কাউনিয়ায় ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহত ১ আহত ৩০

  কাউনিয়া (রংপুর) প্রতিনিধি ০৪ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ট্রেন

রংপুরের কাউনিয়া রেলওয়ে জংশন স্টেশনে বৃহস্পতিবার ট্রেন দুর্ঘটনায় এক কলেজছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন আরও অন্তত ৩০ জন। এর মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাদের রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সান্তাহার থেকে পঞ্চগড়গামী উত্তরবঙ্গ সেভেন আপ মেইল ট্রেনটি সোয়া ৪টার দিকে কাউনিয়া জংশন স্টেশনে আসে। এখানে ইঞ্জিন ঘুরাতে (সালটিং) হয়। ইঞ্জিন ঘুরে আসার পর সেখানে থাকা বগিগুলোতে প্রচণ্ড জোরে ধাক্কা দেয়। তাতে একটি বগি দুমড়ে-মুচড়ে আরেকটি বগির ভেতর ঢুকে যায়।’

প্রত্যক্ষদর্শীরা আরও জানান, এ সময়ে যাত্রী গাইবান্ধা কমিউনিটি নার্সিং কলেজের ছাত্র আপেল মাহমুদ (২০) দুই বগির মাঝে চাপা পড়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান। পরে কাউনিয়া ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা বগি কেটে তার লাশ উদ্ধার করে। রাত ৮টায় এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত তার লাশ কাউনিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ছিল। আপেল ঠাকুরগাঁওয়ের রুহিয়া উপজেলার মহিষপুর গ্রামের আমিরুল ইসলামের ছেলে।

দুর্ঘটনায় রেলের একজন কর্মীও আহত হন। ইঞ্জিনে থাকা আহত সিগন্যাল ম্যানের নাম আবদুর রহিম। তিনি বলেন, ইঞ্জিনে তখন ড্রাইভার ছিলেন না। তিনি নাশতা করতে নেমেছিলেন। সহকারী চালক (ফোরম্যান) বগিতে ইঞ্জিন লাগানোর কাজ করছিলেন। এ সময় ব্রেক নিয়ন্ত্রণ করতে না পারায় ইঞ্জিনটি প্রচণ্ড বেগে বগিতে ধাক্কা দেয়।

লালমনিরহাট রেলওয়ে ডিভিশনের কর্মকর্তা (ডিআরএম) মোহাম্মদ শফিকুর রহমান যুগান্তরকে বলেন, ইঞ্জিনে তখন চালক (এলএম) শামসুজ্জোহা ছিলেন না। সহকারী চালক (এএলএম) শামীম রেজা ইঞ্জিনটি চালাচ্ছিলেন। দুর্ঘটনার পর থেকেই তারা পলাতক। তাদের সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

শফিকুর রহমান আরও বলেন, এ ঘটনায় দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। লালমনিরহাট ডিভিশনের বিভাগীয় প্রকৌশলী আনোয়ার হোসেনের নেতৃত্বে ৫ সদস্যের কমিটিকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। তিনি বলেন, পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে রাজশাহীর প্রধান প্রকৌশলী (যান্ত্রিক) মৃণাল কান্তি বণিকের নেতৃত্বে আরেকটি কমিটি করা হয়েছে। এ কমিটিকে তিন দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ি ও ফায়ার সার্ভিস সূত্র জানায়, এ ঘটনায় আরও অন্তত ৩০ জন আহত হন। এর মধ্যে ১৫ জনকে প্রথমে কাউনিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে তাদের রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। কাউনিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. আতিকুর রহমান জানান, দুর্ঘটনার পর এছাড়াও অন্তত ১৫ জন এখানে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

আহতদের মধ্যে রয়েছেন- গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার ধুতিচড়া গ্রামের খোদেজা বেগম (৫২), সাথি বেগম (২৬), কঞ্চিপাড়া গ্রামের ইয়াছিন আলি (৬), লেমন মিয়া (২১), আঁখি বেগম (২৪), ধনপাড়া গ্রামের রুমি বেগম (২৭), লক্ষ্মীপুর গ্রামের ভবেশ চন্দ্র (৫৫), সুন্দরগঞ্জ উপজেলার কর্তিমারী গ্রামের মনোয়ারা (৩৮), গাইবান্ধার নলডাঙ্গা গ্রামের আছিয়া বেগম (৩৭), শিশাপাট গ্রামের উষা রানী (৩৯), কামারজানি গ্রামের সোহরাব আলী (৪৩), এসডিএফ এনজিও কর্মী বদরগঞ্জ উপজেলার মিজানুর রহমান (৪০), ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার মানিক চন্দ্র (২৯), রংপুরের কাউনিয়া উপজেলার হয়বতখাঁ গ্রামের আবদুর রশিদ (৫৩), তার স্ত্রী কোহিনুর বেগম (৪২), নাজিরদহ নয়াটারী গ্রামের রফিকুল ইসলাম (৩৭), কাউনিয়ার রেলকর্মী আবদুর রহিম (৪৫), রংপুর খামারবাড়ী চুড়িপট্টি গ্রামের জুলেখা বেগম (৫৭)।

স্টেশন মাস্টার আবদুর রশিদ বাবুয়াল জানান, ট্রেনের ইঞ্জিন ঘুরিয়ে বগিতে লাগানোর সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে। বিকল্প ইঞ্জিন দিয়ে পৃথক পথে সন্ধ্যা ৭টার পর দুর্ঘটনাকবলিত ট্রেনটি (দুমড়ে-মুচড়ে পড়ে থাকা ২টি বগি ও ইঞ্জিন রেখে) যাত্রীদের নিয়ে পঞ্চগড়ের পথে চলে যায়।

রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির আইসি নজরুল ইসলাম জানান, কোনো কিছু বুঝে ওঠার আগেই বিকট শব্দে দুর্ঘটনাটি ঘটে। কাউনিয়ার সঙ্গে সারা দেশের রেল যোগাযোগ প্রায় ৩ ঘণ্টা বন্ধ থাকে।

দুর্ঘটনার পর কাউনিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছা. উলফৎ আরা বেগম, সহকারী কমিশনার (ভূমি) জেসমিন নাহার, লালমনিরহাট রেলওয়ে চিকিৎসক আনিছুল হক, কাউনিয়া থানা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সেলিমুর রহমান, ফায়ার সার্ভিস রংপুরের ডিএডি সামসুজ্জোহা, কাউনিয়া ইনচার্জ গোলাম মোস্তফা হতাহতদের উদ্ধার তৎপরতা প্রত্যক্ষ করেন। পরে সেখানে আসেন রেলওয়ের ডিআরএম মোহাম্মদ শফিকুর রহমান। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছা. উলফৎ আরা বেগম বলেন, আহতদের সুচিকিৎসার জন্য রংপুর ও কাউনিয়ায় খোঁজখবর নেয়া হচ্ছে।

জিএম কাদেরের শোক : জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের এমপি এ দুর্ঘটনায় নিহতের বিদেহী

আত্মার মাগফেরাত কামনা করেছেন। পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন তিনি। তিনি আহতদের দ্রুত সুস্থতা কামনা করেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×