উদযাপন কমিটির সিদ্ধান্ত

মুজিববর্ষের পরিকল্পনা এ মাসেই চূড়ান্ত

শত ক্যামেরায় সরাসরি সম্প্রচার * কাল পরবর্তী সভা

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৪ জানুয়ারি ২০২০, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মুজিববর্ষের পরিকল্পনা এ মাসেই চূড়ান্ত

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষের বছরব্যাপী আয়োজনের পরিকল্পনা এ মাসের মধ্যে চূড়ান্ত করা হবে।

যার উদ্বোধন হবে ১৭ মার্চ রাজধানীর জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইন্সটিটিউট মিলনায়তনে বৃহস্পতিবার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির চতুর্থ সভা শেষে কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী এ তথ্য জানান।

বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম সভায় সভাপতিত্ব করেন। উপস্থিত ছিলেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল, সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, সাবেক সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, চিত্রনায়িকা কবরী, কবি মুহম্মদ নুরুল হুদা, কথাসাহিত্যিক আনিসুল হক, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি সাইফুল আলম ও সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন, পিআইবির মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদ, ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান, অ্যাসোসিয়েশন অব টিভি চ্যানেল ওনার্সের (অ্যাটকো) সভাপতি অঞ্জন চৌধুরী ও সিনিয়র সহসভাপতি মোজাম্মেল হক বাবু, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার, জাতীয় কবিতা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক তারিক সুজাত, বিটিভির মহাপরিচালক হারুন উর রশিদ প্রমুখ।

ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী বলেন, গত ১০ জানুয়ারি ক্ষণগণনার মধ্য দিয়েই কিন্তু মুজিববর্ষের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়ে গেছে। সারা দেশে এখন উৎসবের আমেজ চলছে। বছরব্যাপী এ আয়োজন সবার সঙ্গে পালনের জন্য আজকের এ সভা।

নানা বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছে, যা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদ্যাপন জাতীয় কমিটির সভাপতি বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা চূড়ান্ত করবেন। এর পরেই আমরা আনুষ্ঠানিকভাবে এ আয়োজন সম্পর্কে সবাইকে জানাতে পারব।

ড. চৌধুরী আরও বলেন, উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধান উপস্থিত থাকবেন। তবে কারা কারা থাকবেন, তা এখনও চূড়ান্ত হয়নি। এর জন্য পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কাজ করছে। তাদের কাজের অগ্রগতি রয়েছে। এ বিষয়েও পরে জানানো হবে।

১৭ মার্চের আগেই আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণের দিন রয়েছে সেখানে কোনো আয়োজন থাকছে কি না- জানতে চাইলে ড. চৌধুরী বলেন, দুটি দিবসেই আলাদা আলাদা আয়োজনের পরিকল্পনা রয়েছে।

এ ছাড়া এবারের অমর একুশে গ্রন্থমেলা এরই মধ্যে বঙ্গবন্ধুর নামে উৎসর্গ করা হয়েছে। আগামী বছর কলকাতা আন্তর্জাতিক বইমেলাও বঙ্গবন্ধুর নামে উৎসর্গ করা হবে।

অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম বলেন, আমরা বিভিন্ন পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছি। এগুলো প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে জাতীয় কমিটির বৈঠকে চূড়ান্ত হবে। ২৫ জানুয়ারি জাতীয় কমিটির পরবর্তী সভা অনুষ্ঠিত হবে।

আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, এটা বছরব্যাপী বিশাল কর্মযজ্ঞ। প্যারেড গ্রাউন্ডে বিশাল প্রাঙ্গণে এ আয়োজন করা হবে। কিন্তু সেখানেও সীমাবদ্ধতা রয়েছে। সে জন্য সারা দেশে এ আয়োজন ছড়িয়ে দিতে এলইডি স্ক্রিন স্থাপন করা হবে। যাতে সারা দেশের মানুষ একসঙ্গে এ আয়োজনে সম্পৃক্ত হতে পারেন।

অঞ্জন চৌধুরী বলেন, ১০০ ক্যামেরার মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর উদ্বোধনী আয়োজন সরাসরি সম্প্রচার করা হবে, যা ইতিহাস সৃষ্টি করবে। এরই মধ্যে আমরা সব বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে মুজিববর্ষের কাউন্টডাউন সম্প্রচার করেছি।

মোজাম্মেল হক বাবু বলেন, উদ্বোধনী অনুষ্ঠানস্থল জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে ১৮টি, রাজধানীর ১৮টি স্থান থেকে ১৮টি এবং ৬৪ জেলায় একটি করে মোট ১০০ ক্যামেরার মাধ্যমে এ আয়োজন সরাসরি সম্প্রচার করা হবে। যাতে পৃথিবীব্যাপী এ আয়োজন ছড়িয়ে পড়ে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

 
×