সাটুরিয়ায় সৌদি প্রবাসীর স্ত্রী-পুত্রকে গলা কেটে হত্যা

  মানিকগঞ্জ ও সাটুরিয়া প্রতিনিধি ১০ জানুয়ারি ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলার উত্তর কাওন্নারা এলাকায় সৌদি প্রবাসী মজনু মিয়ার বাড়িতে ঢুকে তার শিশু সন্তান নূর মোহাম্মদ (৭) ও স্ত্রী পারভীন বেগমকে (২৮) গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

বুধবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। বৃহস্পতিবার সকালে লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। সাটুরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মতিয়ার রহমান জানান, রাতের কোনো এক সময় পারভীন ও তার সন্তান নূরকে খুন করা হয়েছে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, উত্তর কাওন্নারা গ্রামের কারি মো. আবদুর রহমানের চার ছেলের মধ্যে তৃতীয় মো. মজনু মিয়া দীর্ঘদিন ধরে সৌদি আরবে থাকেন। তার বাসভবনের দ্বিতীয় তলার এক ফ্ল্যাটে খুন হন স্ত্রী ও ছেলে।

পাশের ফ্ল্যাটে থাকতেন তার বৃদ্ধ বাবা-মা। নিহত নূরের দাদি (মজনুর মা) জানান, বৃহস্পতিবার সকালে প্রাইভেট শিক্ষিকা রহিমা এসে বলেন, নূরের মায়ের ফোন বন্ধ কেন? তাকে ফোন করে পাচ্ছি না।

এ সময় তিনি (মজনুর মা) প্রথমে পাশের ফ্ল্যাটে ঢুকতেই দেখেন দরজা খোলা। ডেকে না পেয়ে প্রথমে ধারণা করেন হয়তো বৌমা ফজরের নামাজ পড়ছেন। একটু এগিয়ে কক্ষে ঢুকতেই দেখেন নূরের গলাকাটা লাশ।

পাশেই তার মায়ের গলাকাটা লাশ বিছানার ওপর পড়ে আছে। এরপরই তিনি আর্তচিৎকার দেন। চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা জড়ো হন।

স্থানীয়রা সাটুরিয়া থানায় খবর দিলে ওসি মো. মতিয়ার রহমান মিঞা ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে ফ্ল্যাট থেকে লাশ উদ্ধার করে হাসপাতাল মর্গে পাঠান। এরপর ১০টার দিকে ঘটনাস্থলে হাজির হয় মানিকগঞ্জ জেলা পিবিআই ও সিআইডি পুলিশের একটি টিম। কী কারণে এ ঘটনা ঘটল তা স্পষ্ট নয়। রহস্য উদ্ঘাটনের চেষ্টা করছে পিবিআই ও সিআইডি।

এ ব্যাপারে মানিকগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মহিউদ্দিন আহম্মেদ বলেন, রহস্য উদ্ঘাটনে জোর চেষ্টা অব্যাহত আছে। কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি। তবে তথ্য জানার স্বার্থে পরিবারের সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।

এদিকে নির্মম এ হত্যাকাণ্ডে প্রবাসী মজনু মিয়ার বাড়িতে শোকের মাতম চলছে। ঘটনার রাতে তার আরেক ছেলে আবদুল করিম (নূরের ভাই) মাদ্রাসায় ছিল।

খবর পেয়ে সে বাড়িতে এসে কান্নায় ভেঙে পড়ে। খবর পেয়ে টঙ্গীর এজতেমা থেকে ফিরে আসেন নূরের কাকা নান্নু মিয়া। বারবার মূর্ছা যাচ্ছিলেন তিনি। এ ঘটনায় পাগলপ্রায় নূরের দাদা-দাদি।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত