ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি কোমায়

  কৃষ্ণকুমার দাস, কলকাতা ১৪ আগস্ট ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল থাকলেও সংকট কাটেনি। ভেন্টিলেটরে তিনি কোমায় আচ্ছন্ন হয়ে আছেন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মেডিকেল বুলেটিনে নয়াদিল্লির সেনা হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা এ তথ্য জানান। চিকিৎসকদের উদ্ধৃতি দিয়ে একই কথা জানিয়েছেন প্রণব মুখার্জির ছেলে অভিজিৎ মুখার্জি। এদিকে প্রণব মুখার্জির শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে বুধবার রাতে নয়াদিল্লির এক সিনিয়র সাংবাদিকের টুইট মুহূর্তে ভাইরাল হয়ে যায়। তবে এ ভুয়া খবরে বিরক্তি প্রকাশ করে অভিজিৎ পাল্টা টুইটে লিখেছেন, ‘আমার বাবা এখনও বেঁচে আছেন।’

চারদিন ধরে সেনা হাসপাতালের ভেন্টিলেটরে আছেন প্রণব মুখার্জি। তবে আগের চেয়ে সামান্য উন্নতি হয়েছে বলে চিকিৎসকরা ইঙ্গিত দিয়েছেন। এদিন সকালে মেডিকেল বুলেটিনে জানানো হয়, তার শারীরিক অবস্থার পরিবর্তন হয়নি। বিভিন্ন প্যারামিটার স্থিতিশীল থাকলেও তিনি গভীরভাবে কোমায় আচ্ছন্ন রয়েছেন। এখনও ভেন্টিলেটর সাপোর্টে রয়েছেন।

প্রণব মুখার্জির মৃত্যু হয়েছে বলে বুধবার রাতে নয়াদিল্লির এক সিনিয়র সাংবাদিক ইঙ্গিত দিয়ে টুইট করেন। মুহূর্তে তা ভাইরাল হয়ে যায়। কিন্তু প্রথমে হাসপাতাল ও পরে পরিবারের পক্ষ থেকে এমন খবর ভুয় বলে উড়িয়ে দেয়া হয়। এদিন হাসপাতালের বাইরে অপেক্ষমাণ সাংবাদিকদের কাছে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেন অভিজিৎ।

অবশ্য এর আগেই তিনি নিজেই টুইটে বিরক্তি প্রকাশ করে লেখেন, ‘আমার বাবা এখনও বেঁচে আছেন এবং তিনি হিমোডায়নামিক্যালি স্থিতিশীল আছেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় সিনিয়র সাংবাদিক যে পূর্বাভাস ও ভুয়া খবর ছড়িয়েছেন তাতে এটা স্পষ্ট যে ভারতের সংবাদমাধ্যম ভুয়া খবরের কারখানা হয়ে গেছে।’ নিজের বিরক্তি চেপে না-রেখে অভিজিৎ আরও লেখেন, ‘আমার বাবার সম্পর্কে যে গুজব ছড়ানো হয়েছে তা মিথ্যা। বিশেষত সংবাদমাধ্যমকে অনুরোধ করছি, আমাকে ফোন করবেন না। কারণ হাসপাতাল থেকে খবর পাওয়ার জন্য আমার ফোনটা খালি রাখা দরকার।’ রোববার গভীর রাতে বাড়ির বাথরুমে পড়ে গিয়ে কপালে আঘাত পান প্রণব মুখার্জি। পরদিন সকাল থেকে স্নায়ুঘটিত সমস্যা দেখা দেয় তার। হাসপাতাল সূত্র জানায়, তিনি বাঁ হাত নাড়তে পারছিলেন না।

সিটি স্ক্যান এবং এমআরআইতে দেখা যায়, আঘাত পাওয়ার ফলে তার মাথার ভেতর রক্ত জমাট বেঁধেছে। জরুরি ভিত্তিতে অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নেন চিকিৎসকরা। অপারেশনের পর থেকে ভেন্টিলেশনে আছেন তিনি। অস্ত্রোপচারের আগে টেস্ট করতে গিয়ে ধরা পড়ে কোভিড-১৯ও বাসা বেঁধেছে সাবেক রাষ্ট্রপতির শরীরে।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত