সম্রাটের সহযোগী সেলিমকে নিয়ে চাঁদপুরে নানা গুঞ্জন

  যুগান্তর রিপোর্ট ০৮ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সম্রাটের সহযোগী সেলিমকে নিয়ে চাঁদপুরে নানা গুঞ্জন

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাটের অন্যতম সহযোগী চাঁদপুরের মো. সেলিম খান। সম্রাটের হয়ে তিনি পুরান ঢাকার ফরাশগঞ্জ স্পোর্টিং ক্লাব নিয়ন্ত্রণ করতেন।

ক্যাসিনোবিরোধী অভিযানে সম্রাট গ্রেফতার হওয়ার পর ঢাকা ছেড়ে সেলিম খান চাঁদপুরে অবস্থান নেন। চাঁদপুর সদর উপজেলার ১০নং লক্ষ্মীপুর মডেল (সাখুয়া) ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি সেলিম খান।

তাকে গ্রেফতার করা নিয়ে দু-তিন দিন ধরে চাঁদপুরে নানা গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। কেউ বলছেন তিনি র‌্যাবের হাতে আটক হয়েছেন, আবার কেউ বলছেন তিনি ভারতে পালিয়ে গেছেন। তবে এ ব্যাপারে কোথাও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। মঙ্গলবার রাত থেকে বৃহস্পতিবার দিনভর সেলিম খানকে নিয়ে নানা রকম গুঞ্জন শোনা যায়।

চাঁদপুর জেলা সদর এলাকা এবং সদর উপজেলার লক্ষ্মীপুর ইউনিয়নে মঙ্গলবার রাতে র‌্যাব অভিযান চালায়। তবে র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে সেলিম খান আত্মগোপনে চলে যান। তার বিরুদ্ধে নদী দখল করে ডিজাইনবহির্ভূত স্থান থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ রয়েছে।

এছাড়া মেডিকেল কলেজ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের কথা বলে এলাকার সাধারণ মানুষের জমি ও বসতবাড়ি নামমাত্র দামে কেনা ও দখল এবং অস্ত্রধারী হোন্ডা বাহিনী নিয়ে এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করার অভিযোগ রয়েছে। তার বিরুদ্ধে ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জে নামে-বেনামে বিলাসবহুল বাড়ি নির্মাণ এবং সম্রাটের সহযোগী হয়ে ঢাকায় অবৈধ ক্যাসিনো ব্যবসা চালানোর অভিযোগ রয়েছে। চলচ্চিত্রেও তিনি বিপুল পরিমাণ অবৈধ অর্থ বিনিয়োগ করেছেন।

র‌্যাবের গণমাধ্যম শাখার সহকারী পরিচালক ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান জানান, সেলিম খানকে গ্রেফতারে চাঁদপুর র‌্যাব-১১ এর পক্ষ থেকে কোনো অভিযান চালানো হয়েছে কিনা তা নিশ্চিত হতে পারিনি।

তবে তার বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ অনুসন্ধান করছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

স্থানীয় একাধিক সূত্র জানায়, বুধবার র‌্যাবের একটি দল সেলিম খানকে গ্রেফতারের জন্য অভিযান চালায়। কিন্তু টের পেয়ে তিনি আত্মগোপনে চলে যান। তার পরিবারের কেউ জানেন না তিনি এখন কোথায় আছেন। তবে সর্বশেষ শনিবারও এলাকার লোকজন সেলিম খানকে চাঁদপুরে দেখেছেন।

তার বাহিনীর সদস্যরা বিভিন্ন স্থান থেকে তাকে আগেই তথ্য জানানোয় তিনি সরে পড়েন। এ কারণে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তাকে ধরতে পারছে না। সেলিম খানের অনুপস্থিতিতে সহযোগী সাঈদ মাস্টার, হোসেন বেপারি এবং জামাতা নাজির খান তার বাহিনী নিয়ন্ত্রণ করছেন বলে জানা গেছে ।

একটি সূত্র জানায়, চেয়ারম্যানের দায়িত্ব থেকে ১ মাসের ছুটি চেয়ে সম্প্রতি সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কানিজ ফাতেমা বরাবর সেলিম খান চিঠি দিয়েছেন। চিঠিতে তিনি ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হিসেবে অনির্বাচিত ইউপি মেম্বার ও তার মোটরসাইকেল বাহিনীর প্রধান হিসেবে এলাকায় পরিচিত মো. হোসেন বেপারির নাম প্রস্তাব করেছেন। এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক মো. মাজেদুর রহমান খান জানান, সেলিম খানের ছুটির বিষয়টি তিনি জানেন না।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×