বিচারের দাবিতে দলবেঁধে থানায় হনুমান!

  কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মারধর করার বিচার চেয়ে রোববার কেশবপুর থানার প্রধান ফটকে অবস্থান নেয়া হনুমান। ছবি: যুগান্তর

থানায় বিচার চাইতে মানুষ নয়, হাজির হয়েছে একদল হনুমান। আসামির কাঠগড়ায় অবশ্য মানুষই। ছোট্ট হনুমানকে পিটিয়ে আহতের বিচার চাইতে সন্তানকে কোলে নিয়ে যশোরের কেশবপুর থানায় রোববার হাজির হয় কালোমুখো হনুমান। পরে আরও কয়েকটি হনুমান এসে তার সঙ্গে যোগ দেয়। একপর্যায়ে তারা ডিউটি অফিসারের কক্ষেও ঢুকে পড়ে।

কেশবপুর থানার ওসি মো. শাহিন বলেন, একটি মা হনুমান কোলে বাচ্চা নিয়ে প্রথমে থানায় আসে। বাচ্চাটিকে মারধর করে আহত করা হয়েছে বলে মনে হচ্ছে। এরপর প্রায় ২০ থেকে ২৫টি হনুমান দলবদ্ধভাবে থানার প্রধান ফটকের সামনে ও ডিউটি অফিসারের কক্ষে অবস্থান নেয়। হামলাকারীদের বিচার হবে বলে ইঙ্গিতে বোঝানো ও কিছু শুকনো খাবার দিলে ঘণ্টাখানেক অবস্থানের পর হনুমানগুলো চলে যায়।

উপজেলা বন কর্মকর্তা আবদুল মোনায়েম হোসেন জানান, শহর ও শহরতলিতে ৫ শতাধিক কালোমুখো হনুমান রয়েছে। তাদের জন্য প্রতিদিন মাত্র ৩৫ কেজি কলা, ২ কেজি বাদাম ও ২ কেজি পাউরুটি দেয়া হয়। যা প্রয়োজনের তুলনায় একেবারে অপ্রতুল। খাবার না পেয়ে হনুমান মানুষের বসতবাড়ি ও অফিসে ঢুকে পড়ে। তাছাড়া হনুমান অত্যন্ত স্পর্শকাতর প্রাণী। তাদের ওপর কেউ হামলা করলে তারা দলবদ্ধভাবে এভাবে থানায় যায়। এর আগেও এ ধরনের একাধিক ঘটনা ঘটেছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত