সুস্থতার হার ৯৩ শতাংশ

বিশ্বে করোনায় প্রাণহানি পৌনে ছয় লাখ

চীনে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বিশেষ দল * করোনায় ঝরল ৩ হাজার স্বাস্থ্যকর্মীর প্রাণ -অ্যামনেস্টি

  যুগান্তর ডেস্ক ১৫ জুলাই ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে পৌনে ছয় লাখ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। তবে আক্রান্তের তুলনায় মৃত্যুহার কমছে, বাড়ছে সুস্থতার হার। এ পর্যন্ত ৭৭ লাখের বেশি মানুষ সুস্থ হয়েছেন। বর্তমানে সুস্থতার হার ৯৩ শতাংশ, মৃত্যুহার ৭ শতাংশ। করোনায় প্রাণ হারানো লোকদের মধ্যে ৩ হাজার স্বাস্থ্যকর্মী রয়েছেন বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

এদিকে বিশ্বজুড়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা এক কোটি ৩২ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। প্রাণঘাতী এ ভাইরাসের উৎসের খোঁজে চীনে পৌঁছেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার একটি বিশেষ দল। ভারতে আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে সংক্রমণ।

দেশটিতে রোগীর সংখ্যা ৯ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। গেল ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ২৮ হাজারের বেশি মানুষ। খবর বিবিসি, গার্ডিয়ান ও এএফপিসহ বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের।

বাংলাদেশ সময় মঙ্গলবার রাত ৮টা পর্যন্ত ওয়ার্ল্ডওমিটারসের তথ্য অনুযায়ী বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১ কোটি ৩২ লাখ ৭৩ হাজার ৬৫৫ জন। মারা গেছেন ৫ লাখ ৭৬ হাজার ৪৯২ জন। অবস্থা আশঙ্কাজনক ৫৯ হাজার ২৪৮ জনের।

সুস্থ হয়েছেন ৭৭ লাখ ৪৫ হাজার ৯৯৪ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৯৫ হাজার ৭৮৩, মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ৭২৯ জনের। আগের দিন মৃত্যু ছিল ৪ হাজার ১১৮ জনের।

বিশ্ব তালিকায় শীর্ষে থাকা যুক্তরাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় ৬৫ হাজার ৪৮৮ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন। একই সময়ে মৃত্যু হয়েছে ৪৬৫ জনের। এ নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্ত ৩৪ লাখ ৮০ হাজার ৫৫৪ জন, মারা গেছেন ১ লাখ ৩৮ হাজার ২৭৩ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১৫ লাখ ৫০ হাজার।

তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে থাকা ব্রাজিলে সংক্রমণ ও প্রাণহানি কিছুটা কমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় সেখানে আক্রান্ত হয়েছেন ২১ হাজার ৭৮৩ জন, মৃত্যু হয়েছে ৭৭০ জনের। এতে দেশটিতে মোট রোগী ১৮ লাখ ৮৮ হাজার ৯৫১ জন, মৃত্যু হয়েছে ৭২ হাজার ৯৫০ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন ১২ লাখ ১৩ হাজার।

তৃতীয় স্থানে ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড ২৮ হাজার ১৭৯ জন, মৃত্যু হয়েছে ৫৪০ জনের। এ নিয়ে দেশটিতে মোট রোগী ৯ লাখ ১১ হাজার ৬৪৫ জন, মারা গেছেন ২৩ হাজার ৭৮৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৫ লাখ ৭৩ হাজার। দেশটির পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে করোনার সংক্রমণ হুহু করে বাড়ছে।

সোমবার সেখানে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১ হাজার ৪৩৫ জন, মারা গেছেন ২৪ জন। রাজ্যে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় ১৮ মার্চ। ২৫ জুনের আগ পর্যন্তও দৈনিক আক্রান্ত বৃদ্ধির হার ৫ শতাংশের নিচে থাকলেও গত দুই সপ্তাহ ধরে তা বাড়ছে।

রোববার সেই হার ছিল ১৩ দশমিক ৩ শতাংশ। এ কারণে বৃহস্পতিবার থেকে এ রাজ্যে নতুন করে লকডাউন সংক্রান্ত নিষেধাজ্ঞা আরও কড়াকড়ি করা হয়েছে।

চতুর্থ স্থানে রাশিয়ায় মোট রোগীর সংখ্যা ৭ লাখ ৩৯ হাজার ৯৪৭ জন, মারা গেছেন ১১ হাজার ৬১৪ জন। দেশটিতে সুস্থ হয়েছেন ৫ লাখ ৭৩ হাজার। পঞ্চম স্থানে থাকা পেরুতে মোট আক্রান্ত ৩ লাখ ৩০ হাজার ২৭৮ জন, মারা গেছেন ১২ হাজার ৭০৬ জন।

দেশটিতে সুস্থ হয়েছেন ২ লাখ ২১ হাজার। স্পেনকে ছাড়িয়ে ষষ্ঠ স্থানে উঠে আসা চিলিতে মোট আক্রান্ত ৩ লাখ ১৭ হাজার ৪৪১ জন, মৃত্যু হয়েছে ৭ হাজার ২৪ জনের। দেশটিতে সুস্থ হয়েছেন ২ লাখ ৮৬ হাজার। স্পেনে মোট আক্রান্ত ৩ লাখ ৩ হাজার ৩৩ জন, মৃত্যু হয়েছে ২৮ হাজার ৪০৬ জনের।

চীনে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বিশেষ দল : করোনার উৎস সম্পর্কে জানতে চীনে পৌঁছেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার একটি দল। বিষয়টি সে দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নিশ্চিত করেছে।

চায়না গ্লোবাল টেলিভিশন নেটওয়ার্কের (সিজিটিএন) খবরে বলা হয়েছে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ওই দলটি চীনের বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে করোনা নিয়ে আলোচনা করবেন।

তবে চীনে তারা কোথায় থাকবেন বা কোন কোন জায়গায় কাজ করবেন সে বিষয়ে কিছু বলা হয়নি। বিশেষজ্ঞদের এই দলটি অন্য কোনো অঞ্চল এমনকি অন্য দেশেও এ ধরনের খোঁজ চালাতে পারেন।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে যে, তারা বিশ্বাস করেন ভাইরাসের উৎস সন্ধান করা একটি ধারাবাহিক এবং বিকাশমান প্রক্রিয়া। এর মধ্যে একাধিক দেশ এবং অঞ্চল জড়িত থাকতে পারে।

৩ হাজার স্বাস্থ্যকর্মীর প্রাণহানি : মহামারী করোনাভাইরাসে বিশ্বব্যাপী ৩ হাজার স্বাস্থ্যকর্মীর মৃত্যু হয়েছে। আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল এমন তথ্য দিয়েছে।

যুক্তরাজ্যভিক্তিক বেসরকারি মানবাধিকার সংস্থাটির দেয়া তথ্য অনুযায়ী করোনায় সর্বোচ্চ ৫৪৫ জন স্বাস্থ্যকর্মীর মৃত্যু হয়েছে রাশিয়ায়। যুক্তরাজ্যে মারা গেছে ৫৪০ জন।

আর যুক্তরাষ্ট্রে ৫০৭ জন। করোনার নতুন উপকেন্দ্র ব্রাজিলে প্রাণ হারিয়েছেন ৩৫১ জন স্বাস্থ্যকর্মী। মেক্সিকোসহ লাতিন আমেরিকার অন্যান্য দেশে মারা গেছে ২৪৮ জন। যদিও মারা যাওয়া স্বাস্থ্যকর্মীদের সংখ্যাটা আরও অনেক বেশি।

সংস্থাটি কেবল ৩ হাজার জনের মৃত্যুর খবর পেয়েছে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে। অ্যামনেস্টির পরিসংখ্যান অনুযায়ী বিশ্বের ৬৩টি দেশে স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য পর্যাপ্ত পিপিই নেই।

লিফটে ৭১ জনকে আক্রান্ত করলেন নারী : লিফটে উঠে অনিচ্ছাকৃতভাবে ৭১ জনকে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত করেছেন এক চীনা নারী। এমনটাই বলছেন চীনের হেইলংজিয়াং প্রদেশের গবেষকরা। এ ঘটনা গত মার্চ মাসের। ওই নারী ১৯ মার্চ যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষে চীনের হেইলংজিয়াং প্রদেশে তার বাড়িতে ফেরেন।

সেখানে গিয়ে লিফটে উঠে ৭১ জনকে সংক্রমিত করেছেন বলে ধারণা করছেন বিশেষজ্ঞরা। কারণ তিনি সেখানে যাওয়ার আগে তার এলাকায় কোনো করোনা রোগী শনাক্ত হয়নি।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত