কিশোরগঞ্জে ৫ ঘণ্টায় নারীসহ তিন খুন

দু’জন আটক

  কিশোরগঞ্জ ব্যুরো ২২ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

কিশোরগঞ্জ

কিশোরগঞ্জে পৃথক ঘটনায় ৫ ঘণ্টার ব্যবধানে এক নারীসহ তিনজন খুন হয়েছে। যৌতুক না পেয়ে, জমি ও বাড়ির পাশে রাস্তা নির্মাণ নিয়ে বিরোধের জেরে বুধবার সকাল ৬টা থেকে বেলা ১১টার মধ্যে এসব হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

সদর উপজেলার দানাপাটুলি গ্রামে যৌতুক না পেয়ে হালিমা খাতুন (৫৫) মেয়ে জামাইয়ের ছুরিকাঘাতে, পাকুন্দিয়া উপজেলার চরটেকি গ্রামে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে আলী আজগর মোস্তফা মুকুল (৬০) ছোট ভাইয়ের ছুরিকাঘাতে এবং মিঠামইন উপজেলার ভরা গ্রামে বাড়ির পাশের রাস্তা নির্মাণ নিয়ে সংঘর্ষে শাহজাহান মিয়া (৪৫) বল্লমের আঘাতে নিহত হন।

এসব ঘটনায় ২০ জন আহত হয়। শাশুড়িকে হত্যার দায়ে মেয়ে জামাই রনি মিয়া এবং বড় ভাইকে হত্যার দায়ে ছোট ভাই শামসুল মুসলিমিন মতিকে পুলিশ আটক করেছে। হত্যার সঙ্গে জড়িত দু’জনকে পুলিশ আটক করেছে।

বেলা ১১টার দিকে সদর উপজেলার দানাপাটুলি ইউনিয়নের দানাপাটুলি গ্রামে সৌদি প্রবাসী সায়মুদ্দিন মিয়ার স্ত্রী হালিমাকে তার মেয়ে অরুণা আক্তারের স্বামী রনি মিয়া (২৭) উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করে। এতে হালিমা মারাত্মক আহত হয়। হাসপাতালে নেয়ার পর তার মৃত্যু হয়। এ সময় তার নাতি আনন্দ (৩) গুরুতর আহত হয়। এলাকাবাসী ঘাতক রনিকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। রনি একই ইউনিয়নের মনোহরপুর গ্রামের টিটু মিয়ার ছেলে।

পরিবারের সদস্যরা জানান, ৪ বছর আগে অরুনার সঙ্গে রনির বিয়ে হয়। তাদের ঘরে আনন্দ নামে ৩ বছরের ছেলে রয়েছে। বিয়ের পর থেকে রনি টাকার জন্য নির্যাতন করায় ২ বছর ধরে অরুণা সন্তানকে নিয়ে বাবার বাড়িতে আছেন। পরিবারের দাবি, মঙ্গলবার এসে রনি হুমকি দেয়- স্ত্রী অরুনা অথবা শাশুড়ি হালিমার লাশ ফেলবে।

বুধবার কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে রনি হঠাৎ ছুরি বের করে হালিমাকে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করে। এ সময় আনন্দ দৌড়ে নানির কাছে গেলে তাকেও ছুরিকাঘাত করে পাষণ্ড বাবা রনি। আশঙ্কাজনক অবস্থায় হালিমাকে হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। সদর মডেল থানার ওসি আবু বকর সিদ্দিক জানান, ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে লাশ পাঠানো হয়েছে।

সকাল ৮টার দিকে মিঠামইনের ঘাগড়া ইউনিয়নের ভরা গ্রামে কাঁচা রাস্তা নির্মাণ নিয়ে বিরোধের জের ধরে গ্রামের হাবিব সরকার এবং আইয়ুব আলীর লোকজন দেশি অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এ সময় বল্লমের আঘাতে হাবিবের সমর্থক শাহজাহান মিয়া (৫০) নিহত হয়।

শাহজাহান একই গ্রামের কাছুম আলীর ছেলে। এ ঘটনায় আহতদের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। মিটামইন থানার ওসি মো. জাকির রাব্বানী জানান, কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে লাশ পাঠানো হয়েছে।

সকাল ৬টার দিকে পাকুন্দিয়ার জাঙ্গালিয়া ইউনিয়নের চরটেকি গ্রামের মতি জমি নিয়ে বিরোধে তার বড় ভাই মুকুলকে ডেকে নিয়ে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করে। ঘটনাস্থলে মুকুল মারা যায়। এলাকাবাসী ঘাতক মতিকে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে। মতি ও মুকুলের বাবার নাম হারুন অর রশিদ। পাকুন্দিয়া থানার ওসি তদন্ত মো. শফিকুল ইসলাম জানান, ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে লাশ পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা হবে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×