ নম্বর বাড়ির সামনে বৃহস্পতিবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

আরমান পাবনার ঈশ্বরদীর ফতে মোহাম্মদপুরের মৃত আবদুল হাকিমের ছেলে। তিনি মিরপুরের ১১ নম্বরের ১২ নম্বর সড়কের ৭ নম্বর লেনের ১৬ নম্বর বাড়িতে পরিবার নিয়ে ভাড়া থাকতেন।

উত্তরা পশ্চিম থানার এসআই ফারুক আহমেদ বলেন, স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে ঘটনা জানতে পেরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রাইভেট কারের ড্রাইভিং সিট থেকে লাশটি উদ্ধার করে। ড্রাইভিং লাইসেন্স দেখে নিহতের পরিচয় মেলে। ধারণা করা হচ্ছে, কোনো ছিনতাইকারীকে গাড়িতে তুলেছিল চালক আরমান। তারাই গাড়ি নেয়ার উদ্দেশে পেছন থেকে তার গলা কেটে হত্যা করে। পরে কোনো কারণে গাড়িটি না নিয়েই দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। তদন্ত চলছে, বিস্তারিত তদন্ত শেষে জানা যাবে।

আরমান যে গাড়ির চালক ছিলেন তার মালিক মিরপুর ১১ নম্বরের ৬ নম্বর লেনের ১২ নম্বর সড়কের এক ব্যবসায়ী। তার ৭টি প্রাইভেট কারের সবগুলোই ‘উবারে’ ভাড়া দেয়া।

গাড়ির মালিকের ছোট ভাই অন্তর বলেন, রামপুরার ইস্টওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে থেকে বৃহস্পতিবার রাত ১১টা ২১ মিনিটে উবারে কল পেয়ে যাত্রী নিয়ে উত্তরার ১৪ নম্বর সেক্টরে যান চালক আরমান। ওই ট্রিপ শেষ করে মিরপুরে ফেরার কথা ছিল। কিন্তু রাত ১টার বেশি বেজে গেলেও ফিরে না আসায় আমি আরমানকে ফোন দিই। অন্য একজন ফোন রিসিভ করে জানান, আরমানের দুর্ঘটনা ঘটেছে। আপনি দ্রুত ঘটনাস্থলে আসেন। এরপর আরেকটি গাড়ি নিয়ে আমি অন্তর দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে দেখি গাড়ির ভেতর থেকে আরমানের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

অন্তর জানান, আরমান প্রায় এক বছর ধরে তাদের গাড়ি চালাতেন।

আরমানের খালাতো ভাই আরিফ হোসেন জানান, শুক্রবার নারায়ণগঞ্জে আরমানের বোনের ননদের বিয়ের অনুষ্ঠান। বৃহস্পতিবার গায়ে হলুদ হয়েছে। সেখানে আরমানের স্ত্রী রাবেয়া বেগম, তার ছেলে নাঈম (৯) ও মেয়ে আফরিনকে (১) নিয়ে আগেই চলে গেছেন। আরমানেরও বৃহস্পতিবার রাতেই গাড়ি মালিককে বুঝিয়ে নারায়ণগঞ্জ যাওয়ার কথা ছিল।

পুলিশ জানিয়েছে, সিআইডির ক্রাইম সিন ইউনিট ঘটনাস্থল থেকে আলামত সংগ্রহ করেছে। পরে ময়নাতদন্তের জন্য মৃতদেহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×