কোয়ারেন্টিন অমান্য, ১৬ জনকে জরিমানা

চট্টগ্রামে পৌঁছেনি রোগী শনাক্তের কিট

বরগুনায় ভারতীয় নাগরিকের রিপোর্ট মেলেনি ৪ দিনেও * ১০ জেলায় কোয়ারেন্টিনমুক্ত ১৯৭ জন

  যুগান্তর ডেস্ক ২৩ মার্চ ২০২০, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

চট্টগ্রামে পৌঁছেনি করোনা রোগী শনাক্তের কিট, কোয়ারেন্টিন অমান্য, ১৬ জনকে জরিমানা
ফাইল ছবি

চট্টগ্রামে করোনা রোগী শনাক্তের কিট পৌঁছেনি রোববারও। কবে নাগাদ আসবে তা-ও কেউ বলতে পারছেন না। এ নিয়ে হতাশা প্রকাশ করেছেন চিকিৎসকসহ সংশ্লিষ্টরা। এ ব্যাপারে চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি বলেন, বিআইটিআইডিতে কিট এলে আমাদের জানানো হবে।

তবে ওই হাসপাতালের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের একজন চিকিৎসক এবং দু’জন টেকনিশিয়ান এ বিষয়ে প্রশিক্ষণের জন্য ঢাকায় রয়েছেন। তারা প্রশিক্ষণ শেষ করে কিট নিয়ে আসবেন। তবে কবে নাগাদ তারা ঢাকা থেকে ফিরবেন সেটি আমাদের জানানো হয়নি। বরগুনায় আইসোলেশনে থাকা ভারতীয় নাগরিকের পরীক্ষার রিপোর্ট ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আসার কথা থাকলেও ৪ দিনেও আসেনি।

এদিকে সারা দেশে অনেকেই হোম কোয়ারেন্টিন নির্দেশনা মানছেন না। রোববার ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে আরও ১৬ জনকে প্রায় দেড় লাখ টাকা জরিমানা করেছেন। এদিন বিভিন্ন জেলা- উপজেলায় আরও কয়েকশ’ লোককে হোম কোয়ারেন্টিনে নেয়া হয়েছে। এদিকে নতুন করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতামূলক আলোচনা সভা, লিফলেট বিতরণসহ নানা কর্মসূচি পালিত হয়েছে বিভিন্ন এলাকায়। যুগান্তর রিপোর্ট, ব্যুরো ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

চট্টগ্রাম : বিদেশ ফেরত আরও ১১৬ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে। রোববার সকাল ৮টা পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আসা যাত্রীদের কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয় বলে জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় জানিয়েছে।

এ নিয়ে চট্টগ্রামে মোট ৯৭৩ জনকে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। এদিকে রোববার বিকাল পর্যন্ত চট্টগ্রামে করোনাভাইরাস শনাক্তের কিট আসেনি বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি। এর আগে বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে কিট সরবরাহ করার ঘোষণা দিয়েছিলেন বিভাগীয় কমিশনার এবিএম আজাদ।

তবে রোববার বিকাল পর্যন্ত কিট না আসায় এ নিয়ে হতাশা প্রকাশ করেছেন চিকিৎসকসহ সংশ্লিষ্টরা। সীতাকুণ্ডের ফৌজদারহাট এলাকায় অবস্থিত বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি)-এ শনাক্ত করা হবে করোনাভাইরাস। সেখানেই কিট আসার কথা রয়েছে।

বরগুনা : বরগুনা জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ১৭ মার্চ রাতে ভর্তি হওয়া সন্দেহভাজন ভারতীয় নাগরিক প্রমোদ প্যাটেলের পরীক্ষার রিপোর্ট ৪ দিনেও পৌঁছায়নি বরগুনা স্বাস্থ্য বিভাগে। বরগুনা জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. সোহরাব উদ্দিন বলেন, আইইডিসিআর থেকে ২৪ ঘণ্টার মধ্য রিপোর্ট পাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু আমরা পাইনি। এ নিয়ে আমরা কিছুটা চিন্তিত। জেলায় হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন ২৩০ জন।

ঝিনাইদহ : নতুন করে ৬৯ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। এদের মধ্যে বিদেশ ফেরত ৬৬ জন। এ নিয়ে জেলার ৬ উপজেলায় ৫৫৩ জন হোম কোয়ারেন্টিনে। জেলা প্রশাসনের নির্দেশে সব পশুর হাট বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। চায়ের দোকান থেকে শুরু করে সব ধরনের দোকান থেকে টেলিভিশন অপসারণসহ গান-বাজনা বন্ধ রাখার নির্দেশনা দিয়ে মাইকিং করা হয়েছে। এতে সড়কে মানুষের চলাচল কমে গেছে।

বরিশাল : বরিশাল বিভাগে ১ হাজার ৫১০ জনকে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। বরিশাল সিটি কর্পোরেশন এলাকায় ১০ জন, বরিশালে ৩৫৬ জন, পটুয়াখালীতে ২৮২ জন, ভোলায় ২৪৮ জন, পিরোজপুরে ২৪৯ জন, বরগুনায় ২২০ জন ও ঝালকাঠিতে ১৪৫ জনকে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন ৪৫০ জন। বগুড়া : ২৪ ঘণ্টায় ৩৮ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। এ নিয়ে গত কয়েকদিনে ৪৪৩ জন কোয়ারেন্টিনে। আর দুই সপ্তাহ অতিবাহিত হওয়ায় ৩৫ জনকে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে।

যশোর ও অভয়নগর : চৌগাছায় সৌদি ও ইতালি ফেরত ৯ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনমুক্ত করা হয়েছে। ১৪ দিন পূর্ণ হওয়ায় শনি ও রোববার তাদের মুক্ত ঘোষণা করা হয়। এ উপজেলা ও অভয়নগরে ‘হোম কোয়ারেন্টিনে’ আছেন ৪৯ জন।

গাইবান্ধা : জেলার বিভিন্ন স্থানে বিদেশ ফেরত ১০০ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। ১৪ দিন অতিক্রম হওয়ায় ২২ জনকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

কুড়িগ্রাম : ১৬৯ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় এ সংখ্যা ৯০। ১৪ দিন অতিবাহিত হওয়ায় ৪৭ জনকে মুক্ত করা হয়েছে।

জয়পুরহাট : জেলায় মোট ৭১ জন হোম কোয়ারেন্টিনে। এর মধ্যে ২৪ ঘণ্টায় নতুন আরও ১৪ জন। ১ জন রয়েছেন আইসোলেশনে। এদিকে জর্ডান ফেরত একজন নির্দেশনা না মানায় তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

নওগাঁ : ১ হাজার ৮৫ জন হোম কোয়ারেন্টিনে। এ ছাড়া ৪২ জনকে ছাত্রপত্র দেয়া হয়েছে। রোববার এ তথ্য জানান সিভিল সার্জন ডা. আখতারুজ্জামান আলাল।

খুলনা : ১ হাজার ১০৭ জন বিদেশ ফেরত হোম কোয়ারেন্টিনে। ১৭ জনকে মেয়াদ শেষ হওয়ায় ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ : গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩৮ জন বেড়ে হোম কেয়ারেন্টিনে আছেন ৫০৯ জন। শনিবার এ সংখ্যা ছিল ৩৭১ জন।

শেরপুর : রোববার হোম কোয়ারেন্টিন না মানায় ভারত ফেরত একজনকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এদিন আরও ৩৯ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে নেয়া হয়। এ নিয়ে জেলায় মোট ৯৮ জন।

নেত্রকোনা : নেত্রকোনায় বিদেশ ফেরত ৮২১ জনকে খুঁজছে পুলিশ। জেলা সিভিল সার্জন অফিসের তথ্যমতে, মোট বিদেশ ফেরত ৯১৫ জনের মধ্যে ৯৪ জনকে ‘হোম কোয়ারেন্টিনে’ রাখা হয়েছে। ১৪ দিন পূর্ণ হওয়ায় ১০ জনকে রিলিজ দেয়া হয়েছে।

নরসিংদী : বিদেশ ফেরত আরও শতাধিক লোককে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। এ নিয়ে মোট ২০৫ জন কোয়ারেন্টিনে। এ পর্যন্ত ৭ জনকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

নীলফামারী : নীলফামারীর বড় বাজারে ভারত ফেরত এক যুবককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

হবিগঞ্জ, মাধবপুর ও চুনারুঘাট : হবিগঞ্জ সদর ও মাধবপুরে দুই প্রবাসীকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। চুনারুঘাটে হোম কোয়ারেন্টিনে ৬৭ জন।

চুয়াডাঙ্গা : উপজেলার দৌলাতদিয়াড় গ্রামে এক মালয়েশিয়া প্রবাসীকে ৩ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

ফরিদগঞ্জ (চাঁদপুর) : উপজেলার গাজীপুর এলাকায় এক সৌদি প্রবাসীকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

কোটালীপাড়া (গোপালগঞ্জ) : যুক্তরাজ্য প্রবাসীকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

উল্লাপাড়া (সিরাজগঞ্জ) : বিদেশ থেকে আসা ২৩৫ জনের মধ্যে ৫০ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে নেয়া সম্ভব হয়েছে। বাকিরা অবাধে ঘোরাফেরা করায় জনমনে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।

দাগনভূঞা (ফেনী) : উপজেলার পূর্বচন্দ্রপুর ইউনিয়নে দুটি বিয়ের অনুষ্ঠানে গণজমায়েত বন্ধ করে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। এদিকে এক প্রবাসীকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) : হোম কোয়ারেন্টিন না মানায় দুই দুবাই প্রবাসীকে ৮ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

সাভার (ঢাকা) : ঢাকার সাভারে আরও ১১ জনকে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে। হোম কোয়ারেন্টিন না মানায় দুবাই ফেরত একজনকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

ঠাকুরগাঁও : নির্দেশনা অমান্য করায় ৪ প্রবাসীকে ২১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) : ধীতপুর এলাকায় এক সৌদি প্রবাসীকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

রংপুর : ২৪ ঘণ্টায় রংপুর বিভাগের আট জেলায় হোম কোয়ারেন্টিনে গেছেন বিদেশ ফেরত আরও ৫৩৯ জন। এ নিয়ে এ বিভাগে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকছেন ১ হাজার ২৮৪ জন।

সিলেট : সিলেট বিভাগের চার জেলায় রোববার সকাল ৮টা পর্যন্ত নতুন করে ৩১৮ জন হোম কোয়ারেন্টিনে গেছেন। এর মধ্যে সিলেটে ৪৫, মৌলভীবাজারে ৫৭, হবিগঞ্জে ১২১ ও সুনামগঞ্জে ৯৫ জন। আর ৬৭ জনকে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে।

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

আরও

'কোভিড-১৯' সর্বশেষ আপডেট

# আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ ৫৬ ২৬
বিশ্ব ৯,৬২,৮৮২২,০৩,২৭৪৪৯,১৯১
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

 
×