তালিকায় শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র সপ্তম বাংলাদেশ

বিশ্বে সক্রিয় করোনা রোগী ৪৮ লাখ

  যুগান্তর ডেস্ক ১৩ জুলাই ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এক কোটি ২৮ লাখের বেশি মানুষ। এর মধ্যে সক্রিয় বা চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা ৪৮ লাখ। সক্রিয় রোগীর বৈশ্বিক তালিকায় শীর্ষে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। আক্রান্ত রোগীর তালিকায়ও দেশটি সবার ওপরে। যুক্তরাষ্ট্রে মোট চিকিৎসাধীন রোগী ১৭ লাখের বেশি। এ তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান সপ্তম। দেশে সক্রিয় রোগী ৮৭ হাজারের বেশি। এক্ষেত্রে বাংলাদেশ পাকিস্তান, চিলি, মেক্সিকো, তুরস্ক ও ইতালির মতো ব্যাপক সংক্রমিত দেশগুলোকেও পেছনে ফেলেছে। এদিকে ইতালিতে ফের করোনা সংক্রমণ দেখা দিয়েছে। করোনার বিস্তার ঠেকাতে বিয়ে ও লোকসমাগম হয় এমন সামাজিক অনুষ্ঠান নিষিদ্ধ করেছে ইরান। খবর বিবিসি, এএফপি ও দ্য গার্ডিয়ানসহ বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের। বাংলাদেশ সময় রোববার রাত ৮টা পর্যন্ত ওয়ার্ল্ডওমিটারসের তথ্য অনুযায়ী- বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১ কোটি ২৮ লাখ ৭৭ হাজার ২৩৬ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন ৫ লাখ ৬৮ হাজার ৩৬৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৭৫ লাখ ৪ হাজার ৮৫২ জন। এ হিসাবে বিশ্বে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৪৮ লাখ ৪ হাজার ৪০৯ জন।

আক্রান্তের তালিকায় ১৭তম হলেও সক্রিয় রোগীর তালিকায় সপ্তম স্থানে উঠে এসেছে বাংলাদেশ। দেশে মোট করোনা আক্রান্ত ১ লাখ ৮৩ হাজার ৭৯৫ জন। মারা গেছেন ২ হাজার ৩৫২ জন, সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৯৩ হাজার ৬১৪ জন। এর ফলে দেশে এখনও ৮৭ হাজার ৮২৯ জন রোগী চিকিৎসাধীন। সক্রিয় রোগীর এ তালিকায় বাংলাদেশের ওপরে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, ব্রাজিল, ভারত, রাশিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা ও পেরু। তবে স্পেন ও যুক্তরাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা বেশি হলেও সুস্থ বা সক্রিয় রোগীর সুনির্দিষ্ট তথ্য না থাকায় তাদের এ তালিকায় ধরা হয়নি।

বিশ্ব তালিকায় শীর্ষে থাকা যুক্তরাষ্ট্রে মোট রোগীর সংখ্যা ৩৩ লাখ ৫৭ হাজার ১৩০ জন, মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৩৭ হাজার ৪১৮ জনের। দেশটিতে সুস্থ হয়েছেন ১৪ লাখ ৯০ হাজারের বেশি মানুষ। তবে এখনও সক্রিয় রোগী রয়েছে ১৭ লাখ ২৯ হাজারের বেশি।

তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে থাকা ব্রাজিলে মোট আক্রান্ত ১৮ লাখ ৪০ হাজার ৮১২ জন, মৃত্যু হয়েছে ৭১ হাজার ৪৯২ জনের। দেশটিতে সুস্থ হয়েছেন ১২ লাখ ১৩ হাজারের বেশি। এখনও চিকিৎসাধীন বা সক্রিয় রোগী ৫ লাখ ৫৫ হাজার।

সক্রিয় রোগীর তালিকায় তৃতীয় স্থানে রয়েছে ভারত। দেশটিতে মোট রোগী ৮ লাখ ৫৪ হাজার ৪৮০ জন, মৃত্যু হয়েছে ২২ হাজার ৪১৮ জন। দেশটিতে সুস্থতার হার বেশ ভালো। এ পর্যন্ত ৫ লাখ ৩৭ হাজার ৫৯৯ জন। এখনও সক্রিয় রোগী ২ লাখ ৯৪ হাজার ১৬৩ জন।

চতুর্থ স্থানে রাশিয়ায় মোট রোগী ৭ লাখ ২৭ হাজার ১৬২ জন, মৃত্যু হয়েছে ১১ হাজার ৩৩৫ জনের। সুস্থ হয়েছেন ৫ লাখের বেশি। দেশটিতে এখনও চিকিৎসাধীন ২ লাখ ১৪ হাজার। পঞ্চম স্থানে থাকা দক্ষিণ আফ্রিকায় মোট আক্রান্ত ২ লাখ ৬৪ হাজার ১৮৪ জন, মারা গেছেন ৩ হাজার ৯৭১ জন। সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ২৭ হাজার ৭১৫ জন। দেশটিতে এখনও চিকিৎসাধীন ১ লাখ ৩২ হাজার ৪৯৮ জন। তবে বৈশ্বিক আক্রান্তের তালিকায় দক্ষিণ আফ্রিকার অবস্থান দশম।

আক্রান্তের তালিকায় পঞ্চম স্থানে থাকা পেরু সক্রিয় রোগীর তালিকায় ষষ্ঠ। দেশটিতে মোট আক্রান্ত ৩ লাখ ২২ হাজার ৭১০ জন, মৃত্যু হয়েছে ১১ হাজার ৬৮২ জন, সুস্থ হয়েছেন ২ লাখ ১৪ হাজার ১৫২ জন। দেশটিতে এখনও চিকিৎসাধীন রোগী ৯৬ হাজার ৮৭৬ জন।

সংক্রমণ ঠেকাতে ইরানে বিয়ে বন্ধ : করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে বিয়েসহ অন্যান্য সামাজিক অনুষ্ঠান নিষিদ্ধ করছে ইরান। শনিবার টেলিভিশনে সম্প্রচারিত এক ভাষণে এ ধরনের অনুষ্ঠান আয়োজন বন্ধের আহ্বান জানান দেশটির প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। তিনি বলেন, আমাদের অবশ্যই দেশজুড়ে অনুষ্ঠান আয়োজন এবং গণজমায়েত বন্ধ করতে হবে। হোক সেটা অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া, বিয়ে বা পার্টি। এটা উৎসব বা সেমিনার আয়োজনের সময় নয়। এর পরপরই এক পুলিশ কর্মকর্তা রাজধানী তেহরানে বিয়ে এবং অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার মতো সব ধরনের অনুষ্ঠান আয়োজন পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করেন।

ইতালিতে ফের ছড়াচ্ছে করোনা : করোনা মহামারীর প্রথম ধাক্কা কাটতে না কাটতেই ইতালিতে আবারও বাড়তে শুরু করেছে সংক্রমণ। আর এর জন্য অভিবাসীদের দায়ী করছে স্থানীয় গণমাধ্যম ও কর্মকর্তারা। নতুন সংক্রমণ রোধে আরও বেশি কড়াকড়ি আরোপের দাবি জানিয়েছেন তারা। রোববার ইতালীয় পত্রিকা ‘ইল মেসেজারো’ এক প্রতিবেদনে বলছে, ইতালির সীমান্ত বন্ধের সিদ্ধান্ত কাজ করছে না। বিদেশ থেকে আগতদের মাধ্যমে সেখানে করোনার বিস্তার ক্রমেই অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠছে। দেশটিতে ইতোমধ্যেই নতুন করে সহস্রাধিক অভিবাসী করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছেন।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত