জরিপে আ’লীগ প্রার্থীর বিশাল বিজয় দেখছেন জয়
jugantor
দুই সিটি নির্বাচন
জরিপে আ’লীগ প্রার্থীর বিশাল বিজয় দেখছেন জয়

  যুগান্তর রিপোর্ট  

০১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন নিয়ে একটি জরিপের ফল প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে ও তার তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

জরিপের ওপর ভিত্তি করে বৃহস্পতিবার রাতে ফেসবুকে দেয়া এক স্ট্যাটাসে জয় দাবি করেছেন- নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দুই মেয়র প্রার্থীর বিপুল জয় হবে।

ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে জয় তার পোস্টে লিখেছেন, ‘ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণের মেয়র নির্বাচন নিয়ে আমরা সাম্প্রতিক সময়ে একটি জনমত জরিপ করিয়েছিলাম। উত্তরের ভোটারদের মধ্যে জরিপে অংশ নেন ১৩০১ ও দক্ষিণে ১২৪৫ জন।

ভোটার লিস্ট থেকে র‌্যান্ডম স্যাম্পলিংয়ের মাধ্যমে তাদের বাছাই করা হয়। জরিপটি করা হয় সামনাসামনি, অর্থাৎ, অনলাইনের মাধ্যমে নয়। মক ব্যালটের মাধ্যমে এই জরিপটি করার কারণে আমরা বা জরিপকারী কারোরই জানার সুযোগ থাকে না কে কাকে ভোট দিল।

জরিপ করার সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য ও নির্ভুল পদ্ধতি এটি। নির্ভয়ে নির্দ্বিধায় মানুষ জরিপে অংশগ্রহণ করতে পারে। তারপরও যারা কোনো অপশনই বেছে নেয় না। তাদের ভোট দেয়ার সম্ভাবনাই কম। কারণ সাধারণত কোনো নির্বাচনেই ১০০% ভোট পড়ে না। এই জরিপের ফলাফল ভুল হওয়ার সম্ভাবনা +-৩ %।’

জয় আরও লেখেন, ‘জরিপটি করা হয় যখন দলগুলো তাদের প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করে। তাই জরিপের সঙ্গে আসল ফলাফলের কিছুটা পার্থক্য হতেই পারে। তার পরও সেই পার্থক্য ৫-১০ শতাংশের বেশি হওয়ার সম্ভাবনা একেবারেই কম।

কারণ মাত্র এক মাসের ব্যবধানে ১০%-এর বেশি ভোট কোনো দলের পক্ষেই পরিবর্তন করে নিজেদের পক্ষে নিয়ে আসা কঠিন। তাই এই নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থীদের বিজয় শুধু নিশ্চিতই নয়, ব্যাপক ব্যবধানে জয়ও নিশ্চিত।’

ফেসবুক স্ট্যাটাসে জয় দুই সিটি নিয়ে জরিপের ফলাফলের দুটি গ্রাফিক্স যুক্ত করেছেন। এতে দেখা যাচ্ছে- ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী শেখ ফজলে নূর তাপসের পক্ষে সমর্থন আছে ৫৪ দশমিক ৩ শতাংশ ভোটারের।

এই সিটিতে বিএনপির প্রার্থী ইশরাক হোসেনের পক্ষে সমর্থন আছে ১৮ দশমিক ৭ শতাংশ। এ ছাড়া জাতীয় পার্টির প্রার্থী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলনের ২.২ শতাংশ সমর্থন রয়েছে। এই সিটির ১৬.৮ শতাংশ ভোটার সিদ্ধান্ত নেননি বলে জানিয়েছেন। এ ছাড়া ৪.২ শতাংশ উত্তর দেননি এবং ৩.৮ শতাংশ ভোটার ভোট না দেয়ার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন।

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আতিকুল ইসলামের পক্ষে ৫০ দশমিক ৭ শতাংশ ভোটারের সমর্থন রয়েছে। বিএনপির প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের পক্ষে আছেন ১৭ দশমিক ৪ শতাংশ ভোটার।

এ সিটিতে কামরুল ইসলাম নামে এক প্রার্থীর পক্ষে ১.৭ শতাংশ সমর্থন রয়েছে বলে জরিপে উল্লেখ করা হয়েছে। ২৫.৩ শতাংশ ভোটার ভোটের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেননি বলে জানিয়েছেন। এ ছাড়া উত্তর দেননি ৪.৪ শতাংশ ভোটার। ভোট দেবেন না বলে জানিয়েছেন শূন্য দশমিক ৫ শতাংশ।

দুই সিটি নির্বাচন

জরিপে আ’লীগ প্রার্থীর বিশাল বিজয় দেখছেন জয়

 যুগান্তর রিপোর্ট 
০১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন নিয়ে একটি জরিপের ফল প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে ও তার তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

জরিপের ওপর ভিত্তি করে বৃহস্পতিবার রাতে ফেসবুকে দেয়া এক স্ট্যাটাসে জয় দাবি করেছেন- নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দুই মেয়র প্রার্থীর বিপুল জয় হবে।

ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে জয় তার পোস্টে লিখেছেন, ‘ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণের মেয়র নির্বাচন নিয়ে আমরা সাম্প্রতিক সময়ে একটি জনমত জরিপ করিয়েছিলাম। উত্তরের ভোটারদের মধ্যে জরিপে অংশ নেন ১৩০১ ও দক্ষিণে ১২৪৫ জন।

ভোটার লিস্ট থেকে র‌্যান্ডম স্যাম্পলিংয়ের মাধ্যমে তাদের বাছাই করা হয়। জরিপটি করা হয় সামনাসামনি, অর্থাৎ, অনলাইনের মাধ্যমে নয়। মক ব্যালটের মাধ্যমে এই জরিপটি করার কারণে আমরা বা জরিপকারী কারোরই জানার সুযোগ থাকে না কে কাকে ভোট দিল।

জরিপ করার সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য ও নির্ভুল পদ্ধতি এটি। নির্ভয়ে নির্দ্বিধায় মানুষ জরিপে অংশগ্রহণ করতে পারে। তারপরও যারা কোনো অপশনই বেছে নেয় না। তাদের ভোট দেয়ার সম্ভাবনাই কম। কারণ সাধারণত কোনো নির্বাচনেই ১০০% ভোট পড়ে না। এই জরিপের ফলাফল ভুল হওয়ার সম্ভাবনা +-৩ %।’

জয় আরও লেখেন, ‘জরিপটি করা হয় যখন দলগুলো তাদের প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করে। তাই জরিপের সঙ্গে আসল ফলাফলের কিছুটা পার্থক্য হতেই পারে। তার পরও সেই পার্থক্য ৫-১০ শতাংশের বেশি হওয়ার সম্ভাবনা একেবারেই কম।

কারণ মাত্র এক মাসের ব্যবধানে ১০%-এর বেশি ভোট কোনো দলের পক্ষেই পরিবর্তন করে নিজেদের পক্ষে নিয়ে আসা কঠিন। তাই এই নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থীদের বিজয় শুধু নিশ্চিতই নয়, ব্যাপক ব্যবধানে জয়ও নিশ্চিত।’

ফেসবুক স্ট্যাটাসে জয় দুই সিটি নিয়ে জরিপের ফলাফলের দুটি গ্রাফিক্স যুক্ত করেছেন। এতে দেখা যাচ্ছে- ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী শেখ ফজলে নূর তাপসের পক্ষে সমর্থন আছে ৫৪ দশমিক ৩ শতাংশ ভোটারের।

এই সিটিতে বিএনপির প্রার্থী ইশরাক হোসেনের পক্ষে সমর্থন আছে ১৮ দশমিক ৭ শতাংশ। এ ছাড়া জাতীয় পার্টির প্রার্থী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলনের ২.২ শতাংশ সমর্থন রয়েছে। এই সিটির ১৬.৮ শতাংশ ভোটার সিদ্ধান্ত নেননি বলে জানিয়েছেন। এ ছাড়া ৪.২ শতাংশ উত্তর দেননি এবং ৩.৮ শতাংশ ভোটার ভোট না দেয়ার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন।

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আতিকুল ইসলামের পক্ষে ৫০ দশমিক ৭ শতাংশ ভোটারের সমর্থন রয়েছে। বিএনপির প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের পক্ষে আছেন ১৭ দশমিক ৪ শতাংশ ভোটার।

এ সিটিতে কামরুল ইসলাম নামে এক প্রার্থীর পক্ষে ১.৭ শতাংশ সমর্থন রয়েছে বলে জরিপে উল্লেখ করা হয়েছে। ২৫.৩ শতাংশ ভোটার ভোটের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেননি বলে জানিয়েছেন। এ ছাড়া উত্তর দেননি ৪.৪ শতাংশ ভোটার। ভোট দেবেন না বলে জানিয়েছেন শূন্য দশমিক ৫ শতাংশ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ঢাকার দুই সিটি নির্বাচন-২০২০

২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০