করোনায় মৃত্যু সাড়ে তিন হাজার ছাড়াল
jugantor
২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৪২ শনাক্ত ২৯৯৫
করোনায় মৃত্যু সাড়ে তিন হাজার ছাড়াল

  যুগান্তর রিপোর্ট  

১৩ আগস্ট ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

দেশে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা সাড়ে তিন হাজার ছাড়িয়ে গেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৪২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত করোনায় মোট মারা গেছেন ৩ হাজার ৫১৩ জন। একদিনে নতুন করে আরও ২ হাজার ৯৯৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। সবমিলিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হয়েছেন ২ লাখ ৬৬ হাজার ৪৯৮ জন। আর গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১ হাজার ১১৭ জনসহ মোট সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৫৩ হাজার ৮৯ জন।

বুধবার করোনাবিষয়ক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। করোনাবিষয়ক বুলেটিন বন্ধ হওয়ার পর এটাই প্রথম সংবাদ বিজ্ঞপ্তি। ৮ মার্চ দেশে প্রথম কোভিড রোগী শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ প্রথম মৃত্যু হয়। ২৮ জুলাই মৃত্যু তিন হাজার স্পর্শ করে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, মোট ৮৬টি পরীক্ষাগারে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার নমুনা সংগ্রহ হয় ১৪ হাজার ৫৫০টি, পরীক্ষা হয় ১৪ হাজার ৭৫১টি। এখন পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৩ লাখ ২ হাজার ৭৩৯টি। ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২০ দশমিক ৩০ এবং এখন পর্যন্ত শনাক্তের হার ২০ দশমিক ৪৬ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৫৭ দশমিক ৪৪ শতাংশ এবং মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৩২ শতাংশ। বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, মারা যাওয়াদের মধ্যে পুরুষ ৩৩ জন, নারী ৯ জন। এর মধ্যে হাসপাতালে মারা গেছেন ৩৯ জন আর বাড়িতে তিনজন।

সবমিলিয়ে এখন পর্যন্ত পুরুষ মারা গেছেন ২ হাজার ৭৮২ জন, যা শতাংশের হিসাবে ৭৯ দশমিক ১৯ এবং নারী ৭৩১ জন, যা ২০ দশমিক ৮১ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়াদের মধ্যে বয়স বিবেচনায়, ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে একজন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে দুইজন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে চারজন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ২২ জন এবং ৬০ বছরের বেশি বয়সের রয়েছেন ২৪ জন। এতে আরও বলা হয়, এখন পর্যন্ত বয়সের হিসাবে শূন্য থেকে ১০ বছরের ১৯ জন, ১১ থেকে ২০ বছরের ৩৪ জন, ২১ থেকে ৩০ বছরের ৯১ জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের ২২৬ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের ৪৮০ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ৯৯৭ জন এবং ৬০ বছরের ঊর্ধ্বে ১ হাজার ৬৬৬ জন মারা গেছেন।

গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ৪২ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগের ২৭ জন, চট্টগ্রাম ও খুলনা বিভাগের তিনজন করে, বরিশাল বিভাগে একজন, সিলেট বিভাগে চারজন এবং রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে দুইজন করে। এখন পর্যন্ত মৃতদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে প্রায় অর্ধেক রোগী মারা গেছেন। এ সংখ্যা ১ হাজার ৬৮১ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ৮১৯, রাজশাহীতে ২২৬, খুলনা বিভাগে ২৭১, বরিশালে ১৩৫, সিলেট বিভাগে ১৬২, রংপুরে ১৪১ এবং সবচেয়ে কম ময়মনসিংহ বিভাগে ৭৮ জন মারা গছেন। ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হওয়াদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে আছেন ৪৭৮, চট্টগ্রাম বিভাগে ৮৮, রংপুরে ৪২, খুলনায় ১৬০, বরিশালে ৩২, রাজশাহীতে ২৫৭, সিলেটে ৪৯ এবং ময়মনসিংহ বিভাগে ১১ জন।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ২৪ ঘণ্টায় কোয়ারেন্টিনে যুক্ত হয়েছেন ১ হাজার ৮১৫ জন এবং ছাড় পেয়েছেন ১ হাজার ৮৭৭ জন। এখন পর্যন্ত কোয়ারেন্টিনে গেছেন ৪ লাখ ৩২ হাজার ৭০১ জন, ছাড় পেয়েছেন ৩ লাখ ৮৪ হাজার ৯৭৩ জন। বর্তমানে কোয়ারেন্টিনে আছেন ৪৭ হাজার ৭২৮ জন। ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে যুক্ত হয়েছেন ৮৬২ জন, ছাড় পেয়েছেন ৩৯২ জন। এখন পর্যন্ত আইসোলেশনে গেছেন ৫৯ হাজার ২০৭ জন আর ছাড় পেয়েছেন ৩৯ হাজার ৪৭৭ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১৯ হাজার ৭৩০ জন।

২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৪২ শনাক্ত ২৯৯৫

করোনায় মৃত্যু সাড়ে তিন হাজার ছাড়াল

 যুগান্তর রিপোর্ট 
১৩ আগস্ট ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

দেশে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা সাড়ে তিন হাজার ছাড়িয়ে গেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৪২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত করোনায় মোট মারা গেছেন ৩ হাজার ৫১৩ জন। একদিনে নতুন করে আরও ২ হাজার ৯৯৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। সবমিলিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হয়েছেন ২ লাখ ৬৬ হাজার ৪৯৮ জন। আর গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১ হাজার ১১৭ জনসহ মোট সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৫৩ হাজার ৮৯ জন।

বুধবার করোনাবিষয়ক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। করোনাবিষয়ক বুলেটিন বন্ধ হওয়ার পর এটাই প্রথম সংবাদ বিজ্ঞপ্তি। ৮ মার্চ দেশে প্রথম কোভিড রোগী শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ প্রথম মৃত্যু হয়। ২৮ জুলাই মৃত্যু তিন হাজার স্পর্শ করে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, মোট ৮৬টি পরীক্ষাগারে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার নমুনা সংগ্রহ হয় ১৪ হাজার ৫৫০টি, পরীক্ষা হয় ১৪ হাজার ৭৫১টি। এখন পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৩ লাখ ২ হাজার ৭৩৯টি। ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২০ দশমিক ৩০ এবং এখন পর্যন্ত শনাক্তের হার ২০ দশমিক ৪৬ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৫৭ দশমিক ৪৪ শতাংশ এবং মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৩২ শতাংশ। বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, মারা যাওয়াদের মধ্যে পুরুষ ৩৩ জন, নারী ৯ জন। এর মধ্যে হাসপাতালে মারা গেছেন ৩৯ জন আর বাড়িতে তিনজন।

সবমিলিয়ে এখন পর্যন্ত পুরুষ মারা গেছেন ২ হাজার ৭৮২ জন, যা শতাংশের হিসাবে ৭৯ দশমিক ১৯ এবং নারী ৭৩১ জন, যা ২০ দশমিক ৮১ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়াদের মধ্যে বয়স বিবেচনায়, ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে একজন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে দুইজন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে চারজন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ২২ জন এবং ৬০ বছরের বেশি বয়সের রয়েছেন ২৪ জন। এতে আরও বলা হয়, এখন পর্যন্ত বয়সের হিসাবে শূন্য থেকে ১০ বছরের ১৯ জন, ১১ থেকে ২০ বছরের ৩৪ জন, ২১ থেকে ৩০ বছরের ৯১ জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের ২২৬ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের ৪৮০ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ৯৯৭ জন এবং ৬০ বছরের ঊর্ধ্বে ১ হাজার ৬৬৬ জন মারা গেছেন।

গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ৪২ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগের ২৭ জন, চট্টগ্রাম ও খুলনা বিভাগের তিনজন করে, বরিশাল বিভাগে একজন, সিলেট বিভাগে চারজন এবং রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে দুইজন করে। এখন পর্যন্ত মৃতদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে প্রায় অর্ধেক রোগী মারা গেছেন। এ সংখ্যা ১ হাজার ৬৮১ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ৮১৯, রাজশাহীতে ২২৬, খুলনা বিভাগে ২৭১, বরিশালে ১৩৫, সিলেট বিভাগে ১৬২, রংপুরে ১৪১ এবং সবচেয়ে কম ময়মনসিংহ বিভাগে ৭৮ জন মারা গছেন। ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হওয়াদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে আছেন ৪৭৮, চট্টগ্রাম বিভাগে ৮৮, রংপুরে ৪২, খুলনায় ১৬০, বরিশালে ৩২, রাজশাহীতে ২৫৭, সিলেটে ৪৯ এবং ময়মনসিংহ বিভাগে ১১ জন।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ২৪ ঘণ্টায় কোয়ারেন্টিনে যুক্ত হয়েছেন ১ হাজার ৮১৫ জন এবং ছাড় পেয়েছেন ১ হাজার ৮৭৭ জন। এখন পর্যন্ত কোয়ারেন্টিনে গেছেন ৪ লাখ ৩২ হাজার ৭০১ জন, ছাড় পেয়েছেন ৩ লাখ ৮৪ হাজার ৯৭৩ জন। বর্তমানে কোয়ারেন্টিনে আছেন ৪৭ হাজার ৭২৮ জন। ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে যুক্ত হয়েছেন ৮৬২ জন, ছাড় পেয়েছেন ৩৯২ জন। এখন পর্যন্ত আইসোলেশনে গেছেন ৫৯ হাজার ২০৭ জন আর ছাড় পেয়েছেন ৩৯ হাজার ৪৭৭ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১৯ হাজার ৭৩০ জন।