রাজশাহীতে ছুরি মেরে দোকান মালিককে হত্যা
jugantor
রাজশাহীতে ছুরি মেরে দোকান মালিককে হত্যা
গ্রেফতার ২

  রাজশাহী ব্যুরো  

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

রাজশাহী মহানগরীতে ছুরিকাঘাতে আদর রহমান নামে এক দোকান মালিক নিহত হয়েছেন। সোমবার রাত ১২টার দিকে নগরীর ভেড়িপাড়া মোড়ে এ ঘটনা ঘটে।

ভেড়িপাড়া মোড়েই পুলিশের রাজশাহী রেঞ্জের উপমহাপরিদর্শকের (ডিআইজি) কার্যালয়। এ ঘটনায় রাতেই বাপ্পারাজ ও দর্পণ নামে দু’জনকে গ্রেফতার করেছে রাজপাড়া থানা পুলিশ। বাপ্পারাজ ও দর্পণের বাড়ি নগরীর ভেড়িপাড়ায়। গ্রেফতার ব্যক্তিরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার বিষয়টি স্বীকার করেছে।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতাল পুলিশ বক্সের ইনচার্জ আবদুল হান্নান জানান, আদরের বাবার নাম আবদুল গফুর।

ভেড়িপাড়াতেই আদরের বাড়ি। গুরুতর আহত অবস্থায় আদরকে যারা হাসপাতালে নিয়ে গিয়েছিলেন তারা পুলিশকে এ তথ্য দিয়েছেন।

তিনি আরও জানান, রাত ১২টায় ছুরিকাহত আদরকে যখন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়, তখনও আদর জীবিত ছিলেন। জরুরি বিভাগ থেকে তাকে তাৎক্ষণিকভাবে ওয়ার্ডে পাঠানো হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

রাজপাড়া থানার ওসি শাহাদাত হোসেন খান বলেন, সন্ত্রাসীরা আদরকে ছুরিকাঘাত করে রাস্তার পাশে ফেলে রেখেছিল। গ্রেফতার বাপ্পারাজ ও দর্পণকে প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তাদের মঙ্গলবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় আদরের ভাই আবদুল হান্নান বাদী হয়ে হত্যা মামলা করেছেন।

হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে এলাকাবাসী মঙ্গলবার বিকালে লাশ নিয়ে ডিআইজি কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন করেছেন। এ সময় সড়কের দু’পাশে যানজটের সৃষ্টি হয়। পরে পুলিশ বিক্ষোভকারীদের সরিয়ে দেয়।

রাজশাহীতে ছুরি মেরে দোকান মালিককে হত্যা

গ্রেফতার ২
 রাজশাহী ব্যুরো 
৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

রাজশাহী মহানগরীতে ছুরিকাঘাতে আদর রহমান নামে এক দোকান মালিক নিহত হয়েছেন। সোমবার রাত ১২টার দিকে নগরীর ভেড়িপাড়া মোড়ে এ ঘটনা ঘটে।

ভেড়িপাড়া মোড়েই পুলিশের রাজশাহী রেঞ্জের উপমহাপরিদর্শকের (ডিআইজি) কার্যালয়। এ ঘটনায় রাতেই বাপ্পারাজ ও দর্পণ নামে দু’জনকে গ্রেফতার করেছে রাজপাড়া থানা পুলিশ। বাপ্পারাজ ও দর্পণের বাড়ি নগরীর ভেড়িপাড়ায়। গ্রেফতার ব্যক্তিরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার বিষয়টি স্বীকার করেছে।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতাল পুলিশ বক্সের ইনচার্জ আবদুল হান্নান জানান, আদরের বাবার নাম আবদুল গফুর।

ভেড়িপাড়াতেই আদরের বাড়ি। গুরুতর আহত অবস্থায় আদরকে যারা হাসপাতালে নিয়ে গিয়েছিলেন তারা পুলিশকে এ তথ্য দিয়েছেন।

তিনি আরও জানান, রাত ১২টায় ছুরিকাহত আদরকে যখন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়, তখনও আদর জীবিত ছিলেন। জরুরি বিভাগ থেকে তাকে তাৎক্ষণিকভাবে ওয়ার্ডে পাঠানো হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

রাজপাড়া থানার ওসি শাহাদাত হোসেন খান বলেন, সন্ত্রাসীরা আদরকে ছুরিকাঘাত করে রাস্তার পাশে ফেলে রেখেছিল। গ্রেফতার বাপ্পারাজ ও দর্পণকে প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তাদের মঙ্গলবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় আদরের ভাই আবদুল হান্নান বাদী হয়ে হত্যা মামলা করেছেন।

হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে এলাকাবাসী মঙ্গলবার বিকালে লাশ নিয়ে ডিআইজি কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন করেছেন। এ সময় সড়কের দু’পাশে যানজটের সৃষ্টি হয়। পরে পুলিশ বিক্ষোভকারীদের সরিয়ে দেয়।