সংঘর্ষে পণ্ড চট্টগ্রাম উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন

বোমা বিস্ফোরণ-চেয়ার ছোড়াছুড়ি আহত ২০

  চট্টগ্রাম ব্যুরো ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বোমা বিস্ফোরণ, হাতাহাতি, চেয়ার ছোড়াছুড়ি ও গোলাগুলিসহ কয়েক দফা সংঘর্ষের পর পণ্ড হয়ে গেছে চট্টগ্রাম উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন। মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে নগরীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউট মিলনায়তনে এ ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে অন্তত ২০ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে ৫ জনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। নগরীর লালদিঘী মাঠে আওয়ামী লীগ নেতা প্রয়াত এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর স্মরণসভায় মহানগর ছাত্রলীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষের একদিন পরই এ ঘটনা ঘটল।

প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন জানান, পদপ্রত্যাশী কয়েকজন নেতার সমর্থকরা স্লোগান দিচ্ছিলেন। এরই এক পর্যায়ে দুটি পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এরপর বিভিন্ন পক্ষ হাতাহাতিতে লিপ্ত হয়। এরইমধ্যে সম্মেলন স্থলের সামনের সড়কে ব্যারিকেড দেয় নেতাকর্মীদের একটি অংশ। এ সময় কিছুক্ষণের জন্য ব্যস্ত সড়কটিতে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। তবে ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, সম্মেলনস্থলে স্থান সংকুলান না হওয়ায় চেয়ারে বসা নিয়ে কয়েকজন কর্মী ধাক্কাধাক্কি ও হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়েন। উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি বখতেয়ার সাঈদ ইরান সাংবাদিকদের বলেন, ‘উত্তর জেলার অধীন বিভিন্ন উপজেলা থেকে বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী সম্মেলনে যোগ দেন। স্থান সংকুলান না হওয়ায় একজন অপরজনের গায়ে পড়লে ধাক্কাধাক্কি শুরু হয়। এ সময় গোলমাল হচ্ছে ভেবে কিছু নেতাকর্মী দৌড়াদৌড়ি শুরু করেন। ককটেল বিস্ফোরণের কোনো ঘটনা ঘটেনি। ভিডিও ফুটেজ দেখে এ ঘটনায় জড়িতদের চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে। ঘটনার পর স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেছি। বৈঠকে প্রার্থীদের মধ্যে সমঝোতার ভিত্তিতে একটি সংক্ষিপ্ত কমিটি করে উপস্থিত কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছে জমা দেয়া হয়েছে। কেন্দ্র থেকে কমিটির ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে।’

সূত্র জানায়, কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেনের বক্তব্য শেষে সংঘর্ষ শুরু হয়। মঞ্চে এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এমপি, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি, সাধারণ সম্পাদক ও চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের প্রশাসক এমএ সালাম, মাহফুজুর রহমান মিতা এমপি প্রমুখ।

সূত্র আরও জানায়, দুপুর ১২টার দিকে সম্মেলনস্থলের বাম পাশে বিকট শব্দে একটি হাত বোমার বিস্ফোরণ ঘটে। এরপরই আতঙ্কে হুড়োহুড়ি শুরু হয়ে যায়। এক পর্যায়ে হলের ভেতরে ছাত্রলীগের একাধিক পক্ষ নিজেদের নেতাদের নামে স্লোগান দিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। ব্যাপক চেয়ার ছোড়াছুড়ি ও হাতাহাতি চলাকালে মঞ্চে উপস্থিত প্রধান অতিথি ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বার বার মাইকে ঘোষণা দিয়ে শান্ত হওয়ার জন্য অনুরোধ জানালেও সংঘর্ষ চলতে থাকে। এক পর্যায়ে কয়েকজন নেতাকর্মী মঞ্চে উঠে অতিথিদের টেবিল ভেঙে ফেলেন। কর্মীদের নিয়ন্ত্রণ করতে না পেরে দুপুর ১টার দিকে প্রধান অতিথিসহ অন্য অতিথিরা সম্মেলনস্থল ত্যাগ করেন। মিলনায়তনের ভেতরের ঘটনার জের ধরে উত্তেজিত ছাত্রলীগ কর্মীদের কয়েকটি গ্রুপ অনুষ্ঠানস্থলের সামনের সড়কে ব্যারিকেড দিলে কিছুক্ষণের জন্য যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এ সময় কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলির শব্দ শোনা যায়। পরে র‌্যাব ও পুলিশ তাদের রাস্তা থেকে সরিয়ে দিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। সম্মেলন শেষে কাউন্সিলরদের সরাসরি ভোটে কমিটি নির্বাচনের কথা ছিল কিন্তু সংঘর্ষের কারণে ভোটগ্রহণ হতে পারেনি। সংঘর্ষে আহতদের মধ্যে রবিউল ইসলাম, সবুজ আহমেদ, নিপু হাওলাদার, সাইদুর রহমান ও রিফাতকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তারা ফৌজদারহাট নার্সিং ইন্সটিটিউটের ছাত্র। আহত অন্যদের নাম-পরিচয় পাওয়া যায়নি।

সূত্র জানায়, একটি পক্ষ চেয়েছিল সম্মেলনের মাধ্যমে কমিটি করতে। অন্য পক্ষ এর বিরোধী ছিল। মূলত এই দু’পক্ষের মধ্যে প্রথম সংঘর্ষ বাধে। পরে এতে পদপ্রত্যাশীদের আরও কয়েকটি পক্ষ জড়িয়ে পড়ে।

উল্লেখ্য, উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সর্বশেষ কমিটি গঠন হয় ২০১১ সালের ৬ জানুয়ারি। ১৪১ সদস্যের ওই কমিটির সভাপতি বখতিয়ার সাঈদ ইরান ও সাধারণ সম্পাদক আবু তৈয়ব।

pran
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
bestelectronics

mans-world

 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.