চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচন: টেকনিক্যাল বিষয় দেখভালে কেন্দ্রে সেনাবাহিনী থাকবে
jugantor
চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচন: টেকনিক্যাল বিষয় দেখভালে কেন্দ্রে সেনাবাহিনী থাকবে
-ইসি রফিকুল ইসলাম

  চট্টগ্রাম ব্যুরো  

২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ইসি রফিকুল ইসলাম

নির্বাচন কমিশনার (ইসি) রফিকুল ইসলাম বলেছেন, আমরা নির্বাচনে সব ধরনের পরিবেশ নিশ্চিত করার চেষ্টা করছি। আপনার ভোট আপনি কেন্দ্রে গেলেই দিতে পারবেন। কোনো ঝামেলা হবে না, এটুকু আশ্বস্ত করতে পারি। কেন্দ্রে সেনাবাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত থাকবেন। তারা টেকনিক্যাল বিষয়গুলো দেখবেন।

শুক্রবার সকালে চট্টগ্রাম আঞ্চলিক নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই সংক্রান্ত দিকনির্দেশনামূলক সভা শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

রফিকুল ইসলাম বলেন, নির্বাচন পেছানোর কোনো সুযোগ নেই। কারণ ১ এপ্রিল থেকে এইচএসসি পরীক্ষা শুরু হচ্ছে। চলবে মাসব্যাপী। এরপর রোজা এবং ঈদুল ফিতর রয়েছে। তাছাড়া বর্ষাকালে চট্টগ্রাম শহরে নির্বাচন কল্পনাও করা যায় না।

বিএনপি সেনা মোতায়েন চায়, এ ব্যাপারে কমিশন কী ভাবছে- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সিটি নির্বাচন কিংবা স্থানীয় সরকার নির্বাচনে কখনও আমরা সেনা মোতায়েন করিনি। এবারও করব না। কিন্তু কেন্দ্রে সেনাবাহিনীর উপস্থিতি থাকবে এবং সেটা পোশাকে। তবে অস্ত্র থাকবে না। তারা শুধু ইভিএমের টেকনিক্যাল বিষয়গুলো দেখবেন।

এ সময় চট্টগ্রাম আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ হাসানুজ্জামান, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মনির হোসেন খান, অতিরিক্ত আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ আতাউর রহমান, বশির আহমদ, রাঙ্গামাটি সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা শফিকুর রহমান, কক্সবাজার জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এসএম শাহাদাত হোসাইন, খাগড়াছড়ি জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা রাজু আহমেদ, কুমিল্লা জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর হোসেন তার সঙ্গে ছিলেন।

চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচন: টেকনিক্যাল বিষয় দেখভালে কেন্দ্রে সেনাবাহিনী থাকবে

-ইসি রফিকুল ইসলাম
 চট্টগ্রাম ব্যুরো 
২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
ইসি রফিকুল ইসলাম
ইসি রফিকুল ইসলাম।ছবি: যুগান্তর

নির্বাচন কমিশনার (ইসি) রফিকুল ইসলাম বলেছেন, আমরা নির্বাচনে সব ধরনের পরিবেশ নিশ্চিত করার চেষ্টা করছি। আপনার ভোট আপনি কেন্দ্রে গেলেই দিতে পারবেন। কোনো ঝামেলা হবে না, এটুকু আশ্বস্ত করতে পারি। কেন্দ্রে সেনাবাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত থাকবেন। তারা টেকনিক্যাল বিষয়গুলো দেখবেন।

শুক্রবার সকালে চট্টগ্রাম আঞ্চলিক নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই সংক্রান্ত দিকনির্দেশনামূলক সভা শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

রফিকুল ইসলাম বলেন, নির্বাচন পেছানোর কোনো সুযোগ নেই। কারণ ১ এপ্রিল থেকে এইচএসসি পরীক্ষা শুরু হচ্ছে। চলবে মাসব্যাপী। এরপর রোজা এবং ঈদুল ফিতর রয়েছে। তাছাড়া বর্ষাকালে চট্টগ্রাম শহরে নির্বাচন কল্পনাও করা যায় না।

বিএনপি সেনা মোতায়েন চায়, এ ব্যাপারে কমিশন কী ভাবছে- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সিটি নির্বাচন কিংবা স্থানীয় সরকার নির্বাচনে কখনও আমরা সেনা মোতায়েন করিনি। এবারও করব না। কিন্তু কেন্দ্রে সেনাবাহিনীর উপস্থিতি থাকবে এবং সেটা পোশাকে। তবে অস্ত্র থাকবে না। তারা শুধু ইভিএমের টেকনিক্যাল বিষয়গুলো দেখবেন।

এ সময় চট্টগ্রাম আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ হাসানুজ্জামান, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মনির হোসেন খান, অতিরিক্ত আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ আতাউর রহমান, বশির আহমদ, রাঙ্গামাটি সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা শফিকুর রহমান, কক্সবাজার জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এসএম শাহাদাত হোসাইন, খাগড়াছড়ি জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা রাজু আহমেদ, কুমিল্লা জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর হোসেন তার সঙ্গে ছিলেন।

 

ঘটনাপ্রবাহ : চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচন ২০২০

২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০