দুই অ্যাসোসিয়েশনের বিবৃতি

ডিসিদের রাজস্ব আহরণে সম্পৃক্ত না করার আহ্বান

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৯ জুলাই ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ডিসিদের রাজস্ব আহরণে সম্পৃক্ত না করার আহ্বান

জেলা প্রশাসকদের (ডিসি) রাজস্ব কার্যক্রমের সঙ্গে সম্পৃক্ত হতে চাওয়ার বিষয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বিসিএস (কাস্টমস অ্যান্ড ভ্যাট) ও বিসিএস (ট্যাকসেশন) অ্যাসোসিয়েশন।

বৃহস্পতিবার এক যৌথ বিবৃতিতে তারা এ ধরনের দাবিকে অযৌক্তিক, এখতিয়ারবহির্ভূত এবং অর্থহীন বলে উল্লেখ করেছে। এই দাবি করার জন্য তারা তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। একইসঙ্গে রাজস্ব কর্মকাণ্ডে ডিসিদের সম্পৃক্ত না করার আহ্বান জানিয়েছে।

উল্লেখ্য, ডিসি সম্মেলনে জেলা প্রশাসকদের পক্ষ থেকে রাজস্ব আহরণ কর্মকান্ডে তাদেরকে সম্পৃক্ত করার জন্য দাবি জানানো হয়েছে। এ বিষয়ে সম্প্রতি বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। এর প্রতি ওই দুই অ্যাসোসিয়েশনের দৃষ্টি আকৃষ্ট হয়েছে। এ পরিপ্রেক্ষিতে তারা এ বিবৃতি দিয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, সরকার পরিচালনা এবং জনগণের সেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ২৮টি ক্যাডার সৃজন করেছে। প্রত্যেকটি ক্যাডারের নিজস্ব কর্মের পরিধি এবং প্রকৃতি সুনির্দিষ্টভাবে নির্ধারিত। অভ্যন্তরীণ রাজস্ব আহরণ এবং এ সংক্রান্ত নীতি নির্ধারণী কার্যক্রম পরিচালিত হয় বিসিএস (ট্যাকসেশন) ও বিসিএস (কাস্টমস অ্যান্ড ভ্যাট) ক্যাডারের মাধ্যমে।

এ দুটি ক্যাডারের কর্মকর্তারা জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের নীতি নির্ধারণী নির্দেশনা অনুসরণ করে নিজস্ব আইনের আওতায় রাজস্ব আদায় করেন। রাজস্ব আদায়ের স্বার্থে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের দাফতরিক নিয়ন্ত্রণ উপজেলা পর্যন্ত বিস্তৃত করেছে।

প্রশাসন ক্যাডারভুক্ত ডিসিদের সম্মেলনের বিষয়ে পত্রিকান্তরে প্রকাশিত সংবাদের মর্মার্থ অনুযায়ী জানা যায় যে, জেলা প্রশাসক এবং উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তারা জেলা এবং উপজেলা পর্যায়ে কমিটি গঠন করে রাজস্ব আদায় পরিবীক্ষণের ইচ্ছা প্রকাশ করে প্রস্তাব করেছেন।

এ ধরনের প্রস্তাব কেবল অন্যান্য পেশাভিত্তিক প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব আইনের আওতায় পরিচালিত কার্যক্রমের ওপর অবৈধ এবং এখতিয়ারবহির্ভুত হস্তক্ষেপই নয়, বরং এর মাধ্যমে জাতীয় রাজস্ব আহরণ কার্যক্রমে একটি বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির আশঙ্কা রয়েছে। বর্তমান সরকার যখন দেশের আর্থিক খাতে শৃঙ্খলা আনার প্রচেষ্টায় তৎপর, সেই মুহূর্র্তে দুরভিসন্ধিমূলক এই প্রস্তাব পেশ করার মাধ্যমে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডে অস্থিরতা সৃষ্টির এই অপতৎপরতার মূল উদ্দেশ্য খতিয়ে দেখা প্রয়োজন বলে মনে করে দুই অ্যাসোসিয়েশন।

বিবৃতিতে তারা বলেছে, এ ধরনের কর্মকাণ্ড রাজস্ব আহরণে নিয়োজিত কর্মকর্তাদের মনোবল নষ্ট করবে এবং সার্বিক উন্নয়ন কার্যক্রমকে ব্যাহত করবে বলে মনে করে বিসিএস (কাস্টমস এন্ড ভ্যাট) ও বিসিএস (ট্যাকসেশন) এসোসিয়েশন।

বিবৃতিতে তারা এ ধরনের কর্মকাণ্ড থেকে মাঠ পর্যায়ের প্রশাসন ক্যাডারের কর্মকর্তাদের বিরত রাখার জন্য সরকারের নীতি নির্ধারণী মহলের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন। একই সঙ্গে এসব দাবি আমলে না নেয়ার জন্য অনুরোধ করেছেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×