প্রতিশ্রুতির চেয়েও বেশি কাজ করেছি: যুগান্তরের সঙ্গে একান্ত সাক্ষাৎকারে ডামুড্যা পৌরসভার মেয়র

  মোহাম্মদ নান্নু মৃধা, ডামুড্যা (শরীয়তপুর) প্রতিনিধি ২১ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

প্রতিশ্রুতির চেয়েও বেশি কাজ করেছি: যুগান্তরের সঙ্গে একান্ত সাক্ষাৎকারে ডামুড্যা পৌরসভার মেয়র
হুমায়ুন কবির বাচ্চু।

শরীয়তপুরের ডামুড্যা পৌরসভার যাত্রা শুরু ১৯৯৭ সালে। ৯টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত পৌরসভাটির আয়তন ৭ হাজার ৮৮ বর্গকিলোমিটার। জয়ন্তী নদীর কোলঘেঁষে গড়ে ওঠা এ পৌরসভার লোকসংখ্যা ২১ হাজার ৪৯৫। মোট ভোটার ১১ হাজার ২৫৮ জন।

২০১৬ সালে পৌরসভাটি প্রথম শ্রেণির মর্যাদা লাভ করে। বর্তমানে মেয়রের দায়িত্ব পালন করছেন মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ হুমায়ুন কবির বাচ্চু। ২০১৫ সালের ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী আলমগীর হোসেন মাদবরকে পরাজিত করে তিনি মেয়র নির্বাচিত হন। দায়িত্ব নিয়ে তিনি উন্নয়নমূলক অনেক কাজ করেছেন। তারপরও রয়ে গেছে কিছু সমস্যা।

৯নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা হরিপদ রিশি, ৭নং ওয়ার্ডের আমিন হোসেন সোহেল ও ৮নং ওয়ার্ডের আনোয়ার হোসেনসহ কয়েকজন বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে মেয়র সাহেবের হাত ধরে উন্নয়নমূলক অনেক কাজ হয়েছে। কিন্তু কিছু সমস্যার সমাধান এখনও হয়নি। এখানে পর্যাপ্ত ড্রেনেজ ব্যবস্থা নেই। কিছু রাস্তার অবস্থা খারাপ। যানজটেরও সৃষ্টি হয়।

পৌরসভার বিদ্যমান সমস্যা ও দায়িত্ব পালনকালে নিজের সফলতার কথা জানাতে যুগান্তরের মুখোমুখি হয়েছিলেন মেয়র হুমায়ুন কবির বাচ্চু। তিনি বলেন, পৌরসভার সামগ্রিক উন্নয়নে কোনো মাস্টার প্ল্যান ছিল না। নগর পরিকল্পনাবিদদের সহায়তায় ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নয়নে কাজ করছি। এই কাজ শেষ হলে পৌর এলাকায় জলাবদ্ধতা থাকবে না। এ ছাড়া প্রধান প্রধান সড়কের উন্নয়ন ও সংস্কার কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। প্রায় ৭০ ভাগ মানুষের মাঝে বিশুদ্ধ পানি সরবরাহের ব্যবস্থা করেছি। বহুতল মার্কেট নির্মাণের পরিকল্পনা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। সড়ক ও ড্রেন উন্নয়নে ২৫ কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ হয়েছে। এসব কাজের ফল নগরবাসী পাচ্ছে।

মেয়র বলেন, ব্যাটারিচালিত অটোরিকশায় শহর সয়লাব। এ কারণে শহরের ব্যস্ততম এলাকায় মাঝে মধ্যে যানজট সৃষ্টি হয়। ভোগান্তিতে পড়েন পৌরবাসী। এ সমস্যার স্থায়ী সমাধানের চেষ্টা করছি। তিনি বলেন, আমার নির্বাচনী প্রতিশ্রুতির মধ্যে অগ্রাধিকার ছিল রাস্তাঘাটের উন্নয়ন ও জলাবদ্ধতা নিরসন। এ প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করতে পেরেছি। যেসব কাজ করতে পারিনি তার একটি তালিকা তৈরি করেছি। আগামী নির্বাচনের আগে এগুলো বাস্তবায়ন করব।

পৌরসভায় অনিয়ম দুর্নীতি প্রসঙ্গে মেয়র বলেন, আমি নিজে ঘুষ ও দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত নই। পৌরসভার কোনো কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহণের প্রমাণ পেলে কঠোর ব্যবস্থা নিয়ে থাকি। খাল ও খাসজমি দখল প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমি দায়িত্ব নেয়ার পর কোনো খাল কিংবা খাসজমি দখলের ঘটনা ঘটেনি। বরং বেশ কয়েকটি ব্যক্তিমালিকানাধীন জলাধার ভরাটের উদ্যোগ প্রতিহত করেছি। সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি, ছিনতাই, মাদক ও যৌন হয়রানির বিষয়ে তিনি বলেন, এগুলো সামাজিক ব্যাধি। এসব প্রতিরোধে সামাজিক আন্দোলন অব্যাহত আছে। এর সফলতা পাচ্ছি। তিনি বলেন, প্রতিশ্রুতির বাইরেও অনেক কাজ করেছি যার সুফল পাচ্ছেন পৌরবাসী।

এক প্রশ্নের জবাবে মেয়র হুমায়ুন কবির বাচ্চু বলেন, পৌরবাসীর কাছ থেকে আদায় করা করের অর্থ ময়লা-আবর্জনা অপসারণ, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন এবং সমাজকল্যাণমূলক কাজে ব্যয় করা হয়।

তিনি আরও বলেন, স্থানীয় সংসদ সদস্য নাহিম রাজ্জাকের সহযোগিতা নিয়ে পৌরসভার উন্নয়ন করে চলেছি। ইতিমধ্যেই অনেকগুলো উন্নয়ন প্রকল্প হাতে নিয়েছি। এগুলোর মধ্যে রয়েছে- যানবাহন নিরাপদ রাখার সুবিধার্থে নতুন স্ট্যান্ড নির্মাণ, রাস্তাঘাটের প্রশস্ততা বৃদ্ধি ইত্যাদি।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ছাত্র রাজনীতি থেকে অদ্যাবধি আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত আছি। দল নমিনেশন দিলে অবশ্যই নির্বাচন করব। দলের বাইরে কখনও যাইনি, ভবিষ্যতেও যাব না।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×