দেশে এখন আর ভোট হয় না

এরশাদ

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

দেশে এখন আর ভোট হয় না
সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ

সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, আমাদের সামনে সুদিন অপেক্ষা করছে। এ দেশের মানুষ দুই দলকে চায় না। সন্ত্রাস দুর্নীতি চায় না। তিনি আরও বলেন, ভোটের মাধ্যমে পরিবর্তন হতে হবে। কিন্তু সমস্যা হল দেশে তো এখন আর ভোট হয় না। তবে এখন মানুষ অনেক সচেতন, এবার কিছু হলেও ভোট হতে পারে। তাই জনগণের কাছে যেতে হবে।

সোমবার রাজধানীর ইন্সটিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স মিলনায়তনে জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য সাহিদুর রহমান টেপার লেখা দুুটি বইয়ের মোড়ক উšে§াচন অনুষ্ঠানে এরশাদ এসব কথা বলেন। বই দুটির একটি ‘জাতীয় পার্টি কেন করবেন’ ও অন্যটি কবিতার বই ‘তোমার জন্য’।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান দলের নেতাকর্মীদের বই দুটি পড়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, এখন মন্দির লুট হয়, জমি দখল হয়। জাতীয় পার্টির সময় এগুলো হয়নি। তাই মানুষ আমাদের চায়। মানুষ আজ অত্যাচারে অতিষ্ঠ। বর্তমানে মেধার চেয়ে দলের কদর বেশি। গতকালও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সামনে ছাত্রলীগের দু’গ্র“প মারামারি করেছে। তিনি বলেন, আমরা ক্ষমতায় গেলে হিন্দুদের জন্য ৩০টি আসন সংরক্ষিত রাখব। কারণ তারা এত টাকা খরচ করে সংসদে আসতে পারে না।

সর্বস্তরে বাংলা ভাষা চালু তিনি করেছেন উল্লেখ করে সাবেক রাষ্ট্রপতি এরশাদ বলেন, ১৯৮৭ সালে আমিই আইন করেছিলাম সব অফিস আদালতে বাংলা ভাষা ব্যবহার করতে হবে। কিন্তু আমরা সবকিছু ভুলে যাই, তেমনি এটাও ভুলে গেছি।

দলের নেতাকর্মীদের তিনি জাতীয় পার্টির সময়ের উন্নয়নের কথা তুলে ধরার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ঢাকায় যানজটের কারণে চলা যায় না। এ নিয়ে কেউ কিছু ভাবছে না, দশ বছর পর এ শহরের অবস্থা কী হবে- প্রশ্ন করেন এরশাদ। জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান আরও বলেন, জাতীয় পার্টির নয় বছরে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। জাতীয় পার্টি কেন করবেন- তা এ বইটিতে বলা আছে। এ বইয়ের প্রতিটি তথ্য সত্য। এখানে বানোয়াট কোনো তথ্য নেই। সাধারণ মানুষকে এ বই পড়তে উৎসাহিত করতে হবে।

এরশাদ বলেন, ঢাকায় এখন আড়াই কোটি মানুষ, কিছুদিন পর ৫ কোটি হবে। তখন কী অবস্থা হবে। তাই আমি বলেছি, ক্ষমতায় গেলে ক্ষমতার বিকেন্দ্রীকরণ করব। শুধু বিভাগ করলে হবে না, প্রদেশ করতে হবে। সেখানে আলাদা সরকার থাকবে, তাহলে মানুষ ঢাকায় আসবে না। তিনি বলেন, এখন সব জায়গায় দুর্নীতি ও দলীয়করণ। কনস্টেবল নিয়োগে দশ লাখ, শিক্ষক নিয়োগে লাগে ২০ লাখ। এটা এখন ঘৃণীত নিয়মে পরিণত হয়েছে। এসব আমাদের সময় ছিল না।

আকাশ প্রকাশনীর স্বত্বাধিকারী আলমগীর সিকদার লোটনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন- জাতীয় পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, সুনীল শুভরায়, শফিকুল ইসলাম সেন্টু, চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া, রিন্টু আনোয়ার ও দফতর সম্পাদক সুলতান মাহমুদ।

বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করেছেন এরশাদ : জাতীয় পার্টি ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা এমপি বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল ক্ষুধামুক্ত, উন্নত সমৃদ্ধিশালী বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা করা। স্বাধীনতা অর্জনের পর সে লক্ষ্যে তিনি কাজও শুরু করেছিলেন। কিন্তু বঙ্গবন্ধু হত্যার মধ্য দিয়ে সে কাজ থেমে যায়। ১৯৮২ সালে রাষ্ট্রক্ষমতায় এসে পল্লীবন্ধু এরশাদ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ শুরু করেন। তিনি আরও বলেন, প্রকৃতপক্ষে এরশাদের হাত ধরেই এ দেশে উন্নয়ন অগ্রগতি আর গণতান্ত্রিক রাজনীতির শুভসূচনা হয়েছে। আর বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও তার পিতার স্বপ্ন বাস্তবায়নের পাশাপাশি দেশকে উন্নত বিশ্বের কাতারে নিয়ে যাওয়ার জন্য সংগ্রাম করছেন।

সোমবার রাজধানীর শ্যামপুরের রামকৃষ্ণ গিরিধারী মন্দিরে ধর্মসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আবু হোসেন বাবলা এসব কথা বলেন। মন্দির পরিচালনা কমিটির সভাপতি গোপাল দাশের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ধর্মসভায় বক্তব্য রাখেন- শ্রীকৃষ্ণ সেবা সংঘের আহ্বায়ক নকুল চন্দ্র সাহা, দিলীপ পাল চৌধুরী, শ্যামপুর থানা আওয়ামী লীগ সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন, ৫১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর কাজী হাবিবুর রহমান হাবু, ৫৪ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাজী মাসুদ, আওয়ামী লীগ নেতা মাইনুদ্দিন চিশতি, মনির হোসেন স্বপন, সাংবাদিক সুজন দে, জাতীয় পার্টির নেতা হানিফ সর্দার, মোতালেব হোসেন, মো. মানিক প্রমুখ।

pran
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
bestelectronics

mans-world

 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.