বিশ্বে করোনায় মৃত্যু সাত লাখ ১১ হাজার 
jugantor
আক্রান্ত এক কোটি ৯০ লাখ
বিশ্বে করোনায় মৃত্যু সাত লাখ ১১ হাজার 

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৭ আগস্ট ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলছে। গেল ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৭১ হাজারের বেশি মানুষ।

এ নিয়ে সাত মাসে বিশ্বের ২১৩টি দেশ ও অঞ্চলে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা এক কোটি ৯০ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। এর মধ্যে প্রাণ হারিয়েছেন সাত লাখ ১১ হাজার।

তবে আক্রান্তদের অনেকেই করোনাকে জয় করেছেন। এ পর্যন্ত এক কোটি ২১ লাখের বেশি মানুষ সুস্থ হয়েছেন। ভারতে কোভিড হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

এতে অন্তত ৮ জন নিহত হয়েছেন। ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রায়ত্ত ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি বায়ো ফার্মা জানিয়েছে, দেশটিতে আগামী সপ্তাহে চীনা ভ্যাকসিনের তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা শুরু হবে।

খবর রয়টার্স, এনডিটিভি, বিবিসি ও এএফপিসহ বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের। বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত ওয়ার্ল্ডওমিটারসের তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১ কোটি ৯০ লাখ ৮ হাজার ৩২০ জন।

মারা গেছেন ৭ লাখ ১১ হাজার ৯১০ জন। অবস্থা আশঙ্কাজনক ৬৫ হাজার ৫০০ জনের। সুস্থ হয়েছেন ১ কোটি ২১ লাখ ৯৫ হাজার ২৬৬ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৭১ হাজার ৩২৫, মৃত্যু হয়েছে ৬ হাজার ৮৩৭ জনের।

বিশ্ব তালিকায় শীর্ষে থাকা যুক্তরাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় ৫৫ হাজার ১৪৮ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন। একই সময়ে মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৩১১ জনের।

এ নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্ত ৪৯ লাখ ৭৩ হাজার ৫২৬ জন, মারা গেছেন ১ লাখ ৬১ হাজার ৬৩৫ জন। মার্কিন অঙ্গরাজ্য আরিজোনার একটি কারাগারে প্রায় অর্ধেক বন্দি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

মঙ্গলবার দ্য আরিজোনা ডিপার্টমেন্ট অব কারেকশানস এক বিবৃতিতে বলেছে, এএসপিসি-টাকসন হোয়েটসন কারাগারে ৫১৭ জন বন্দি করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। তাদের পৃথক রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। 

তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে থাকা ব্রাজিলে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫৪ হাজার ৬১১ জন, মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৩২২ জনের। এতে দেশটিতে মোট রোগীর সংখ্যা ২৮ লাখ ৬২ হাজার ২৬৫ জন, মৃত্যু হয়েছে ৯৭ হাজার ৪০২ জনের।

বিশ্বে তৃতীয় স্থানে থাকা ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন রেকর্ড ৫৬ হাজার ৬২৬ জন। একই সময়ে মারা গেছেন ৯১৯ জন। এ নিয়ে দেশটিতে টানা সাত দিন ৫০ হাজারের বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছে।

ভারতে মোট রোগীর সংখ্যা ১৯ লাখ ৬৭ হাজার ২৯৫ জন, মারা গেছেন ৪০ হাজার ৭৭২ জন। চতুর্থ স্থানে রাশিয়ায় মোট রোগীর সংখ্যা ৮ লাখ ৭১ হাজার ৮২৭ জন, মারা গেছেন ১৪ হাজার ৬০৬ জন।

পঞ্চম স্থানে থাকা দক্ষিণ আফ্রিকায় মোট আক্রান্ত ৫ লাখ ২৯ হাজার ৮৭৭ জন, মৃত্যু হয়েছে ৯ হাজার ২৯৮ জনের। ষষ্ঠ স্থানে মেক্সিকোতে মোট রোগী ৪ লাখ ৫৬ হাজার ১৬১ জন, মৃত্যু হয়েছে ৪৯ হাজার ৬৯৮ জনের।

সপ্তম স্থানে থাকা পেরুতে মোট আক্রান্ত ৪ লাখ ৪৭ হাজার ৬২৪ জন, মৃত্যু হয়েছে ২০ হাজার ২২৮ জনের। এদিকে ফ্রান্স, স্পেন ও গ্রিসে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ দেখা দিয়েছে। দেশগুলোতে চলতি সপ্তাহে নতুন করে সর্বোচ্চসংখ্যক মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। 

চীনা ভ্যাকসিনের ৩য় ধাপের ট্রায়াল ইন্দোনেশিয়ায় : চীনা প্রতিষ্ঠান সিনোভ্যাক বায়োটেকের তৈরি ভ্যাকসিনের তৃতীয় ধাপের ট্রায়াল শুরু হচ্ছে ইন্দোনেশিয়ায়। আগামী সপ্তাহেই মানবদেহে এর পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরু হবে।

এ ট্রায়ালে সিনোভ্যাকের সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করছে ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রায়ত্ত ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি বায়ো ফার্মা। বানডুংয়ের পাজ্জাজারান ইউনিভার্সিটির প্রধান গবেষক কুসনান্দি রুসমিল জানান, আগামী ১১ আগস্ট থেকে ১ হাজার ৬২০ জন স্বেচ্ছাসেবক ভ্যাকসিনটির তৃতীয় ধাপের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে অংশ নেবেন।

তাদের সবার বয়স ১৮ থেকে ৫৯ বছরের মধ্যে। তিনি জানান, অর্ধেক স্বেচ্ছাসেবককে ছয় মাস ভ্যাকসিন দেয়া হবে, বাকিরা সাধারণ প্লাসেবো (স্যালাইন জাতীয় পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াহীন ওষুধ) গ্রহণ করবেন। ইতোমধ্যেই ৮০০ জন স্বেচ্ছাসেবক ট্রায়ালের জন্য নিবন্ধন করেছেন বলে জানিয়েছেন রুসমিল।

ভারতে কোভিড হাসপাতালে আগুনে নিহত ৮ : গুজরাটে করোনা রোগীদের চিকিৎসা দেয়া একটি হাসপাতালে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে অন্তত ৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন অর্ধশত রোগী। বুধবার রাতে আহমেদাবাদের হাসপাতালটিতে আগুন লাগে বলে জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো।

নভরঙ্গপুরার শ্রে হাসপাতালে স্থানীয় সময় রাত তিনটায় হঠাৎ করেই ভেতরে ধোঁয়ার সৃষ্টি হয়। বিষয়টি প্রহরীদের নজরে এলে তাৎক্ষণিকভাবে ফায়ার সার্ভিসে জানানো হয়। খবর পেয়ে দমকল বাহিনীর ৮টি ইউনিট এবং ১০টি অ্যাম্বুলেন্স দ্রুত ঘটনাস্থলে আসে।

বেশ কিছুক্ষণের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয় দমকলকর্মীরা। আহতদের উদ্ধার করে অন্য একটি হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেয়া হয়েছে। 

অগ্নিকাণ্ডের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এক টুইট বার্তায় গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।
 

 

আক্রান্ত এক কোটি ৯০ লাখ

বিশ্বে করোনায় মৃত্যু সাত লাখ ১১ হাজার 

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৭ আগস্ট ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলছে। গেল ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৭১ হাজারের বেশি মানুষ।

এ নিয়ে সাত মাসে বিশ্বের ২১৩টি দেশ ও অঞ্চলে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা এক কোটি ৯০ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। এর মধ্যে প্রাণ হারিয়েছেন সাত লাখ ১১ হাজার।

তবে আক্রান্তদের অনেকেই করোনাকে জয় করেছেন। এ পর্যন্ত এক কোটি ২১ লাখের বেশি মানুষ সুস্থ হয়েছেন। ভারতে কোভিড হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

এতে অন্তত ৮ জন নিহত হয়েছেন। ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রায়ত্ত ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি বায়ো ফার্মা জানিয়েছে, দেশটিতে আগামী সপ্তাহে চীনা ভ্যাকসিনের তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা শুরু হবে।

খবর রয়টার্স, এনডিটিভি, বিবিসি ও এএফপিসহ বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের। বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত ওয়ার্ল্ডওমিটারসের তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১ কোটি ৯০ লাখ ৮ হাজার ৩২০ জন।

মারা গেছেন ৭ লাখ ১১ হাজার ৯১০ জন। অবস্থা আশঙ্কাজনক ৬৫ হাজার ৫০০ জনের। সুস্থ হয়েছেন ১ কোটি ২১ লাখ ৯৫ হাজার ২৬৬ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৭১ হাজার ৩২৫, মৃত্যু হয়েছে ৬ হাজার ৮৩৭ জনের।

বিশ্ব তালিকায় শীর্ষে থাকা যুক্তরাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় ৫৫ হাজার ১৪৮ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন। একই সময়ে মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৩১১ জনের।

এ নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্ত ৪৯ লাখ ৭৩ হাজার ৫২৬ জন, মারা গেছেন ১ লাখ ৬১ হাজার ৬৩৫ জন। মার্কিন অঙ্গরাজ্য আরিজোনার একটি কারাগারে প্রায় অর্ধেক বন্দি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

মঙ্গলবার দ্য আরিজোনা ডিপার্টমেন্ট অব কারেকশানস এক বিবৃতিতে বলেছে, এএসপিসি-টাকসন হোয়েটসন কারাগারে ৫১৭ জন বন্দি করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। তাদের পৃথক রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে থাকা ব্রাজিলে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫৪ হাজার ৬১১ জন, মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৩২২ জনের। এতে দেশটিতে মোট রোগীর সংখ্যা ২৮ লাখ ৬২ হাজার ২৬৫ জন, মৃত্যু হয়েছে ৯৭ হাজার ৪০২ জনের।

বিশ্বে তৃতীয় স্থানে থাকা ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন রেকর্ড ৫৬ হাজার ৬২৬ জন। একই সময়ে মারা গেছেন ৯১৯ জন। এ নিয়ে দেশটিতে টানা সাত দিন ৫০ হাজারের বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছে।

ভারতে মোট রোগীর সংখ্যা ১৯ লাখ ৬৭ হাজার ২৯৫ জন, মারা গেছেন ৪০ হাজার ৭৭২ জন। চতুর্থ স্থানে রাশিয়ায় মোট রোগীর সংখ্যা ৮ লাখ ৭১ হাজার ৮২৭ জন, মারা গেছেন ১৪ হাজার ৬০৬ জন।

পঞ্চম স্থানে থাকা দক্ষিণ আফ্রিকায় মোট আক্রান্ত ৫ লাখ ২৯ হাজার ৮৭৭ জন, মৃত্যু হয়েছে ৯ হাজার ২৯৮ জনের। ষষ্ঠ স্থানে মেক্সিকোতে মোট রোগী ৪ লাখ ৫৬ হাজার ১৬১ জন, মৃত্যু হয়েছে ৪৯ হাজার ৬৯৮ জনের।

সপ্তম স্থানে থাকা পেরুতে মোট আক্রান্ত ৪ লাখ ৪৭ হাজার ৬২৪ জন, মৃত্যু হয়েছে ২০ হাজার ২২৮ জনের। এদিকে ফ্রান্স, স্পেন ও গ্রিসে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ দেখা দিয়েছে। দেশগুলোতে চলতি সপ্তাহে নতুন করে সর্বোচ্চসংখ্যক মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

চীনা ভ্যাকসিনের ৩য় ধাপের ট্রায়াল ইন্দোনেশিয়ায় : চীনা প্রতিষ্ঠান সিনোভ্যাক বায়োটেকের তৈরি ভ্যাকসিনের তৃতীয় ধাপের ট্রায়াল শুরু হচ্ছে ইন্দোনেশিয়ায়। আগামী সপ্তাহেই মানবদেহে এর পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরু হবে।

এ ট্রায়ালে সিনোভ্যাকের সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করছে ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রায়ত্ত ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি বায়ো ফার্মা। বানডুংয়ের পাজ্জাজারান ইউনিভার্সিটির প্রধান গবেষক কুসনান্দি রুসমিল জানান, আগামী ১১ আগস্ট থেকে ১ হাজার ৬২০ জন স্বেচ্ছাসেবক ভ্যাকসিনটির তৃতীয় ধাপের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে অংশ নেবেন।

তাদের সবার বয়স ১৮ থেকে ৫৯ বছরের মধ্যে। তিনি জানান, অর্ধেক স্বেচ্ছাসেবককে ছয় মাস ভ্যাকসিন দেয়া হবে, বাকিরা সাধারণ প্লাসেবো (স্যালাইন জাতীয় পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াহীন ওষুধ) গ্রহণ করবেন। ইতোমধ্যেই ৮০০ জন স্বেচ্ছাসেবক ট্রায়ালের জন্য নিবন্ধন করেছেন বলে জানিয়েছেন রুসমিল।

ভারতে কোভিড হাসপাতালে আগুনে নিহত ৮ : গুজরাটে করোনা রোগীদের চিকিৎসা দেয়া একটি হাসপাতালে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে অন্তত ৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন অর্ধশত রোগী। বুধবার রাতে আহমেদাবাদের হাসপাতালটিতে আগুন লাগে বলে জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো।

নভরঙ্গপুরার শ্রে হাসপাতালে স্থানীয় সময় রাত তিনটায় হঠাৎ করেই ভেতরে ধোঁয়ার সৃষ্টি হয়। বিষয়টি প্রহরীদের নজরে এলে তাৎক্ষণিকভাবে ফায়ার সার্ভিসে জানানো হয়। খবর পেয়ে দমকল বাহিনীর ৮টি ইউনিট এবং ১০টি অ্যাম্বুলেন্স দ্রুত ঘটনাস্থলে আসে।

বেশ কিছুক্ষণের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয় দমকলকর্মীরা। আহতদের উদ্ধার করে অন্য একটি হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেয়া হয়েছে।

অগ্নিকাণ্ডের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এক টুইট বার্তায় গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।