কুমিল্লা ফায়ার সার্ভিস: ভবন নির্মাণের ছাড়পত্রে অনিয়ম তদন্তে দুদক

অধিকাংশ ভবনে নেই অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা, চলতি বছর ৭৫১ ভবনের ছাড়পত্র

  আবুল খায়ের, কুমিল্লা ব্যুরো ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

দুদক

কুমিল্লা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স কার্যালয়ের অনিয়ম-দুর্নীতির তদন্তে নেমেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এ কার্যালয়ের কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে উৎকোচের বিনিময়ে ভবন নির্মাণে ছাড়পত্রসহ বিভিন্ন প্রকার সেবা প্রদানে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযোগ উঠেছে। কোনো প্রকার অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা না থাকলেও শুধু উৎকোচ পেলেই এ কার্যালয়ের কর্মকর্তারা পরিদর্শন ছাড়াই ছাড়পত্র দিচ্ছেন ভবন নির্মাণকারীদের। এ বছরের জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত প্রতিষ্ঠানটি ৭৫১টি ভবন নির্মাণের ছাড়পত্র প্রদান করেছে।

জানা গেছে, কুমিল্লা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স কার্যালয়টি কুমিল্লা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও চাঁদপুর জেলার রিজিয়ন অফিস হিসেবে সব কার্যক্রম পরিচালনা করে। অভিযোগ উঠেছে, প্রতিষ্ঠানে কর্মরত পরিদর্শকসহ অসাধু কর্মকর্তারা উৎকোচের বিনিময়ে কুমিল্লা নগরীসহ বিভিন্ন এলাকায় ভবন নির্মাণের ছাড়পত্র দিচ্ছেন। যার ফলে এ তিন জেলায় অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা ছাড়াই শত শত ভবন নির্মিত হচ্ছে। বিশেষ করে কুমিল্লা নগরীতে কোনো ভবনেই যথাযথ অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা নেই। কিন্তু উৎকোচের বিনিময়ে এসব ভবন নির্মাণকারীরা ফায়ার সার্ভিসের ছাড়পত্র নিয়েছে। সম্প্রতি কুমিল্লা নগরীতে বেশ কয়েকটি আবাসিক ও বাণিজ্যিক ভবনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

এদিকে এ কার্যালয়ের কর্মকর্তারা অবৈধ সুবিধাপ্রাপ্তির মাধ্যমে বাণিজ্যিক পর্যায়ের গ্রাহকদের নির্ধারিত দোকান থেকে ফায়ার সরঞ্জামাদি কিনতে বাধ্য করছেন বলেও অভিযোগ উঠেছে। এসব অভিযোগ খতিয়ে দেখছেন কুমিল্লার দুর্নীতি দমন কমিশন সমন্বিত কার্যালয়ের কর্মকর্তারা। এরই পরিপ্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার কুমিল্লা নগরীর বাগিচাগাঁও ফায়ার সার্ভিস কার্যালয়ে অভিযান পরিচালনা করে দুদক। এ সময় অনুসন্ধানের জন্য ভবন নির্মাণসংক্রান্ত ছাড়পত্রের বেশ কিছু ফাইল জব্দ করেন দুদক কর্মকর্তারা।

কুমিল্লা দুদক কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মাহতাব উদ্দিন জানান, ভবন নির্মাণের ছাড়পত্র প্রদানে অনিয়ম, অক্সিজেন, ফায়ারসামগ্রী বাগিচাগাঁও নিউ গোমতী ফায়ার টেকনোলজি দোকান থেকে কিনতে ভবন মালিকদের বাধ্য করা এবং বিভিন্ন সেবায় অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে কুমিল্লা ফায়ার সার্ভিস কার্যালয়ে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। ভবন নির্মাণের ছাড়পত্রসহ নানা অনিয়মের বিষয়ে খোঁজ নেয়ার জন্য প্রয়োজনীয় কিছু নথি জব্দ করা হয়েছে।

কুমিল্লা ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিচালক প্রাণ নাথ সাহা যুগান্তরকে বলেন, ভবন নির্মাণের ছাড়পত্র ফায়ার সার্ভিসের সদর দফতর থেকে দেয়া হয়। এ ক্ষেত্রে সদর দফতর একজন কর্মকর্তাকে পরিদর্শনের দায়িত্ব দেয়। ওই কর্মকর্তা যদি পরিদর্শনে সঠিক তথ্য প্রদান না করেন এবং ভবন নির্মাতা যদি অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা যথাযথভাবে নিশ্চিত না করেন তাহলে এর দায়ভার সংশ্লিষ্টদের। তিনি আরও বলেন, ফায়ার লাইসেন্স প্রদানসহ নানা অনিয়মের সঙ্গে জড়িত সন্দেহভাজন কর্মকর্তাদের বিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে দায়ী কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে কুমিল্লা ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র পরিদর্শক সামছুল আলম যুগান্তরকে বলেন, ভবন নির্মাণের ছাড়পত্র দেয়ার ক্ষেত্রে পরিদর্শনসহ সব কার্যক্রম পরিচালনা করেন উপ-পরিচালক ও সহকারী পরিচালকরা। আমরা তাদের নির্দেশনা অনুসারে কমিটির সদস্য হিসেবে পরিদর্শনের কাজটুকু করে থাকি, এছাড়া সব ফাইলপত্র ওই সব সিনিয়র অফিসারদের কাছেই থাকে। এক্ষেত্রে কোনো অনিয়ম হয়ে থাকলে এর দায়ভার আমাদের পরিদর্শকদের একার নয়। তিনি বলেন, আমার ঢাকায় বদলির অর্ডার হয়ে গেছে। আমি আর কিছুই বলতে চাই না।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×