৮ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ

গণপূর্তের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী ও স্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা

  যুগান্তর রিপোর্ট ০৬ আগস্ট ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

গণপূর্ত অধিদফতরের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী উৎপল কুমার দে ও তার স্ত্রী গোপা দে’র বিরুদ্ধে ৭ কোটি ৮০ লাখ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জন ও মানি লন্ডারিংয়ের অভিযোগে পৃথক দুটি মামলা করেছে দুদক। বুধবার দুদকের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ নেয়ামুল আহসান গাজী বাদী হয়ে সংস্থাটির প্রধান কার্যালয়ে মামলা দুটি দায়ের করেন।

দুটি মামলার মধ্যে একটি মামলায় উৎপল কুমার দে ও তার স্ত্রীকে আসামি করা হয়। এ মামলায় ৬ কোটি ৬২ লাখ ৬৮ হাজার ৭৫৪ অবৈধ সম্পদের অভিযোগসহ মানি লন্ডারিংয়ের অভিযোগ আনা হয়। অপর মামলায় উৎপল কুমার দে’র বিরুদ্ধে পৃথকভাবে আরও ১ কোটি ১৮ লাখ ১৭ হাজার ৯০৩ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জন ও তা মানি লন্ডারিং করার অভিযোগ আনা হয়।

মামলায় বলা হয়, উৎপল কুমার দে ও তার স্ত্রীর নামে অনেক সম্পদ গড়েছেন। তার সম্পদ আয়ের সঙ্গে অসঙ্গতিপূর্ণ। তিনি অবৈধ সম্পদ অর্জন করে তা নিজেদের ভোগ দখলে রেখে ওই সম্পদ বৈধ করার অসৎ চেষ্টাও চালান। এ ছাড়া বিভিন্ন সময় তাদের অবৈধ টাকা রূপান্তর/স্থানান্তর বা হস্থান্তর করে মানি লন্ডারিং করেন।

মামলার অভিযোগে আরও বলা হয়, গোপা দে’র নামে বিভিন্ন ব্যাংকে বিপুল পরিমাণ অর্থের লেনদেন হয়েছে। প্রাপ্ত তথ্য-প্রমাণ ও অন্যান্য পারিপার্শ্বিক বিষয়াদি পর্যালোচনা করে প্রাথমিকভাবে প্রমাণ পাওয়া যায়, উৎপল কুমার দে’র প্রত্যক্ষ যোগসাজশে গোপা দে দুর্নীতির মাধ্যমে অবৈধ পন্থায় ৬ কোটি ৬২ লাখ ৬৮ হাজার ৭৫৪ টাকা অর্জন করেন।

অপর মামলায় গণপূর্তের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী উৎপল কুমার দে’র বিরুদ্ধে অভিযোগে বলা হয়, একজন সরকারি র্কমচারী হয়ে তিনি অসৎ উদ্দশ্যে দুর্নীতি এবং বিভিন্ন অবৈধ র্কাযক্রমের মাধ্যমে জ্ঞাত আয়ের সঙ্গে অসঙ্গতিপূর্ণ ১ কোটি ১৮ লাখ ১৭ হাজার টাকার সম্পদ নিজের দখলে রাখেন।

এ মামলার অভিযোগে আরও বলা হয়, অনুসন্ধানকালে আসামি উৎপল কুমার দে’র নামে অর্জিত সম্পদে তার বেতন-ভাতা ব্যতীত অন্য কোনো সুনির্দিষ্ট বৈধ আয়ের উৎস পাওয়া যায়নি। প্রকৃতপক্ষে তিনি সরকারি র্কমচারী হিসেবে দুর্নীতি করে অবৈধ পন্থায় অর্জিত অর্থ দিয়ে এসব স্থাবর-অস্থাবর সম্পদ-সম্পত্তির মালিকানা অর্জন করেন, যা অনুসন্ধানে প্রমাণিত হয়েছে।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত