উধাও বৈদেশিক সহায়তা প্রত্যাশিত ৯৪ প্রকল্প!
jugantor
এডিপি ২০২০-২১
উধাও বৈদেশিক সহায়তা প্রত্যাশিত ৯৪ প্রকল্প!
চলতি অর্থবছরে সংশোধিত এডিপিতে ছিল ১৯০টি উন্নয়ন প্রকল্প, আগামী অর্থবছরে যুক্ত হচ্ছে ৯৬টি * বাকি প্রকল্পের খোঁজ জানে না ইআরডি ও পরিকল্পনা কমিশন

  হামিদ-উজ-জামান  

১৪ মে ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেটে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি (এডিপি) থেকে উধাও হয়ে গেছে বৈদেশিক সহায়তা প্রত্যাশিত ৯৪টি উন্নয়ন প্রকল্প। চলতি অর্থবছরের সংশোধিত এডিপিতে বৈদেশিক সহায়তা প্রাপ্তির সুবিধার্থে বরাদ্দহীন অননুমোদিত নতুন প্রকল্প তালিকায় ১৯০টি প্রকল্প যুক্ত করা হয়।

সম্প্রতি আগামী অর্থবছরের নতুন এডিপিতে এ তালিকায় যুক্ত করা হচ্ছে ৯৬টি উন্নয়ন প্রকল্প। তবে কি কারণে বাকি ৯৪টি প্রকল্প তালিকাভুক্ত করা হয়নি, সে ব্যাপারে সুনির্দিষ্টভাবে কোনো তথ্য দিতে পারেনি ইআরডি এবং পরিকল্পনা কমিশন।

এ প্রসঙ্গে বিশ্বব্যাংক ঢাকা অফিসের সাবেক লিড ইকোনমিস্ট ড. জাহিদ হোসেন বুধবার যুগান্তরকে বলেন, যদি বিচার-বিবেচনা করে বাদ দেয়া হতো এবং বলা হতো করোনার কারণে আগামী অর্থবছর প্রকল্প সীমিত রাখা হবে। তাই এসব প্রকল্প এডিপিতে রেখে কাজ নেই। তাহলে সেটি হতো সুবিবেচনাপ্রসূত কাজ।

কিন্তু এক্ষেত্রে এটি করা হয়নি। হঠাৎ করেই কোনো কারণ ছাড়াই এত প্রকল্প উধাও হয়ে যাবে সেটি কি করে হয়? চলতি অর্থবছরের সংশোধিত এডিপিতে প্রকল্পগুলো রাখা হয়েছিল মানে সেগুলোর গুরুত্ব ছিল। এবং সেগুলো করোনা মোকাবেলায় কাজেও আসতে পারত। বর্তমান অবস্থায় মনে হচ্ছে- এ কুলও গেল, ও কুলেও কিছু হল না পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। এটি কাম্য নয় খতিয়ে দেখা উচিত।

সূত্র জানায়, ১৯ মার্চ চলতি অর্থবছরের সংশোধিত এডিপি (আরএডিপি) অনুমোদন দেয় জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদ (এনইসি)। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওই সভার পর করোনার কারণে আর কোনো বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়নি। জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির বৈঠক না হওয়ায় স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় কোনো প্রকল্প অনুমোদনও স্থগিত ছিল। সেই সঙ্গে এ সময়ে বৈদেশিক করোনাসংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্য খাতের দুটি প্রকল্প ছাড়া বৈদেশিক সহায়তা প্রত্যাশী তালিকা কোনো কোনো প্রকল্পের ঋণ চুক্তিও স্বাক্ষরিত হয়নি। তাহলে ৯৪টি প্রকল্প কোথায়? এ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন সংশ্লিষ্টরা।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব ফাতিমা ইয়াসমিন মঙ্গলবার পরিকল্পনা কমিশনের বর্ধিত সভা শেষে যুগান্তরকে বলেন, আমি জানি না সংশোধিত এডিপিতে কি হয়েছে। তবে আগামী অর্থবছরের এডিপিতে ক’টা প্রকল্প যুক্ত হচ্ছে সেসব বিষয় নিয়েই বর্ধিত সভায় আলোচনা হয়েছে। এ বিষয়ে বলতে পারি।

আগামী অর্থবছরের এডিপি খসড়া পর্যালোচনা করে দেখা যায় চলতি অর্থবছরের সংশোধিত এডিপিতে (আরএডিপি) কৃষি খাতে বৈদেশিক সহায়তা প্রাপ্তির সুবিধার্থে বরাদ্দহীন অননুমোদিত তালিকায় ছিল ১৬টি উন্নয়ন প্রকল্প। কিন্তু আগামী অর্থবছরের এডিপিতে সেখান থেকে ১১টি কমিয়ে যুক্ত করা হচ্ছে পাঁচটি প্রকল্প।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে কৃষি মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম প্রধান (পরিকল্পনা) মো. রেজাউল করিম বলেন, এটি আমার জানা নেই। না দেখে কিছুই বলতে পারব না। কেননা কৃষি সেক্টরে শুধু কৃষি মন্ত্রণালয়ের প্রকল্পই যুক্ত নয়। এর সঙ্গে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ও রয়েছে। সুতরাং কোনো মন্ত্রণালয় থেকে কমানো হয়েছে আমার জানা নেই। দেখে বলতে পারব। চলতি অর্থবছরের আরএডিপিতে পরিবহন খাতে বৈদেশিক সহায়তার জন্য প্রকল্প ছিল ১০৫টি। কিন্তু আগামী অর্থবছরে এডিপিতে যোগ হচ্ছে মাত্র ৩৬টি প্রকল্প। বাদ যাচ্ছে ৬৯টি প্রকল্প। তবে দু-একটি খাতে নতুনভাবেও যোগ করা হচ্ছে প্রকল্প।

জানতে চাইলে পরিকল্পনা সচিব মো. নূরুল আমিন যুগান্তরকে বলেন, আরএডিপিতে থাকা ওইসব প্রকল্প কোথায় আছে, সে বিষয়ে সঠিকভাবে বলতে পারছি না। তবে আগামী অর্থবছরের এডিপিতে যে ৯৬টি প্রকল্প তালিকাভুক্ত করা হয়েছে আমরা চাই ইআরডি যাতে এগুলো নিয়ে কাজ করে। অর্থাৎ উন্নয়ন সহযোগীদের সঙ্গে বৈদেশিক সহায়তা প্রাপ্তির জন্য যোগাযোগ অব্যাহত রাখে।

পরিকল্পনা কমিশন সূত্র জানায়- পল্লী উন্নয়ন ও পল্লী প্রতিষ্ঠান খাতে আরএডিপিতে তিনটি প্রকল্প থাকলেও নতুন এডিপিতে ধরা হচ্ছে একটি প্রকল্প। পানি সম্পদ খাতে ছয়টি প্রকল্পের স্থলে ধরা হচ্ছে একটি প্রকল্প। এছাড়া বিদ্যুৎ খাতে ২৯টি প্রকল্পের স্থলে নতুন এডিপিতে ধরা হচ্ছে ২১টি প্রকল্প। শিক্ষা ও ধর্ম খাতে আরএডিপিতে ১৭টি প্রকল্প থাকলেও নতুন এডিপিতে যুক্ত হচ্ছে ছয়টি প্রকল্প।

তৈল-গ্যাস ও প্রাকৃতিক সম্পদ খাত, গণসংযোগ খাত, যোগাযোগ খাত, ক্রীড়া ও সংস্কৃতি, সমাজকল্যাণ ও মহিলা বিষয়ক খাত এবং বিজ্ঞান, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি খাতে কোনো প্রকল্পই রাখা হয়নি। অন্যদিকে আরএডিপিতে একটিও না থাকলেও আগামী অর্থবছরের এডিপিতে যুক্ত হচ্ছে ভৌত-পরিকল্পনা ও পানি সরবরাহ খাতের ১২টি প্রকল্প। এছড়া আগে না থাকলেও শ্রম ও কর্মসংস্থান খাতে নতুন করে যোগ হচ্ছে পাঁচটি প্রকল্প। স্বাস্থ্য, পুষ্টি, জনসংখ্যা ও পরিবার কল্যাণ খাতে আরএডিপিতে দুটি প্রকল্প ছিল এ তালিকায়। কিন্তু করোনার কারণে নতুন এডিপিতে দুটি বাড়িয়ে মোট চারটি প্রকল্প যুক্ত করা হচ্ছে।

এডিপি ২০২০-২১

উধাও বৈদেশিক সহায়তা প্রত্যাশিত ৯৪ প্রকল্প!

চলতি অর্থবছরে সংশোধিত এডিপিতে ছিল ১৯০টি উন্নয়ন প্রকল্প, আগামী অর্থবছরে যুক্ত হচ্ছে ৯৬টি * বাকি প্রকল্পের খোঁজ জানে না ইআরডি ও পরিকল্পনা কমিশন
 হামিদ-উজ-জামান 
১৪ মে ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেটে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি (এডিপি) থেকে উধাও হয়ে গেছে বৈদেশিক সহায়তা প্রত্যাশিত ৯৪টি উন্নয়ন প্রকল্প। চলতি অর্থবছরের সংশোধিত এডিপিতে বৈদেশিক সহায়তা প্রাপ্তির সুবিধার্থে বরাদ্দহীন অননুমোদিত নতুন প্রকল্প তালিকায় ১৯০টি প্রকল্প যুক্ত করা হয়।

সম্প্রতি আগামী অর্থবছরের নতুন এডিপিতে এ তালিকায় যুক্ত করা হচ্ছে ৯৬টি উন্নয়ন প্রকল্প। তবে কি কারণে বাকি ৯৪টি প্রকল্প তালিকাভুক্ত করা হয়নি, সে ব্যাপারে সুনির্দিষ্টভাবে কোনো তথ্য দিতে পারেনি ইআরডি এবং পরিকল্পনা কমিশন।

এ প্রসঙ্গে বিশ্বব্যাংক ঢাকা অফিসের সাবেক লিড ইকোনমিস্ট ড. জাহিদ হোসেন বুধবার যুগান্তরকে বলেন, যদি বিচার-বিবেচনা করে বাদ দেয়া হতো এবং বলা হতো করোনার কারণে আগামী অর্থবছর প্রকল্প সীমিত রাখা হবে। তাই এসব প্রকল্প এডিপিতে রেখে কাজ নেই। তাহলে সেটি হতো সুবিবেচনাপ্রসূত কাজ।

কিন্তু এক্ষেত্রে এটি করা হয়নি। হঠাৎ করেই কোনো কারণ ছাড়াই এত প্রকল্প উধাও হয়ে যাবে সেটি কি করে হয়? চলতি অর্থবছরের সংশোধিত এডিপিতে প্রকল্পগুলো রাখা হয়েছিল মানে সেগুলোর গুরুত্ব ছিল। এবং সেগুলো করোনা মোকাবেলায় কাজেও আসতে পারত। বর্তমান অবস্থায় মনে হচ্ছে- এ কুলও গেল, ও কুলেও কিছু হল না পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। এটি কাম্য নয় খতিয়ে দেখা উচিত।

সূত্র জানায়, ১৯ মার্চ চলতি অর্থবছরের সংশোধিত এডিপি (আরএডিপি) অনুমোদন দেয় জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদ (এনইসি)। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওই সভার পর করোনার কারণে আর কোনো বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়নি। জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির বৈঠক না হওয়ায় স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় কোনো প্রকল্প অনুমোদনও স্থগিত ছিল। সেই সঙ্গে এ সময়ে বৈদেশিক করোনাসংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্য খাতের দুটি প্রকল্প ছাড়া বৈদেশিক সহায়তা প্রত্যাশী তালিকা কোনো কোনো প্রকল্পের ঋণ চুক্তিও স্বাক্ষরিত হয়নি। তাহলে ৯৪টি প্রকল্প কোথায়? এ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন সংশ্লিষ্টরা।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব ফাতিমা ইয়াসমিন মঙ্গলবার পরিকল্পনা কমিশনের বর্ধিত সভা শেষে যুগান্তরকে বলেন, আমি জানি না সংশোধিত এডিপিতে কি হয়েছে। তবে আগামী অর্থবছরের এডিপিতে ক’টা প্রকল্প যুক্ত হচ্ছে সেসব বিষয় নিয়েই বর্ধিত সভায় আলোচনা হয়েছে। এ বিষয়ে বলতে পারি।

আগামী অর্থবছরের এডিপি খসড়া পর্যালোচনা করে দেখা যায় চলতি অর্থবছরের সংশোধিত এডিপিতে (আরএডিপি) কৃষি খাতে বৈদেশিক সহায়তা প্রাপ্তির সুবিধার্থে বরাদ্দহীন অননুমোদিত তালিকায় ছিল ১৬টি উন্নয়ন প্রকল্প। কিন্তু আগামী অর্থবছরের এডিপিতে সেখান থেকে ১১টি কমিয়ে যুক্ত করা হচ্ছে পাঁচটি প্রকল্প।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে কৃষি মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম প্রধান (পরিকল্পনা) মো. রেজাউল করিম বলেন, এটি আমার জানা নেই। না দেখে কিছুই বলতে পারব না। কেননা কৃষি সেক্টরে শুধু কৃষি মন্ত্রণালয়ের প্রকল্পই যুক্ত নয়। এর সঙ্গে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ও রয়েছে। সুতরাং কোনো মন্ত্রণালয় থেকে কমানো হয়েছে আমার জানা নেই। দেখে বলতে পারব। চলতি অর্থবছরের আরএডিপিতে পরিবহন খাতে বৈদেশিক সহায়তার জন্য প্রকল্প ছিল ১০৫টি। কিন্তু আগামী অর্থবছরে এডিপিতে যোগ হচ্ছে মাত্র ৩৬টি প্রকল্প। বাদ যাচ্ছে ৬৯টি প্রকল্প। তবে দু-একটি খাতে নতুনভাবেও যোগ করা হচ্ছে প্রকল্প।

জানতে চাইলে পরিকল্পনা সচিব মো. নূরুল আমিন যুগান্তরকে বলেন, আরএডিপিতে থাকা ওইসব প্রকল্প কোথায় আছে, সে বিষয়ে সঠিকভাবে বলতে পারছি না। তবে আগামী অর্থবছরের এডিপিতে যে ৯৬টি প্রকল্প তালিকাভুক্ত করা হয়েছে আমরা চাই ইআরডি যাতে এগুলো নিয়ে কাজ করে। অর্থাৎ উন্নয়ন সহযোগীদের সঙ্গে বৈদেশিক সহায়তা প্রাপ্তির জন্য যোগাযোগ অব্যাহত রাখে।

পরিকল্পনা কমিশন সূত্র জানায়- পল্লী উন্নয়ন ও পল্লী প্রতিষ্ঠান খাতে আরএডিপিতে তিনটি প্রকল্প থাকলেও নতুন এডিপিতে ধরা হচ্ছে একটি প্রকল্প। পানি সম্পদ খাতে ছয়টি প্রকল্পের স্থলে ধরা হচ্ছে একটি প্রকল্প। এছাড়া বিদ্যুৎ খাতে ২৯টি প্রকল্পের স্থলে নতুন এডিপিতে ধরা হচ্ছে ২১টি প্রকল্প। শিক্ষা ও ধর্ম খাতে আরএডিপিতে ১৭টি প্রকল্প থাকলেও নতুন এডিপিতে যুক্ত হচ্ছে ছয়টি প্রকল্প।

তৈল-গ্যাস ও প্রাকৃতিক সম্পদ খাত, গণসংযোগ খাত, যোগাযোগ খাত, ক্রীড়া ও সংস্কৃতি, সমাজকল্যাণ ও মহিলা বিষয়ক খাত এবং বিজ্ঞান, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি খাতে কোনো প্রকল্পই রাখা হয়নি। অন্যদিকে আরএডিপিতে একটিও না থাকলেও আগামী অর্থবছরের এডিপিতে যুক্ত হচ্ছে ভৌত-পরিকল্পনা ও পানি সরবরাহ খাতের ১২টি প্রকল্প। এছড়া আগে না থাকলেও শ্রম ও কর্মসংস্থান খাতে নতুন করে যোগ হচ্ছে পাঁচটি প্রকল্প। স্বাস্থ্য, পুষ্টি, জনসংখ্যা ও পরিবার কল্যাণ খাতে আরএডিপিতে দুটি প্রকল্প ছিল এ তালিকায়। কিন্তু করোনার কারণে নতুন এডিপিতে দুটি বাড়িয়ে মোট চারটি প্রকল্প যুক্ত করা হচ্ছে।