চিকিৎসা মেলেনি কোথাও

সিলেটে এবার সাত হাসপাতাল ঘুরে বৃদ্ধার মৃত্যু

  সিলেট ব্যুরো ০৪ জুন ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সিলেট নগরীর ৭টি বেসরকারি হাসপাতাল ঘুরে চিকিৎসা না পেয়ে মারা গেছেন এক বৃদ্ধা (৭০)। মৃত ওই নারী স্ট্রোক করেছিলেন, তার আইসিইউ সেবা প্রয়োজন ছিল। পরিবারের অভিযোগ, করোনা পরিস্থিতির মধ্যে শ্রীমঙ্গল থেকে অ্যাম্বুলেন্সে সিলেটে এসে তাকে নিয়ে একের পর এক হাসপাতাল ঘুরতে হয়েছে। তবুও কোনো হাসপাতালই রোগীকে ভর্তি করেনি।

বৃদ্ধার আত্মীয় মাজহারুল আলম মাসুম জানান, মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গলের কালিঘাট রোড এলাকার বাসিন্দা ওই নারী দীর্ঘদিন ধরে প্রেসার ও ডায়বেটিসজনিত রোগে ভুগছেন। রোববার সন্ধ্যায় তিনি বাথ রুমের ভেতর স্ট্রোক করেন। তখন স্থানীয় চিকিৎসক তাকে দেখে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে আইসিইউতে ভর্তি করার পরামর্শ দেন। তখন তারা সঙ্গে সঙ্গে রোগীকে নিয়ে অ্যাম্বুলেন্সে মৌলভীবাজারের উদ্দেশে রওনা হন। কিন্তু মৌলভীবাজারের কোনো হাসপাতালে আইসিইউ সেবা না থাকায় তারা রোগীকে অক্সিজেন দিয়ে সিলেটের উদ্দেশে রওনা হন। সিলেটে প্রবেশ করেই তারা রোগীকে নিয়ে দক্ষিণ সুরমার নর্থ ইস্ট হাসপাতালে যান। সেখানে বারবার অনুরোধ করা সত্ত্বেও কোনো চিকিৎসক রোগীর কাছে আসেননি। এমনকি রোগীর অক্সিজেন শেষ হয়ে যাচ্ছে বললেও তারা সাড়া দেননি। তিনি জানান, রোগীর অবস্থা ক্রমশ খারাপ হতে দেখে তারা নর্থ ইস্ট হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে একে একে সিলেট নগরীর ওয়েসিস হসপিটাল, আল হারামাইন হসপিটাল, ইবনেসিনা হাসাপাতাল, মাউন্ট এডোরা, উইমেন্স মেডিকেল কলেজ হসপিটাল এবং নুরজাহান হসপিটালে নিয়ে যান। কিন্তু কোনোটিতেই রোগীকে ভর্তি করা দূরের কথা কোনো চিকিৎসক রোগীর কাছেও আসেননি। ৭টি হাসপাতাল ঘুরে সংকটাপন্ন রোগীকে নিয়ে ওসমানী হাসপাতালের দিকে রওনা হয় অ্যাম্বুলেন্স। রাত সোয়া ১টার দিকে ওসমানী হাসপাতালের গেটে পৌঁছামাত্র ওই নারী মারা যান। হাসপাতালের ইর্মাজেন্সিতে কর্তব্যরত চিকিৎসক রোগীকে মৃত ঘোষণা করেন।

দেশের সব সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে কোভিড-১৯ রোগীদের চিকিৎসা দেয়ার সরকারি নির্দেশনা থাকার পরও সংকটাপন্ন অবস্থায় সিলেটের কয়েকটি বেসরকারি হাসপাতাল ভর্তি না করায় ক্ষোভ জানিয়েছেন মারা যাওয়া রোগীর পরিবারের স্বজনরা। এ বিষয়ে আইনি ব্যবস্থা নেয়ার কথা চিন্তা করছে মৃতের পরিবারের সদস্যরা।

এর আগে, ৩১ মে দীর্ঘদিন ধরে শ্বাসকষ্টে ভোগা নগরীর কাজীটুলা এলাকার বাসিন্দা এক নারী অসুস্থ হলে সিলেটের ৬টি বেসরকারি হাসপাতাল ঘুরেও চিকিৎসা পাননি। পরে ওসমানী হাসপাতালে যাওয়ার পথে তারও মৃত্যু হয়।

এ ব্যাপারে সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. প্রেমানন্দ মণ্ডলের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

স্বাস্থ্য অধিদফতর সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক ডা. আনিসুর রহমান বলেন, বিচ্ছিন্ন ভাবে এ ধরনের অভিযোগ আসে। তবে লিখিতভাবে অভিযোগ পেলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে। প্রত্যেকটি বেসরকারি হাসপাতালে নির্দেশনা দেয়া আছে রোগীদের পর্যাপ্ত সেবা দেয়ার। কেউ সেটি না দিলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে। তিনি গুরুতর অসুস্থ রোগীদের একের পর এক বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে না ঘুরে সরকারি হাসপাতালে যাওয়ার পরামর্শ দেন।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত