চাঁদ আগামী দিনের সেরা ল্যাবরেটরি!

  যুগান্তর ডেস্ক ২১ জুলাই ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

চাঁদ

চাঁদের চেয়ে এত ভালো ল্যাবরেটরি এ মহাবিশ্বে আর কোথায় পেতে পারি আমরা? যা আমাদের জন্য বানিয়েই রাখা হয়েছে কয়েকশ’ কোটি বছর ধরে। হাত বাড়ালেই চাঁদ! দূরত্বটা মাত্র ৩ লাখ ৮২ হাজার কিলোমিটার। যেসব পরীক্ষা পৃথিবীর কোনো গবেষণাগারে নিখুঁতভাবে করা সম্ভব হয় না তার জন্য চাঁদই হয়ে উঠতে চলেছে সেরা জায়গা। এর প্রধান কারণ চাঁদে বায়ুমণ্ডল নেই।

চাঁদে বায়ুমণ্ডল নেই বলে মহাজাগতিক রশ্মি চাঁদে পৌঁছে নিউট্রিনোদের তৈরি করতে পারে না। তাই চাঁদে কয়েকশ’ ফুট মাটির নিচে প্রোটন কণা ক্ষয়ের গবেষণাগার বানানো যাবে অনায়াসেই। যেখানে মহাজাগতিক রশ্মি পৌঁছবে না। পৌঁছতে পারবে না নিউট্রিনোরাও। ফলে, সেখানে প্রোটন কণাদের ক্ষয়ের ঘটনা বিজ্ঞানীরা নিখুঁতভাবে পর্যবেক্ষণ করতে পারবেন। আর সেটা করতে পারলে মহাবিশ্বের সৃষ্টি রহস্যের জট খুলতে অনেকটাই সহায়ক হবে।

এছাড়া অ্যান্টিম্যাটারের অস্তিত্ব প্রমাণ নিখুঁতভাবে করা সম্ভব হবে চাঁদে। এতে মহাজাগতিক রশ্মির ঝাপটা অনেকটা কম সইতে হবে। পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে পুরোপুরি শোষিত হয়ে যায় বলে এক্সরে, গামারে নিয়ে গবেষণা পৃথিবীতে বসে করা যায় না। তার জন্য মহাকাশযান পাঠাতে হয় মহাকাশে। চাঁদে বায়ুমণ্ডল নেই বলে মহাকাশযান পাঠাতে হবে না। চাঁদে বসেই করা যাবে সেই গবেষণা।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×