নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও বিদেশ গমন

মোরশেদ খান গর্হিত অপরাধ করেছেন: দুদক আইনজীবী

  যুগান্তর রিপোর্ট ০১ জুন ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ফাইল ছবি

দুর্নীতি দমন কমিশনের নিষেধাজ্ঞা থাকার পরও জামিনে থাকা সাবেক মন্ত্রী এম মোরশেদ খানের বিদেশ যাওয়াকে গর্হিত অপরাধ বলে মনে করছেন দুদক আইনজীবী অ্যাডভোকেট খুরশীদ আলম খান।

রোববার তিনি সাংবাদিকদের বলেন, এম মোরশেদ খান, তার স্ত্রী এবং ছেলের বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলা রয়েছে, যা চলমান। এ অবস্থায় ২০১৯ সালের ১০ জুন এবং চলতি বছরের ২৬ মে দুর্নীতি দমন কমিশন তাদের বিদেশ যেতে নিষেধাজ্ঞা জারি করে। ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করে। নিষেধাজ্ঞার দু’দিনের মাথায় কিভাবে দেশ ত্যাগ করলেন সেটি সন্দেহের উদ্রেক করে।

খুরশীদ আলম খান বলেন, নিষেধাজ্ঞার পরও এম মোরশেদ খান কিভাবে দেশ ত্যাগ করলেন ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষকে জিজ্ঞাসাবাদ করা উচিত। বিষয়টি গুরুত্বসহকারে দেখা দরকার। তবেই আসল সত্য বেরিয়ে আসবে।

দুদকের আইনজীবী বলেন, এম মোরশেদ খান এবং তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের একটি মামলা আপিল বিভাগে পেন্ডিং। যে মামলায় তাদের সাজা দিয়েছিলেন বিশেষ আদালত।

হাইকোর্ট এ মামলায় খালাস দিলে দুর্নীতি দমন কমিশন আপিল করে। আপিলে লিভ গ্র্যান্ট হয়। এখন মামলাটি আপিল বিভাগে বিচারাধীন।

তিনি আরও বলেন, তার বিরুদ্ধে মানি লন্ডারিংয়ের একটি মামলা পেন্ডিং। যে মামলায় হাইকোর্ট তাকে আদেশ দিয়েছিলেন নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণ করার জন্য। তিনি নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন নিয়েছেন। জামিন নিয়ে আদালতকে অবহিত না করে বিদেশ যাওয়া গর্হিত অপরাধ। নিয়মিত আদালত খুললে বিষয়টি আদালতের নজরে আনা হবে।

শুক্রবার একটি বিদেশি এয়ারলাইন্স কোম্পানির চার্টার্ড ফ্লাইটে (ভাড়া করা বিমান) করে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করেন মোরশেদ খান ও তার স্ত্রী। ফ্লাইটে যাত্রী ছিলেন কেবল তারা দু’জনই।

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

আরও

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত