ট্যাক্স কার্ডে ভুল তথ্য, কর কমিশনারকে শোকজ

  সাদ্দাম হোসেন ইমরান ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

এনবিআর
এনবিআর। ফাইল ছবি

সর্বোচ্চ কর দেয়া সত্ত্বেও ট্যাক্স কার্ডের তালিকায় একজন আইনজীবীর নাম অন্তর্ভুক্ত না করায় কর অঞ্চল-৮ এর কমিশনারকে শোকজ করা হয়েছে। আর এ ভুলের কারণে ট্যাক্স কার্ড নীতিমালায় উল্লিখিত ১৪১ ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানের পরিবর্তে ১৪২ ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানকে ট্যাক্স কার্ড দিতে হয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে (এনবিআর)।

গত ১৩ অক্টোবর এনবিআর থেকে কর কমিশনারকে পাঠানো কারণ দর্শানো নোটিশে বলা হয়েছে, ‘একজন সম্মাননা পাওয়ার যোগ্য করদাতা সম্মাননা প্রাপ্তির চূড়ান্ত মনোনয়নে অন্তর্ভুক্ত না হওয়ার ফলে এনবিআর অত্যন্ত বিব্রতকর অবস্থার সম্মুখীন হয়েছে। ফলে এনবিআরের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হয়েছে এবং বোর্ডের দক্ষতা ও কর্মনিষ্ঠা প্রশ্নের সম্মুখীন হয়েছে।’

নোটিশে ৩টি বিষয়ে জবাব দিতে বলা হয়েছে। এগুলো হচ্ছে- সংশ্লিষ্ট কর সার্কেল থেকে করদাতার নাম (ট্যাক্স কার্ড কিংবা জেলাভিত্তিক সম্মাননা) প্রাপ্তির জন্য প্রেরণ করা হয়েছিল কি না? কর সার্কেলগুলো থেকে প্রাপ্ত তালিকা থেকে চূড়ান্ত মনোনয়নের জন্য সব কর সার্কেলের কর্মকর্তা, রেঞ্জ কর্মকর্তা এবং কমিশনারসহ কোনো যাচাই-বাছাই সভায় অনুষ্ঠিত হয়েছিল কি না?

এ সভা অনুষ্ঠিত হলে এর কার্যবিবরণী এবং উপস্থিত কর্মকর্তাদের স্বাক্ষরসহ তালিকা নোটিশের জবাবের সঙ্গে যুক্ত করতে হবে; কমিশনার কার্যালয়ে কর সার্কেল থেকে পাঠানো তালিকা থেকে চূড়ান্ত নাম বাছাইয়ের ক্ষেত্রে কী পদ্ধতি অনুসরণ করা হয়েছে এবং চূড়ান্ত বাছাইয়ের সঙ্গে সম্পৃক্ত কর্মকর্তাদের নামের তালিকা। নোটিশের জবাব দিতে কমিশনারকে ৫ দিন বেঁধে দেয়া হয়েছে।

গতকাল কর কমিশনারের কারণ দর্শানো নোটিশের জবাব দেয়ার শেষ দিন ছিল। এ বিষয়ে জানতে চাইলে সেলিম আফজাল বলেন, ‘এটা ব্যক্তিগত গোপনীয় বিষয়। এ বিষয়ে কথা বলা যাবে না।’

২০১৬ সালের ৮ নভেম্বর জাতীয় ট্যাক্স কার্ড নীতিমালা সংশোধন করে ১৮ ক্যাটাগরিতে মোট ৭৬ জনকে ট্যাক্স কার্ড দেয়া হচ্ছে। ট্যাক্স কার্ডের জন্য ধারাবাহিকভাবে ৫ বছর নিয়মিত কর দিতে হয়। আদালত কর্তৃক দণ্ডাদেশপ্রাপ্ত বা ঋণখেলাপি হলে ব্যক্তিকে ট্যাক্স কার্ডের অযোগ্য বলে বিবেচনা করা হয়।

কর অঞ্চল থেকে পাঠানো সর্বোচ্চ করদাতাদের তালিকা এনবিআরের উচ্চক্ষমতাসম্পন্ন ট্যাক্স কার্ড মনোনয়ন কমিটি যাচাই-বাছাই শেষে ট্যাক্স কার্ডধারীদের গেজেট প্রকাশ করে। ট্যাক্স কার্ডধারী ব্যক্তি ৫ ধরনের সুবিধা পান।

এগুলো হচ্ছে- জাতীয় অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ; বিমান, সড়ক ও নৌপথে সরকারি যানবাহনে টিকিট প্রাপ্তিতে অগ্রাধিকার; সরকারি হাসপাতালে নিজের ও পরিবারের সদস্যদের জন্য অগ্রাধিকার ভিত্তিতে কেবিন সুবিধা; বিমানবন্দরে ভিআইপি লাউঞ্জ ব্যবহার এবং তারকা হোটেলসহ সব ধরনের হোটেল বুকিংয়ে অগ্রাধিকার সুবিধা। ট্যাক্স কার্ডের মেয়াদ এক বছর থাকে।

সর্বোচ্চ কর দেয়া সত্ত্বেও ট্যাক্স কার্ডের তালিকা থেকে বাদ পড়া আইনজীবী আহসানুল করিম যুগান্তরকে বলেন, ক্যাটাগরি ভিত্তিতে ট্যাক্স কার্ড দেয়ার শুরু থেকেই আইনজীবী ক্যাটাগরিতে সর্বোচ্চ ট্যাক্স কার্ড পেয়ে আসছি।

এবার পত্রিকায় সর্বোচ্চ করদাতাদের প্রকাশিত তালিকায় নিজের নাম দেখতে না পেয়ে বিস্মিত হয়ে সার্কেল অফিসে যোগাযোগ করি। সেখান থেকে এনবিআরে যোগাযোগ করতে বলা হলে বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নজরে আনি।

পরে এনবিআর চেয়ারম্যান ও আয়কর প্রশাসনের সদস্যের সহযোগিতায় গেজেট সংশোধন করে সাধারণ করদাতা ক্যাটাগরিতে ট্যাক্স কার্ড দেয়া হয়। তিনি আরও বলেন, এর আগেও অন্য কর অঞ্চলে এ ধরনের ভুল হয়েছে বলে শুনতে পেরেছি। এ ধরনের ভুল ভালো করদাতাদের কর দিতে নিরুৎসাহিত করে।

কর প্রশাসন ও মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা অনুবিভাগের সদস্য কালিপদ হালদার বলেন, তথ্যগত ভুলের কারণে একজন আইনজীবী ট্যাক্স কার্ডের তালিকা থেকে বাদ পড়ে। পরবর্তী সময়ে বিষয়টি নজরে এলে তার নাম অন্তর্ভুক্ত করে সম্মাননা দেয়া হয়। এ কারণে এবার ১৪১ ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানের পরিবর্তে ১৪২ ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানকে ট্যাক্স দেয়া হয়েছে।

এবার আইনজীবী ক্যাটাগরিতে ট্যাক্স কার্ড পেয়েছেন সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপস, অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট মাহবুবে আলম, এমসিসিআই সভাপতি ব্যারিস্টার নিহাদ কবির, আবু মোহাম্মদ আমিন উদ্দিন ও প্রবীণ আইনজীবী ব্যারিস্টার রফিক উল হক।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×