বেতাগী ও গৌরনদীতে অপহরণের পর ধর্ষণ
jugantor
বেতাগী ও গৌরনদীতে অপহরণের পর ধর্ষণ
নলছিটিতে ধর্ষণের শিকার গৃহবধূকে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছে শ্বশুরবাড়ির লোকজন * ডিমলা, দোহার, ফকিরহাট ও গুরুদাসপুরে চার নারী ধর্ষণের শিকার * বরিশাল, বান্দরবানে গ্রেফতার তিন

  যুগান্তর ডেস্ক  

২০ অক্টোবর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বরগুনার বেতাগীতে কলেজছাত্রী ও বরিশালের গৌরনদীতে গৃহবধূকে অপহরণের পর ধর্ষণ করা হয়েছে। ঝালকাঠির নলছিটিতে ধর্ষণের শিকার গৃহবধূকে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছে শ্বশুরবাড়ির লোকজন। নীলফামারীর ডিমলায় শিশু, ঢাকার দোহারে মাদ্রাসাছাত্রী, বাগেরহাটের ফকিরহাটে নড়াইলের এক নারী ও নাটোরের গুরুদাসপুরে এক কিশোরী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। বরিশালে পৃথক দুই ধর্ষণের ঘটনায় দু’জন ও গাজীপুরের কাপাসিয়ায় গৃহবধূ ধর্ষণের ঘটনায় বান্দরবান থেকে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে ধর্ষণের ঘটনা মামলা হয়েছে। পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালীতে গণপিটুনি দিয়ে যুবককে পুলিশে সোপর্দ করেছে জনগণ। কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে মামলা করেছেন গৃহবধূ। এ ছাড়া জয়পুরহাটে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে মাদ্রাসাশিক্ষকে গ্রেফতার

করেছে পুলিশ। যুগান্তর রিপোর্ট, ব্যুরো ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

বরগুনা : কলেজছাত্রীকে অপহরণের পর ধর্ষণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। দু’দিনেও কলেজছাত্রীর খোঁজ না পেয়ে থানায় মামলা না নেয়ায় বরগুনার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলা করেছে কলেজ ছাত্রীর বাবা। সোমবার ওই ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. হাফিজুর রহমান মামলাটি গ্রহণ করে বেতাগী থানাকে এজাহার নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। মামলার আসামিরা হল- বরগুনা বেতাগী উপজেলার কাউনিয়া গ্রামের পরিমলেন্দু হালদারের ছেলে পংকজ কান্তি হালদার, পংকজের ভগ্নিপতি সুমন, বোন পলি রাণী, বাবা পরিমলেন্দু ও মা অঞ্জলী রাণী। রোববার সকালে কাউনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে পংকজ কান্তি হালদার, সুমন ও পলি রাণী একটি মাইক্রোবাসে ওই কলেজছাত্রীকে জোর করে তুলে নিয়ে যায়। এ সময় কলেজছাত্রী ও তার মা চিৎকার দেন। স্থানীয়রা এলেও মেয়েকে উদ্ধার করতে পারেনি। অনেক খোঁজাখুঁজির পরে মাইক্রোবাসের ড্রাইভার হাসানের মোবাইল নম্বর সংগ্রহ করে জানা যায় পংকজের দখলে রয়েছে ওই কলেজছাত্রী। মেয়েটির বাবা যুগান্তরকে বলেন, পংকজ আমার মেয়েকে ২৪ সেপ্টেম্বর বরিশাল থেকে আরও একবার অপহরণ করে নিয়ে যায়। মেয়েটির বাবা আরও বলেন, আমি রোববার রাতে বেতাগী থানায় মামলা করতে গেলে থানা মামলা নেয়নি। ওসি কাজি শাখাওয়াত হোসেন যুগান্তরকে বলেন, মেয়ের বাবা থানায় এসে আমার কাছে বলেছেন তার মেয়ে স্বেচ্ছায় চলে গেছে। স্বেচ্ছায় গেলে তো মামলা হয় না। আমি ভালো একজন উকিল ধরে কোর্টে মামলা করতে বলেছি।

বরিশাল ও গৌরনদী : অপহরণ করে পাঁচ দিন আটকে রেখে বরিশালের গৌরনদী উপজেলার বাকাই ইছাকুড়ি গ্রামের এক গৃহবধূকে ধর্ষণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূর মা বাদী হয়ে অভিযুক্ত নাছির হাওলাদারসহ দু’জনের নাম উল্লেখ করে পাঁচজনকে আসামি করে রোববার রাতে গৌরনদী থানায় মামলা করেছেন। গৌরনদী থানার ওসি মো. আফজাল হোসেন জানান, ১১ অক্টোরর সন্ধ্যায় উপজেলার বাকাই ইছাকুড়ি গ্রামের এক গৃহবধূ স্বামীর বাড়ি ফিরছিলেন। পথে আগৈলঝাড়া উপজেলার বাহাদুরপুরে এমদাদ হাওলাদারের ছেলে নাছির হাওলাদারের নেতৃত্বে চার-পাঁচজন ওই গৃহবধূকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। তাকে ঢাকার মিরপুর-১৪ এলাকায় বাবুল হাওলাদারের ভাড়াটিয়া বাসায় নিয়ে ১৬ অক্টোবর পর্যন্ত পাঁচদিন আটকে রেখে বিভিন্ন সময়ে ওই গৃহবধূকে ধর্ষণ করে নাছির। ১৬ অক্টোবর সন্ধ্যায় কৌশলে পালিয়ে ওই গৃহবধূ বাসে বাড়িতে আসেন। এ ছাড়া মহানগর ও জেলার গৌরনদীর পৃথক দুটি ধর্ষণ মামলার দুই আসামিকে গ্রেফতার করেছে বরিশাল র‌্যাব-৮ এর সদস্যরা। রোববার সন্ধ্যায় র‌্যাবের পক্ষ থেকে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। র‌্যাব জানায়, ৪ অক্টোবর গৌরনদী উপজেলার বাটাজোড় গ্রামে এক কিশোরীকে সিরাজ বেপারি ধর্ষণ করে। পরে এ ঘটনায় ভিকটিমের পরিবার গৌরনদী থানায় মামলা করে। বিষয়টি সংবাদ মাধ্যমে জানতে পেরে র‌্যাব-৮ সদস্যরা তদন্ত শুরু করে। শনিবার মধ্যরাতে র‌্যাব-৮, বরিশাল সিপিএসসির একটি দল ঢাকার যাত্রাবাড়ী থেকে সিরাজ বেপারিকে গ্রেফতার করে। তিনি বাটাজোড় এলাকার আরজ আলী বেপারির ছেলে। অপরদিকে ১২ অক্টোবর বরিশাল এয়ারপোর্ট থানার ইছাকাঠি গ্রামে এক নারীকে সবুজ কান্তি ধর্ষণ করে। পরে পরিবার থেকে এয়ারপোর্ট থানায় মামলা করে। এ বিষয়টিও বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে জানতে পেরে র‌্যাব-৮ সদস্যরা তদন্ত শুরু করে। তদন্তের এক পর্যায়ে রোববার সকালে র‌্যাব-৮, বরিশাল সিপিএসসির একটি দল পিরোজপুরের কাউখালী উপজেলার হরিণদারা এলাকা থেকে সবুজ কান্তিকে গ্রেফতার করে। সে বরিশাল নগরের ২৯নং ওয়ার্ডের ইসাকাঠি এলাকার মিনাল কান্তি আইচের ছেলে।

ডিমলা (নীলফামারী) : নীলফামারীতে এক শিশুকে ধর্ষণ ও আরেক শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে। দুটি ঘটনায় সোমবার নীলফামারী সদর থানা ও ডিমলা থানায় পৃথক মামলা করা হয়েছে। এর মধ্যে ধর্ষণের ঘটনায় ডিমলা থানা পুলিশ ধর্ষণে অভিযুক্ত শাহজামালকে গ্রেফতার করেছে। মামলা সূত্রে জানা যায়, সোমবার বেলা ১২টায় ডিমলা উপজেলার বালাপাড়া ইউনিয়নের দক্ষিণ সুন্দরখাতা গ্রামে তৃতীয় শেণির ছাত্রীকে আমীর হামজার ছেলে শাহজামাল বাঁশঝাড়ে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে। অপর ঘটনাটি ঘটে নীলফামারী সদরের সোনারায় ইউনিয়নের স্বরূপ জয়চণ্ডি গ্রামে রোববার রাত ৮টায়। ওই গ্রামের চন্দ্র রায়ের ছেলে জগদীশ চন্দ্র রায় চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রীকে বাড়িতে একা পেয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে। মেয়েটির চিৎকারে জগদীশ চন্দ্র পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে নীলফামারী সদর থানায় মামলা করেছেন বলে নিশ্চিত করেন ওসি (তদন্ত) মাহমুদ উন নবী।

নবাবগঞ্জ (ঢাকা) : দোহার উপজেলায় এক মাদ্রাসাছাত্রী কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে বলরাম নামের এক যুবকের বিরুদ্ধে। ওই কিশোরীর স্বজনরা জানান, রোববার সন্ধ্যায় বলরাম ওই কিশোরীকে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে ধর্ষণ করে। পুলিশ জানায়, ওই কিশোরীকে রোববার বলরাম অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। পরে সোমবার সকালে গোপনে কিশোরীকে তার বাড়ির পাশে পৌঁছে দিয়ে চলে যায়। বাসায় পৌঁছে মেয়েটি তার পরিবারের সদস্যদের কাছে ঘটনা খুলে বলে। দোহার থানার ওসি (তদন্ত) আরাফাত হোসেন যুগান্তরকে বলেন, ধর্ষণের শিকার কিশোরী ও তার বাবা দোহার থানা পুলিশকে বিষয়টি অবগত করেছেন।

বাাগেরহাট : ফকিরহাট উপজেলার দাড়িয়া কাহারডাংগা গ্রামে রোববার সন্ধ্যায় এক নারী ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। এ ঘটনায় রাতেই ওই নারী বাদী হয়ে ফকিরহাট থানায় মামলা করেন। মামলার পরই পুলিশ দাড়িয়া কাহারডাঙ্গা গ্রাম থেকে আল আমিন বিশ্বাসকে গ্রেফতার করেছে। সে ওই গ্রামের সেলিম বিশ্বাসের ছেলে।

গুরুদাসপুর ও বড়াইগ্রাম (নাটোর) : গুরুদাসপুরে এক কিশোরী ধর্ষণের অভিযোগে মানিক হোসেনকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। রোববার গভীর রাতে উপজেলার চাপিলা ইউনিয়নের রওশনপুরে ওই ঘটনা ঘটে। থানার ওসি আবদুর রাজ্জাক বলেন, বাদীর অভিযোগর পরিপ্রেক্ষিতে আসামিকে আটক করা হয়েছে। ধর্ষণ হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে। তবে ডাক্তারি পরীক্ষার পর নিশ্চিত করে বলা যাবে ওই কিশোরী ধর্ষণের শিকার হয়েছে কিনা। এ ছাড়া বড়াইগ্রামে ৮ বছর বয়সী শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে সাজেদুর রহমান নামের এক রুটি বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার উপজেলার আহম্মেদপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। সাজেদুর জেলার সদর উপজেলার চরতেবাড়িয়া গ্রামের আস্তুল প্রামাণিকের ছেলে। তিনি আহম্মেদপুর বাসস্ট্যান্ডে রুটি বানিয়ে বিক্রি করেন।

ঝালকাঠি ও নলছিটি : নলছিটিতে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে যুবক মহিদুল হাসান হিরণের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় স্থানীয়রা ওই যুবককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছেন। শনিবার রাতে উপজেলার কাঠিপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ওই যুবকের বিরুদ্ধে নলছিটি থানায় মামলা করেছেন গৃহবধূ। ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধূকে শ্বশুরবাড়ির লোকজন মারধর করে বাবারবাড়ি পাঠিয়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পুলিশ ও নির্যাতিতের পরিবার জানায়, শনিবার রাতে কাঠিপাড়া গ্রামে ওই গৃহবধূর বাড়ির পেছনের গাছ বেয়ে ছাদ থেকে ঘরের ভেতরে প্রবেশ করে হিরণ। সে গৃহবধূর কক্ষে ঢুকে তাকে ধর্ষণ করে। এ সময় তার চিৎকারে পরিবার ও আশপাশের লোকজন এসে হিরণকে আটক করে। তাকে মারধর করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়। নির্যাতনের শিকার ওই গৃহবধূকে নানা অপবাদ দিয়ে মারধর করে শ্বশুরবাড়ির লোকজন। এমনকি অভিযুক্ত ধর্ষণকারী ও গৃহবধূকে পাশাপাশি বসিয়ে অশ্লীল ছবি তুলে ফেসবুকে ছড়িয়ে দেন স্থানীয়রা। গৃহবধূর অভিযোগ, তার স্বামী ঢাকায় চাকরি করেন। ধর্ষণের ঘটনা শুনে তিনি আমার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করার ঘোষণা দিয়েছেন। তার পরিবারের লোকজন আমাকে বাড়ি থেকে নামিয়ে দিয়েছে। আমি নির্যাতিত হলাম আবার তাদের মারও খেলাম। গৃহবধূর স্বামী বলেন, আমি খবর পেয়ে ঢাকা থেকে বাড়িতে এসেছি। আমাদের পারিবারিক সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আপাতত আমার স্ত্রীকে রাখা সম্ভব নয়। নলছিটি থানার ওসি আবদুল হালিম তালুকদার জানান, ধর্ষণের ঘটনায় মামলা করেছেন ওই গৃহবধূ। আসামি গ্রেফতার হয়েছে। ওই গৃহবধূকে মারধর, ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেয়া ও তাকে বাবার বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়ার ব্যাপারে অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

কাপাসিয়া (গাজীপুর) : কাপাসিয়ায় গৃহবধূকে ধর্ষণের ঘটনায় এক আসামিকে বান্দরবান থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতার আসামি হল সাফাইশ্রী গ্রামের শুক্কুর আলীর ছেলে খাইরুল আলম সবুজ। সে ধর্ষণ মামলার ২ নম্বর আসামি। গাজীপুর ডিবির এসআই আহসানের নেতৃত্বে একটি দল তাকে বান্দরবানের একটি হোটেল থেকে রোববার রাতে গ্রেফতার করেছে। কাপাসিয়া থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, ডিবির হাতে গ্রেফতার ধর্ষণ মামলার আসামি সবুজকে সোমবার কাপাসিয়া থানায় হস্তান্তর ও তাকে ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে আবেদন করা হয়েছে।

বাঁশখালী (চট্টগ্রাম) : বাঁশখালী উপজেলার চাম্বল ইউনিয়নের সিন্ধিপাড়ায় ফোরকানিয়া মাদ্রাসায় কোরআন শিখতে গিয়ে ১০ অক্টোবর মাদ্রাসা শিক্ষকের হাতে ধর্ষণের শিকার হয় এক স্কুলছাত্রী। এ ঘটনায় সোমবার ছাত্রীটির মা হোসনে আরা বাদী হয়ে শিক্ষক মোজাম্মেল হকের বিরুদ্ধে বাঁশখালী থানায় মামলা করেছেন। মোজাম্মেল চাম্বল সিন্ধিপাড়া ৪নং ওয়ার্ডের আবদুল মজিদের ছেলে। বাঁশখালী থানার ওসি রেজাউল করিম মজুমদার বলেন, আসামি গ্রেফতারের জন্য অভিযান চলছে।

রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী) : রাঙ্গাবালী উপজেলায় এক গৃহবধূকে ধর্ষণের দেড় মাসের মাথায় এবার ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে। এ অভিযোগে নবীন প্যাদা নামের এক যুবককে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে স্থানীয় লোকজন। রোববার মধ্যরাতে উপজেলার চরমোন্তাজ ইউনিয়নের বাইলাবুনিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় সোমবার সকালে রাঙ্গাবালী থানায় ধর্ষণচেষ্টার মামলা করেন ওই গৃহবধূ। পরে পুলিশ হেফাজতে থাকা অভিযুক্ত একমাত্র আসামি নবীনকে আদালতে পাঠানো হয়। নবীন বাইলাবুনিয়া গ্রামের নুরু প্যাদার ছেলে।

ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) : ফুলবাড়ীতে এক নারীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে মাদকসেবী যুবকের বিরুদ্ধে। তিনি উপজেলার নাওডাঙ্গা ইউনিয়নের নাওডাঙ্গা গ্রামের ছোবেদ আলীর ছেলে মিজানুর রহমান। এ ব্যাপারে ফুলবাড়ী থানায় অভিযোগ করেছেন নির্যাতনের শিকার নারী। ঘটনাটি ঘটে শনিবার গভীর রাতে।

জয়পুরহাট : জয়পুরহাটের সদর উপজেলার মুজাহিদপুরে কোরআন শিক্ষার্থী ৪ শিশু মেয়েকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে মাদ্রাসাশিক্ষক আবদুর রশিদকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আবদুর রশিদ মুজাহিদপুরের নয়ামদ্দিনের ছেলে। রোববার রাতে যৌন নিপীড়নের শিকার শিশুদের একজনের বাবা বাদী হয়ে জয়পুরহাট সদর থানায় মামলা করলে রাতেই আবদুর রশিদকে গ্রেফতার করা হয়।

বেতাগী ও গৌরনদীতে অপহরণের পর ধর্ষণ

নলছিটিতে ধর্ষণের শিকার গৃহবধূকে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছে শ্বশুরবাড়ির লোকজন * ডিমলা, দোহার, ফকিরহাট ও গুরুদাসপুরে চার নারী ধর্ষণের শিকার * বরিশাল, বান্দরবানে গ্রেফতার তিন
 যুগান্তর ডেস্ক 
২০ অক্টোবর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বরগুনার বেতাগীতে কলেজছাত্রী ও বরিশালের গৌরনদীতে গৃহবধূকে অপহরণের পর ধর্ষণ করা হয়েছে। ঝালকাঠির নলছিটিতে ধর্ষণের শিকার গৃহবধূকে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছে শ্বশুরবাড়ির লোকজন। নীলফামারীর ডিমলায় শিশু, ঢাকার দোহারে মাদ্রাসাছাত্রী, বাগেরহাটের ফকিরহাটে নড়াইলের এক নারী ও নাটোরের গুরুদাসপুরে এক কিশোরী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। বরিশালে পৃথক দুই ধর্ষণের ঘটনায় দু’জন ও গাজীপুরের কাপাসিয়ায় গৃহবধূ ধর্ষণের ঘটনায় বান্দরবান থেকে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে ধর্ষণের ঘটনা মামলা হয়েছে। পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালীতে গণপিটুনি দিয়ে যুবককে পুলিশে সোপর্দ করেছে জনগণ। কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে মামলা করেছেন গৃহবধূ। এ ছাড়া জয়পুরহাটে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে মাদ্রাসাশিক্ষকে গ্রেফতার

করেছে পুলিশ। যুগান্তর রিপোর্ট, ব্যুরো ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

বরগুনা : কলেজছাত্রীকে অপহরণের পর ধর্ষণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। দু’দিনেও কলেজছাত্রীর খোঁজ না পেয়ে থানায় মামলা না নেয়ায় বরগুনার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলা করেছে কলেজ ছাত্রীর বাবা। সোমবার ওই ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. হাফিজুর রহমান মামলাটি গ্রহণ করে বেতাগী থানাকে এজাহার নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। মামলার আসামিরা হল- বরগুনা বেতাগী উপজেলার কাউনিয়া গ্রামের পরিমলেন্দু হালদারের ছেলে পংকজ কান্তি হালদার, পংকজের ভগ্নিপতি সুমন, বোন পলি রাণী, বাবা পরিমলেন্দু ও মা অঞ্জলী রাণী। রোববার সকালে কাউনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে পংকজ কান্তি হালদার, সুমন ও পলি রাণী একটি মাইক্রোবাসে ওই কলেজছাত্রীকে জোর করে তুলে নিয়ে যায়। এ সময় কলেজছাত্রী ও তার মা চিৎকার দেন। স্থানীয়রা এলেও মেয়েকে উদ্ধার করতে পারেনি। অনেক খোঁজাখুঁজির পরে মাইক্রোবাসের ড্রাইভার হাসানের মোবাইল নম্বর সংগ্রহ করে জানা যায় পংকজের দখলে রয়েছে ওই কলেজছাত্রী। মেয়েটির বাবা যুগান্তরকে বলেন, পংকজ আমার মেয়েকে ২৪ সেপ্টেম্বর বরিশাল থেকে আরও একবার অপহরণ করে নিয়ে যায়। মেয়েটির বাবা আরও বলেন, আমি রোববার রাতে বেতাগী থানায় মামলা করতে গেলে থানা মামলা নেয়নি। ওসি কাজি শাখাওয়াত হোসেন যুগান্তরকে বলেন, মেয়ের বাবা থানায় এসে আমার কাছে বলেছেন তার মেয়ে স্বেচ্ছায় চলে গেছে। স্বেচ্ছায় গেলে তো মামলা হয় না। আমি ভালো একজন উকিল ধরে কোর্টে মামলা করতে বলেছি।

বরিশাল ও গৌরনদী : অপহরণ করে পাঁচ দিন আটকে রেখে বরিশালের গৌরনদী উপজেলার বাকাই ইছাকুড়ি গ্রামের এক গৃহবধূকে ধর্ষণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূর মা বাদী হয়ে অভিযুক্ত নাছির হাওলাদারসহ দু’জনের নাম উল্লেখ করে পাঁচজনকে আসামি করে রোববার রাতে গৌরনদী থানায় মামলা করেছেন। গৌরনদী থানার ওসি মো. আফজাল হোসেন জানান, ১১ অক্টোরর সন্ধ্যায় উপজেলার বাকাই ইছাকুড়ি গ্রামের এক গৃহবধূ স্বামীর বাড়ি ফিরছিলেন। পথে আগৈলঝাড়া উপজেলার বাহাদুরপুরে এমদাদ হাওলাদারের ছেলে নাছির হাওলাদারের নেতৃত্বে চার-পাঁচজন ওই গৃহবধূকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। তাকে ঢাকার মিরপুর-১৪ এলাকায় বাবুল হাওলাদারের ভাড়াটিয়া বাসায় নিয়ে ১৬ অক্টোবর পর্যন্ত পাঁচদিন আটকে রেখে বিভিন্ন সময়ে ওই গৃহবধূকে ধর্ষণ করে নাছির। ১৬ অক্টোবর সন্ধ্যায় কৌশলে পালিয়ে ওই গৃহবধূ বাসে বাড়িতে আসেন। এ ছাড়া মহানগর ও জেলার গৌরনদীর পৃথক দুটি ধর্ষণ মামলার দুই আসামিকে গ্রেফতার করেছে বরিশাল র‌্যাব-৮ এর সদস্যরা। রোববার সন্ধ্যায় র‌্যাবের পক্ষ থেকে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। র‌্যাব জানায়, ৪ অক্টোবর গৌরনদী উপজেলার বাটাজোড় গ্রামে এক কিশোরীকে সিরাজ বেপারি ধর্ষণ করে। পরে এ ঘটনায় ভিকটিমের পরিবার গৌরনদী থানায় মামলা করে। বিষয়টি সংবাদ মাধ্যমে জানতে পেরে র‌্যাব-৮ সদস্যরা তদন্ত শুরু করে। শনিবার মধ্যরাতে র‌্যাব-৮, বরিশাল সিপিএসসির একটি দল ঢাকার যাত্রাবাড়ী থেকে সিরাজ বেপারিকে গ্রেফতার করে। তিনি বাটাজোড় এলাকার আরজ আলী বেপারির ছেলে। অপরদিকে ১২ অক্টোবর বরিশাল এয়ারপোর্ট থানার ইছাকাঠি গ্রামে এক নারীকে সবুজ কান্তি ধর্ষণ করে। পরে পরিবার থেকে এয়ারপোর্ট থানায় মামলা করে। এ বিষয়টিও বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে জানতে পেরে র‌্যাব-৮ সদস্যরা তদন্ত শুরু করে। তদন্তের এক পর্যায়ে রোববার সকালে র‌্যাব-৮, বরিশাল সিপিএসসির একটি দল পিরোজপুরের কাউখালী উপজেলার হরিণদারা এলাকা থেকে সবুজ কান্তিকে গ্রেফতার করে। সে বরিশাল নগরের ২৯নং ওয়ার্ডের ইসাকাঠি এলাকার মিনাল কান্তি আইচের ছেলে।

ডিমলা (নীলফামারী) : নীলফামারীতে এক শিশুকে ধর্ষণ ও আরেক শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে। দুটি ঘটনায় সোমবার নীলফামারী সদর থানা ও ডিমলা থানায় পৃথক মামলা করা হয়েছে। এর মধ্যে ধর্ষণের ঘটনায় ডিমলা থানা পুলিশ ধর্ষণে অভিযুক্ত শাহজামালকে গ্রেফতার করেছে। মামলা সূত্রে জানা যায়, সোমবার বেলা ১২টায় ডিমলা উপজেলার বালাপাড়া ইউনিয়নের দক্ষিণ সুন্দরখাতা গ্রামে তৃতীয় শেণির ছাত্রীকে আমীর হামজার ছেলে শাহজামাল বাঁশঝাড়ে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে। অপর ঘটনাটি ঘটে নীলফামারী সদরের সোনারায় ইউনিয়নের স্বরূপ জয়চণ্ডি গ্রামে রোববার রাত ৮টায়। ওই গ্রামের চন্দ্র রায়ের ছেলে জগদীশ চন্দ্র রায় চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রীকে বাড়িতে একা পেয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে। মেয়েটির চিৎকারে জগদীশ চন্দ্র পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে নীলফামারী সদর থানায় মামলা করেছেন বলে নিশ্চিত করেন ওসি (তদন্ত) মাহমুদ উন নবী।

নবাবগঞ্জ (ঢাকা) : দোহার উপজেলায় এক মাদ্রাসাছাত্রী কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে বলরাম নামের এক যুবকের বিরুদ্ধে। ওই কিশোরীর স্বজনরা জানান, রোববার সন্ধ্যায় বলরাম ওই কিশোরীকে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে ধর্ষণ করে। পুলিশ জানায়, ওই কিশোরীকে রোববার বলরাম অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। পরে সোমবার সকালে গোপনে কিশোরীকে তার বাড়ির পাশে পৌঁছে দিয়ে চলে যায়। বাসায় পৌঁছে মেয়েটি তার পরিবারের সদস্যদের কাছে ঘটনা খুলে বলে। দোহার থানার ওসি (তদন্ত) আরাফাত হোসেন যুগান্তরকে বলেন, ধর্ষণের শিকার কিশোরী ও তার বাবা দোহার থানা পুলিশকে বিষয়টি অবগত করেছেন।

বাাগেরহাট : ফকিরহাট উপজেলার দাড়িয়া কাহারডাংগা গ্রামে রোববার সন্ধ্যায় এক নারী ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। এ ঘটনায় রাতেই ওই নারী বাদী হয়ে ফকিরহাট থানায় মামলা করেন। মামলার পরই পুলিশ দাড়িয়া কাহারডাঙ্গা গ্রাম থেকে আল আমিন বিশ্বাসকে গ্রেফতার করেছে। সে ওই গ্রামের সেলিম বিশ্বাসের ছেলে।

গুরুদাসপুর ও বড়াইগ্রাম (নাটোর) : গুরুদাসপুরে এক কিশোরী ধর্ষণের অভিযোগে মানিক হোসেনকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। রোববার গভীর রাতে উপজেলার চাপিলা ইউনিয়নের রওশনপুরে ওই ঘটনা ঘটে। থানার ওসি আবদুর রাজ্জাক বলেন, বাদীর অভিযোগর পরিপ্রেক্ষিতে আসামিকে আটক করা হয়েছে। ধর্ষণ হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে। তবে ডাক্তারি পরীক্ষার পর নিশ্চিত করে বলা যাবে ওই কিশোরী ধর্ষণের শিকার হয়েছে কিনা। এ ছাড়া বড়াইগ্রামে ৮ বছর বয়সী শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে সাজেদুর রহমান নামের এক রুটি বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার উপজেলার আহম্মেদপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। সাজেদুর জেলার সদর উপজেলার চরতেবাড়িয়া গ্রামের আস্তুল প্রামাণিকের ছেলে। তিনি আহম্মেদপুর বাসস্ট্যান্ডে রুটি বানিয়ে বিক্রি করেন।

ঝালকাঠি ও নলছিটি : নলছিটিতে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে যুবক মহিদুল হাসান হিরণের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় স্থানীয়রা ওই যুবককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছেন। শনিবার রাতে উপজেলার কাঠিপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ওই যুবকের বিরুদ্ধে নলছিটি থানায় মামলা করেছেন গৃহবধূ। ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধূকে শ্বশুরবাড়ির লোকজন মারধর করে বাবারবাড়ি পাঠিয়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পুলিশ ও নির্যাতিতের পরিবার জানায়, শনিবার রাতে কাঠিপাড়া গ্রামে ওই গৃহবধূর বাড়ির পেছনের গাছ বেয়ে ছাদ থেকে ঘরের ভেতরে প্রবেশ করে হিরণ। সে গৃহবধূর কক্ষে ঢুকে তাকে ধর্ষণ করে। এ সময় তার চিৎকারে পরিবার ও আশপাশের লোকজন এসে হিরণকে আটক করে। তাকে মারধর করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়। নির্যাতনের শিকার ওই গৃহবধূকে নানা অপবাদ দিয়ে মারধর করে শ্বশুরবাড়ির লোকজন। এমনকি অভিযুক্ত ধর্ষণকারী ও গৃহবধূকে পাশাপাশি বসিয়ে অশ্লীল ছবি তুলে ফেসবুকে ছড়িয়ে দেন স্থানীয়রা। গৃহবধূর অভিযোগ, তার স্বামী ঢাকায় চাকরি করেন। ধর্ষণের ঘটনা শুনে তিনি আমার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করার ঘোষণা দিয়েছেন। তার পরিবারের লোকজন আমাকে বাড়ি থেকে নামিয়ে দিয়েছে। আমি নির্যাতিত হলাম আবার তাদের মারও খেলাম। গৃহবধূর স্বামী বলেন, আমি খবর পেয়ে ঢাকা থেকে বাড়িতে এসেছি। আমাদের পারিবারিক সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আপাতত আমার স্ত্রীকে রাখা সম্ভব নয়। নলছিটি থানার ওসি আবদুল হালিম তালুকদার জানান, ধর্ষণের ঘটনায় মামলা করেছেন ওই গৃহবধূ। আসামি গ্রেফতার হয়েছে। ওই গৃহবধূকে মারধর, ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেয়া ও তাকে বাবার বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়ার ব্যাপারে অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

কাপাসিয়া (গাজীপুর) : কাপাসিয়ায় গৃহবধূকে ধর্ষণের ঘটনায় এক আসামিকে বান্দরবান থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতার আসামি হল সাফাইশ্রী গ্রামের শুক্কুর আলীর ছেলে খাইরুল আলম সবুজ। সে ধর্ষণ মামলার ২ নম্বর আসামি। গাজীপুর ডিবির এসআই আহসানের নেতৃত্বে একটি দল তাকে বান্দরবানের একটি হোটেল থেকে রোববার রাতে গ্রেফতার করেছে। কাপাসিয়া থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, ডিবির হাতে গ্রেফতার ধর্ষণ মামলার আসামি সবুজকে সোমবার কাপাসিয়া থানায় হস্তান্তর ও তাকে ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে আবেদন করা হয়েছে।

বাঁশখালী (চট্টগ্রাম) : বাঁশখালী উপজেলার চাম্বল ইউনিয়নের সিন্ধিপাড়ায় ফোরকানিয়া মাদ্রাসায় কোরআন শিখতে গিয়ে ১০ অক্টোবর মাদ্রাসা শিক্ষকের হাতে ধর্ষণের শিকার হয় এক স্কুলছাত্রী। এ ঘটনায় সোমবার ছাত্রীটির মা হোসনে আরা বাদী হয়ে শিক্ষক মোজাম্মেল হকের বিরুদ্ধে বাঁশখালী থানায় মামলা করেছেন। মোজাম্মেল চাম্বল সিন্ধিপাড়া ৪নং ওয়ার্ডের আবদুল মজিদের ছেলে। বাঁশখালী থানার ওসি রেজাউল করিম মজুমদার বলেন, আসামি গ্রেফতারের জন্য অভিযান চলছে।

রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী) : রাঙ্গাবালী উপজেলায় এক গৃহবধূকে ধর্ষণের দেড় মাসের মাথায় এবার ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে। এ অভিযোগে নবীন প্যাদা নামের এক যুবককে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে স্থানীয় লোকজন। রোববার মধ্যরাতে উপজেলার চরমোন্তাজ ইউনিয়নের বাইলাবুনিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় সোমবার সকালে রাঙ্গাবালী থানায় ধর্ষণচেষ্টার মামলা করেন ওই গৃহবধূ। পরে পুলিশ হেফাজতে থাকা অভিযুক্ত একমাত্র আসামি নবীনকে আদালতে পাঠানো হয়। নবীন বাইলাবুনিয়া গ্রামের নুরু প্যাদার ছেলে।

ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) : ফুলবাড়ীতে এক নারীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে মাদকসেবী যুবকের বিরুদ্ধে। তিনি উপজেলার নাওডাঙ্গা ইউনিয়নের নাওডাঙ্গা গ্রামের ছোবেদ আলীর ছেলে মিজানুর রহমান। এ ব্যাপারে ফুলবাড়ী থানায় অভিযোগ করেছেন নির্যাতনের শিকার নারী। ঘটনাটি ঘটে শনিবার গভীর রাতে।

জয়পুরহাট : জয়পুরহাটের সদর উপজেলার মুজাহিদপুরে কোরআন শিক্ষার্থী ৪ শিশু মেয়েকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে মাদ্রাসাশিক্ষক আবদুর রশিদকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আবদুর রশিদ মুজাহিদপুরের নয়ামদ্দিনের ছেলে। রোববার রাতে যৌন নিপীড়নের শিকার শিশুদের একজনের বাবা বাদী হয়ে জয়পুরহাট সদর থানায় মামলা করলে রাতেই আবদুর রশিদকে গ্রেফতার করা হয়।