করোনা মোকাবেলা

ভারত সঠিক পথেই এগিয়ে যাচ্ছে

  কলকাতা প্রতিনিধি ১২ আগস্ট ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বিশেষজ্ঞদের উদ্ধৃতি দিয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছেন, কোনো ব্যক্তির শরীরে করোনাভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়ার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে তার সংস্পর্শে আসা সবার করোনা পরীক্ষার ব্যবস্থা করতে হবে। এতে সংক্রমণ অনেকটাই নিয়ন্ত্রণ করা যাবে।

তিনি আরও বলেন, দেশে করোনা আক্রান্ত রোগীর মৃত্যুর হার ক্রমাগত কমছে। পাশাপাশি প্রতিদিন সুস্থতার হার বাড়ছে। এতে বোঝা যায় সঠিক পদক্ষেপই আমরা নিয়েছি। আমরা সঠিক পথেই এগোচ্ছি।

এই মুহূর্তে ভারতের যে ১০টি রাজ্যে করোনার প্রকোপ সবচেয়ে বেশি সেখানকার মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে মঙ্গলবার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বৈঠক করেন নরেন্দ্র মোদি। এতে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিও শামিল হন। এ ছাড়া অন্ধ্রপ্রদেশ, কর্নাটক, তামিলনাড়ু, মহারাষ্ট্র, পাঞ্জাব, বিহার, গুজরাট, তেলঙ্গানা এবং উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী অংশ নেন। করোনা পরিস্থিতি সামাল দিতে কী কী পদক্ষেপ নেয়া যেতে পারে এবং এ মুহূর্তে কোথায় কোনো ঘাটতি রয়েছে কি না সেসব নিয়ে তারা আলোচনা করেন।

সাধারণ মানুষের হাতে ভ্যাকসিন পৌঁছে দেয়ার ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট নীতি প্রণয়ন করতে প্রধানমন্ত্রী মোদিকে অনুরোধ করেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। একই সঙ্গে আরও বেশি সংখ্যায় অক্সিজেন ক্যানুলা ও ভেন্টিলেটর মেশিন সরবরাহ করার ওপর জোর দেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী মোদি আরও বলেন, করোনা পরীক্ষায় জোর দেয়া হয়েছে বলেই শনাক্তকরণ এবং তা প্রতিহত করা সম্ভব হচ্ছে। তিনি বলেন, দৈনিক করোনা পরীক্ষার সংখ্যা ভারতে এখন সাত লাখে পৌঁছেছে এবং আরও বাড়বে। অন্য দেশগুলোর তুলনায় ভারতে মৃত্যুর হার কমছে এবং আরও কমবে। এটি অত্যন্ত সন্তোষজনক। গত কয়েক দিন ধরে দৈনিক করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৬০ হাজারের কোটায় ঘোরাফেরা করছিল।

এদিন তা কমে ৫৩ হাজারে এসে ঠেকেছে। একই সঙ্গে গত কয়েক দিনে সুস্থতার হারও তুলনামূলক বেড়েছে। করোনা পরিস্থিতি কাটিয়ে ওঠা সম্ভব বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি। মোদি আরও বলেন, এ মুহূর্তে যত সংখ্যক মানুষ করোনায় আক্রান্ত, তাদের ৮০ শতাংশই ১০টি রাজ্যে রয়েছেন। করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ১০ রাজ্যের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ভারতে এ মুহূর্তে করোনা রোগীর মধ্যে অধিকাংশই ১০টি রাজ্যের মানুষ। তাই রাজ্যগুলোয় করোনাকে হারানো সম্ভব হলে গোটা দেশ সফল হবে।

ভারতে এ পর্যন্ত মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২২ লাখ ৬৮ হাজার ৬৭৫। এর মধ্যে ১৫ লাখ ৮৩ হাজার ৪৮৯ জন ইতোমধ্যেই সুস্থ হয়ে উঠেছেন। অর্থাৎ মোট আক্রান্তের ৬৯ শতাংশের বেশি মানুষ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। তাই দেশ সঠিক পথেই এগোচ্ছে বলে মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, মৃত্যুর হার লাগাতার কমতে থাকার পাশাপাশি, সুস্থতার হার প্রতিদিন বাড়ছে। এতেই বোঝা যায় সঠিক পদক্ষেপই নিয়েছি আমরা। সঠিক পথেই এগোচ্ছি। ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পরিসংখ্যান অনুসারে- গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৫৩ হাজার ৬০১ জন নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

এ নিয়ে মোট করোনা আক্রান্ত হলেন ২২ লাখ ৬৮ হাজার ৬৭৫ জন। বিশ্বে প্রথম স্থানে থাকা আমেরিকায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫০ লাখ ৯৪ হাজার ও দ্বিতীয় স্থানে থাকা ব্রাজিলে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ৫৭ হাজার।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত