চট্টগ্রামে বিমান অফিসে টিকিটের জন্য ভিড়
jugantor
চট্টগ্রামে বিমান অফিসে টিকিটের জন্য ভিড়

  চট্টগ্রাম ব্যুরো  

১৪ আগস্ট ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

চট্টগ্রামে দুবাইসহ মধ্যপ্রাচ্যগামী বিমানের টিকিটের জন্য চলছে হাহাকার।

তিন দিন ধরে নগরীর ষোলশহর দুই নম্বর গেটে অবস্থিত বাংলাদেশ বিমান এয়ারলাইন্সের কার্যালয়ে টিকিটের জন্য ভিড় জমাচ্ছেন প্রবাসীরা।

বৃহস্পতিবার টিকিটের জন্য ভোর থেকে লাইনে দাঁড়ান প্রবাসীরা। এক পর্যায়ে বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের কার্যালয় এবং মাঠ অতিক্রম করে বাইরে ফুটপাতে প্রবাসীদের লাইন চলে যায়।

বৃষ্টিতে ভিজে রোদে পুড়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হয়। দীর্ঘ লাইন সামাল দিতে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের হিমশিম খেতে হয়। এ কারণে বাড়তি নিরাপত্তার জন্য পাঁচলাইশ থানা পুলিশের একটি টিমকে সকাল থেকে কাজ করতে হয়।

দুবাইসহ মধ্যপ্রাচ্যগামী প্রবাসীরা সকাল থেকে টিকিট কাটার জন্য এলেও অনেকেই ফিরেছেন খালি হাতে। যাত্রীর তুলনায় ফ্লাইট কম থাকায় যাত্রীদের টিকিটের চাহিদা পূরণ করা যাচ্ছে না বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের কর্মকর্তারা।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের চট্টগ্রাম জেলা ব্যবস্থাপক মীর আক্তারুজ্জামান যুগান্তরকে বলেন, চট্টগ্রাম থেকে আগে মধ্যপ্রাচ্যের দুবাই-আবুধাবিতে সরাসরি ফ্লাইট চালু থাকলেও বর্তমানে নেই। সব ফ্লাইট ঢাকা হয়ে দুবাই, আবুধাবিতে যাচ্ছে।

ঢাকা থেকে দুবাই ও আবুধাবিতে ৬টি করে ১২টি ফ্লাইট পরিচালনা করছে বাংলাদেশ বিমান। এখানে টিকিট প্রত্যাশী বেশি হওয়ায় ভিড় একটু বেশি। তবে কোনো সমস্যা নেই। টিকিট পেতে নির্ধারিত ভাড়ার চেয়ে বেশি টাকা নেয়া হচ্ছে না।

টিকিট কাটতে আসা আবুধাবিগামী মো. তসলিম জানান, দেশে বেড়াতে এসে করোনায় আটকে গেছি। ছয় মাস ধরে দেশে আছি। এর মধ্যে জমানো টাকা খরচ হয়ে গেছে। আসার সময় ফিরতি টিকিট নিয়ে এসেছি। এখন ওই টিকিটে যেতে চাইলে বাড়তি টাকা দাবি করা হচ্ছে।

আবদুল খালেক নামে অপর দুবাই প্রবাসী জানান, সকাল থেকে লাইনে দাঁড়িয়ে দুপুরের দিকে ভেতরে ঢুকলেও কাউন্টারে বলা হয় বিমানে সিট খালি নেই। কয়েক দিন পর যোগাযোগ করার জন্য পরামর্শ দিয়েছেন কাউন্টারের লোকজন।

হাসমত আলী নামে আবুধাবি প্রবাসী যুগান্তরকে বলেন, যে তারিখে টিকিট কাটার জন্য এসেছি সে তারিখে টিকিট নেই। তবে টিকিটের চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় এক শ্রেণির দালাল টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। বেশি টাকা দিলে তারা টিকিট করিয়ে দিতে পারবে বলেও জানিয়েছে।

চট্টগ্রামে বিমান অফিসে টিকিটের জন্য ভিড়

 চট্টগ্রাম ব্যুরো 
১৪ আগস্ট ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

চট্টগ্রামে দুবাইসহ মধ্যপ্রাচ্যগামী বিমানের টিকিটের জন্য চলছে হাহাকার।

তিন দিন ধরে নগরীর ষোলশহর দুই নম্বর গেটে অবস্থিত বাংলাদেশ বিমান এয়ারলাইন্সের কার্যালয়ে টিকিটের জন্য ভিড় জমাচ্ছেন প্রবাসীরা।

বৃহস্পতিবার টিকিটের জন্য ভোর থেকে লাইনে দাঁড়ান প্রবাসীরা। এক পর্যায়ে বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের কার্যালয় এবং মাঠ অতিক্রম করে বাইরে ফুটপাতে প্রবাসীদের লাইন চলে যায়।

বৃষ্টিতে ভিজে রোদে পুড়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হয়। দীর্ঘ লাইন সামাল দিতে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের হিমশিম খেতে হয়। এ কারণে বাড়তি নিরাপত্তার জন্য পাঁচলাইশ থানা পুলিশের একটি টিমকে সকাল থেকে কাজ করতে হয়।

দুবাইসহ মধ্যপ্রাচ্যগামী প্রবাসীরা সকাল থেকে টিকিট কাটার জন্য এলেও অনেকেই ফিরেছেন খালি হাতে। যাত্রীর তুলনায় ফ্লাইট কম থাকায় যাত্রীদের টিকিটের চাহিদা পূরণ করা যাচ্ছে না বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের কর্মকর্তারা।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের চট্টগ্রাম জেলা ব্যবস্থাপক মীর আক্তারুজ্জামান যুগান্তরকে বলেন, চট্টগ্রাম থেকে আগে মধ্যপ্রাচ্যের দুবাই-আবুধাবিতে সরাসরি ফ্লাইট চালু থাকলেও বর্তমানে নেই। সব ফ্লাইট ঢাকা হয়ে দুবাই, আবুধাবিতে যাচ্ছে।

ঢাকা থেকে দুবাই ও আবুধাবিতে ৬টি করে ১২টি ফ্লাইট পরিচালনা করছে বাংলাদেশ বিমান। এখানে টিকিট প্রত্যাশী বেশি হওয়ায় ভিড় একটু বেশি। তবে কোনো সমস্যা নেই। টিকিট পেতে নির্ধারিত ভাড়ার চেয়ে বেশি টাকা নেয়া হচ্ছে না।

টিকিট কাটতে আসা আবুধাবিগামী মো. তসলিম জানান, দেশে বেড়াতে এসে করোনায় আটকে গেছি। ছয় মাস ধরে দেশে আছি। এর মধ্যে জমানো টাকা খরচ হয়ে গেছে। আসার সময় ফিরতি টিকিট নিয়ে এসেছি। এখন ওই টিকিটে যেতে চাইলে বাড়তি টাকা দাবি করা হচ্ছে।

আবদুল খালেক নামে অপর দুবাই প্রবাসী জানান, সকাল থেকে লাইনে দাঁড়িয়ে দুপুরের দিকে ভেতরে ঢুকলেও কাউন্টারে বলা হয় বিমানে সিট খালি নেই। কয়েক দিন পর যোগাযোগ করার জন্য পরামর্শ দিয়েছেন কাউন্টারের লোকজন।

হাসমত আলী নামে আবুধাবি প্রবাসী যুগান্তরকে বলেন, যে তারিখে টিকিট কাটার জন্য এসেছি সে তারিখে টিকিট নেই। তবে টিকিটের চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় এক শ্রেণির দালাল টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। বেশি টাকা দিলে তারা টিকিট করিয়ে দিতে পারবে বলেও জানিয়েছে।